কমলগঞ্জে পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতি চেষ্টা ডাকাতকে গণপিটুনী, আহত ৩

30

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি:: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের রামেশ্বরপুর গ্রামে সাবেক ইউপি সদস্যের বাড়ীতে গভীর রাতে পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতির চেষ্টা করেছে সংঘবদ্ধ অস্ত্রধারী ডাকাতদল। বাড়ির লোকজন ডাকাতদের ধরতে গিয়ে ডাকাত দলের ধারালো দা ও লোহার রডের হামলায় অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্যসহ তিন সহোদর গুরুতরভাবে আহত হয়েছেন। ডাকাতদের আক্রমনে তিন ভাই গুরুতর আহত হয়েছেন। এক ডাকাতকে আটকিয়ে রাখতে পারলেও বিক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী জেগে উঠলে বাকী ডাকাত সদস্যরা পালিয়ে যায়। বিক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী গণধোলাই দিয়ে এক ডাকাতকে আটক করে পুলিশের নিকট হস্তান্তর করে। পুলিশ ডাকাতের ব্যবহৃত অস্ত্র ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করেছে। গুরুতর আহত তিনজন সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আহত ডাকাতকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অবস্থার অবনতি হওয়ায় সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। গত সোমবার (২৭ নভেম্বর) দিবাগত রাত আড়াইটায় আলীনগর ইউনিয়নের রামেশ্বরপুর গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে।

জানা যায়, সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটায় সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল গনি’র বাড়ীতে একদল ডাকাত প্রবেশ করে পুলিশ পরিচয় দিয়ে দরজা খুলতে বলে। ডাকাতরা বিভিন্ন দলে ভাগ হয়ে গনি মিয়ার তিন ছেলের ঘরের দরজার সামনে অবস্থান নেয়। প্রথমে আব্দুল হাই ওরপে সাহিদ (৪৮) দরজা খোলামাত্র কয়েকজন ডাকাত তাকে লোহার রড দিয়ে আঘাত করে। এতে তিনি বুকে মারাত্মক আঘাত প্রাপ্ত হন। অন্যান্য ডাকাতরা তখন অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য আব্দুর রউফ ওরফে শামীম (৫২) ও আব্দুল আজিজ ওরফে ওয়াহিদ (৩৭) ও আব্দুল হাই (৪২) এর ঘরের দরজা ভেংগে ভিতরে প্রবেশের চেষ্টা করে। বাঁধা দিলে ডাকাতদের হামলায় অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য আব্দুর রউফ শামীম ডাকাত দলের দ্ইুজনকে ঝাপটে ধরেন। এসময় ডাকাত দুইজন তার বুকে ছুড়ি দিয়ে আঘাত করে।পাশের রুমের আরেক ভাই আব্দুল আজিজ ছুটে আসলে তার বাম পায়ে আঘাত প্রাপ্ত হন। আহতদের চিৎকারে বিক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী ছুটে আসতে থাকলে ডাকাতদল পালিয়ে যাওয়ার সময় এক ডাকাতকে আটক করা হয়। খবর পেয়ে কমলগঞ্জ থানার ওসি মো: বদরুল হাসানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আহত বাড়ির লোকজন হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সাথে সাথে পুলিশি পাহারায় আহত ধৃত ডাকাতকেও প্রথমে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ও পরে সিলেট এম.এ.জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।এ সময় ডাকাতের ব্যবহৃত অস্ত্র ও একটি মোবাইল ফোন পুলিশ উদ্ধার করে বলে জানা গেছে। যদিও আহত আটক ডাকাতের পরিচয় সর্ম্পকে নিশ্চিত না হলেও সে বিভিন্ন মামলার আসামী রাজনগর থানার মৌলভীর চক গ্রামের আব্দুল আজিজের পূত্র মোস্তাক মিয়া বলে পুলিশের ধারনা।
কমলগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) নজরুল ইসলাম ডাকাতির চেষ্টা, এক অব: সেনা সদস্যসহ তার দুই আহত ও একজন ডাকাত আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,দ্রুত এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।