উদ্ধারে পদক্ষেপ না নেওয়ার অভিযোগ : দোয়ারাবাজারে এক বছর পর লুট হওয়া মালের সন্ধান

38

সবুজ সিলেট ডেস্ক ::
সুনামগঞ্জ দোয়ারাবাজারের লক্ষীপুর থানার সুলতানপুর ইউনিয়নের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুল বারেকের বাড়িতে গত বছর মালামাল লুটপাটের ঘটনার এক বছর লুটপাটের কিছু জিনিস এর সন্ধান পাওয়া গেছে। সন্ধানের পাওয়ার পর সেগুলো উদ্ধারে পুলিশের কোন পদক্ষেপ নেই বলে অভিযোগ করেছেন বারেক। এমনকি লুটপাটের যে জিনিস পাওয়া গেছে সেগুলো উদ্ধারে কার্যকরী পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য দোয়ারাবাজার থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তবে সন্ধান পাওয়া জিনিসের সঠিক প্রমান না পেলে কার্যকরী কোনো পদক্ষেপ গ্রহন করতে পারছেন না বলেও জানিয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ২৫ ডিসেম্বর বেলা ১১টায় আব্দুল বারেকের বাসায় লুটপাটের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তিনি চলতি বছরের ২২ আগষ্ট অজ্ঞাত ৪/৫ জন ও ১৯ জনের নাম উল্লেখ করে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং -২০৩/২০১৭ ইং। তবে চলতি বছরে বিশ^স্ত সূত্রে বারেক জানতে পারেন লুট হওয়া দুটি পালং ও সৌর বিদ্যুৎ সোলার ব্যাটারি ফতেহপুর ইউনিয়নের আনিফ উল্লাহ’র ছেলে সোনা মিয়ার কাছে রয়েছে। সোনা মিয়া মামলায় অভিযোগ বহির্ভূত ব্যাক্তি। তবে গত ২৭ নভেম্বর সেগুলো উদ্ধারে বারেক মিয়া যান সোনা মিয়ার বাড়িতে।
অভিযোগে আরও উল্লেখ করা হয়, বারেক মিয়াকে দেখে সোনা মিয়া দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদেরকে মারার জন্য তেড়ে আসে। এমনকি তাদেরকে হুমকিও দেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দোয়ারবাজার থানার এসআই আবু তাহের বলেন, লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। আমরা বিষয়টি দেখছি। ইতিমধ্যে আমরা ওই পক্ষের কাছে গিয়েছি। সোলার ব্যাটারির নাম্বার মিলিয়ে দেখবো আমরা। যদি মিলে যায় তাহলে আমরা সেটি হস্তান্তর করবো। আর পালং এর ব্যাপারে কোনো প্রমান উনারা দিতে পারেন নি। তারপরও তদন্তের জন্য আমরা জিনিসগুলো অন্য আরেকজনের জিম্মায় রেখে এসেছি। তদন্ত চলছে।