জ্যোতিষী হয়ে সমাধান দিবেন ‘সাবা’

51

বিনোদন ডেস্ক ::

‘আপনি কি কোনো সমস্যায় ভুগছেন? সেটা হোক ব্যবসায়িক, সামাজিক, আর্থিক, মানসিক, পারিবারিক ও ব্যক্তিগত। এমনকি ছেলেমেয়েরা লেখাপড়ায় অমনোযোগী। আবার চাকরিতে উন্নতি হচ্ছে না। অর্থাৎ কোনোভাবেই রাহুর গ্রাস থেকে মুক্ত হচ্ছে না আপনার জীবন। তবে এবার আর হতাশা নয়। সব সমস্যার সমাধান দেবে এক ‘নব্য নারী জ্যোতিষী’। এখন থেকে প্রতি শুক্রবার মধ্যরাতে চেম্বারে বসে মানুষের নানা সমস্যার কথা শুনবেন এবং সেটির সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করবেন। আর তার এই চেম্বারের নাম রেখেছেন ‘সাবা’স কনফেশন বক্স’। ঠিকানাটি বনানীর রেডিও টুডের অফিস। এভাবেই মজার বিজ্ঞাপন দিয়ে এফএম রেডিওর সিরিয়াস এই অনুষ্ঠানের হট সিটে বসছেন সোহানা সাবা।

সাবা জানালেন, অনুষ্ঠানের বিজ্ঞাপনের জন্য এভাবেই ভিডিওটি প্রকাশ করা হয়েছে। যা এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল! এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘বিজ্ঞাপনটি ফানি হলেও এখানে সিরিয়াস বিষয় নিয়ে কথা হবে। রেডিওর শ্রোতারা এতে তাদের সমস্যার কথাগুলো বলবেন। আমি একজন শুভাকাঙ্ক্ষী হিসেবে তাদের কথা শুনব ও আমার অভিজ্ঞতা শেয়ার করব। সমাধানের চেয়ে বড় কথা এখানে বিপর্যস্ত মানুষকে মানসিক সাপোর্ট দেওয়া। যেটা আমি বরাবরই করে আসছি কাছের মানুষদের।’

সাবা আরো বলেন, ‘আট-দশ বছর আগে থেকেই আমার অনেক বন্ধু-স্বজন তাদের পারসোনাল প্রবলেম শেয়ার করেন আমার সঙ্গে। আমি তাদের নানা পরামর্শ দিতাম। তারা পরে জানাত, সমস্যা কেটে গেছে! শুনে অবাক হতাম এবং খুশিও লাগত। আরো জানতে পারি, মানসিক প্রশান্তির জন্য আমার সঙ্গে কথা বলে তাদের ভালো লাগে!

এরপর লক্ষ্য করলাম, খ্রিস্টানদের সার্চে একটা কনফেশন বক্স থাকে। সেখানে মানুষ তার প্রবলেমের কথা লিখে রাখে। পরে সার্চের ফাদার সেই চিঠি খুলে কারো চেহারা না দেখে, তার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। বিষয়টি আমার খুব মনে ধরেছে। সেখান থেকেই অনুষ্ঠানটির নাম ঠিক করি। তাছাড়া খেয়াল করলে দেখবেন, মানুষ এখন এমন একা হয়ে গেছে, শেয়ার করার মতো মানুষটাও খুঁজে পাওয়া যায় না। আমি সেই একা মানুষগুলোর পাশে থাকতে চাই। কারণ, আমি নিজেও তো একা।’

‘সাবা’স কনফেশন বক্স’ নামের এ অনুষ্ঠানটি প্রতি শুক্রবার রাত ১২টায় শুরু হয়ে চলবে ২টা পর্যন্ত।