বিমানের যাত্রীলাইনে রাহুল, নেটদুনিয়ায় হইচই

56

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ::
পাঁচজন সাধারণ মানুষের মতোই বিমান ধরার জন্য লাইন দাঁড়িয়েছিলেন কংগ্রেসের হবু সভাপতি রাহুল গান্ধী। তার এই ছবি টুইটারে আসার পর নেটদুনিয়ায় হইচই পড়ে গেছে। বেশিরভাগই রাহুলকে স্বাগত জানিয়েছে। তবে ভারতের বেসরকারি বিমান সংস্থা ইন্ডিগোর মুণ্ডুপাত করেছেন অনেকে। কেউ কেউ আবার খোঁচা মারতেও ছাড়েননি রাহুলকে।

গুজরাটে চলছে বিধানসভা নির্বাচন। গত শনিবার ছিল প্রথম দফার নির্বাচন। আর সেদিনই দিল্লি উড়ে যান রাহুল। মা সোনিয়া গান্ধীর ৭১তম জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে ১০ জনপথের বাড়িতে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সামনেই দ্বিতীয় দফার নির্বাচন, আর তাই বিকেলেই আমেদাবাদের বিমান ধরার উদ্দেশে রওনা হন।

ইন্ডিগোর বিমানেই আমেদাবাদ যাওয়ার কথা ছিল রাহুলের। রাহুল যখন বিমান ধরার লাইনে দাঁড়িয়ে তখন তার একটি ছবি তুলে টুইটারে পোস্ট করে ইন্ডিগো। সঙ্গে লেখে, ‘স্বাগতম রাহুল গান্ধী। আপনার যাত্রা শুভ হোক।’

দিন কয়েক আগে এক যাত্রীর সঙ্গে অভব্য আচরণ করেছিলো বিমানসংস্থা ইন্ডিগো। ওই যাত্রীকে মারধর করতেও ছাড়েনি সংস্থাটির লোকজন। এ ঘটনায় খবরের শিরোনামে উঠে এসেছিল ইন্ডিগো।

রাহুলের এই ছবি দেখেই আগের সেই ঘটনার প্রসঙ্গটি তুলে আনেন টুইটার ব্যবহারকারীরা। কেউ লেখেন, ‘এবার অন্তত ইন্ডিগোর কর্মীদের মাথা ঠান্ডা রাখা উচিত।’ কেউ লেখেন, ‘রাহুলজির গায়ে হাত দিলে এবার সত্যি সত্যিই লাইসেন্স বাতিল হয়ে যাবে।’ কেউ আবার ইন্ডিগো কর্মীদের সাবধান করে লেখেন, ‘রাহুলের সঙ্গে কিন্তু নিজস্ব নিরাপত্তারক্ষী রয়েছে। তাই ইন্ডিগো কর্মীরা কোনও মজা করতে চাইলেও গ্রেপ্তার হতে পারে তারা।’

এখানেই শেষ নয়, বেশ কয়েকজন রাহুলকে ব্যঙ্গ করেও টুইট করেন। একজন লেখেন, ‘পাপ্পু কেজরিওয়ালের কাছ থেকে নাটক করার শিক্ষা নিচ্ছেন।’

তবে এ ঘটনায় রাহুলের ভাবমূর্তি যে আরও উঁচুতে উঠলো তা নিশ্চিত।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন