যে কারণে ম্যানেজারকে চড় মারলেন ম্যারাডোনা

50

স্পোর্টস ডেস্ক ::
বয়স হয়েছে তাকে কি! এখনও বদলাননি মেজাজ। এবার ভারত সফরে এসেও তার প্রমাণ দিলেন। তবে এজন্য কলকাতার ক্রীড়া কর্মকর্তাদের অব্যবস্থাপণাই বেশি দায়ী।

এতক্ষণে নিশ্চয়ই বুঝে গেলেন কার কথা বলছি। হ্যা, ফুটবলের বরপুত্র দিয়েগো ম্যারাডোনার কথা বলছিলাম। তিনদিনের ভারত সফরের মঙ্গলবারই ছিল তার শেষদিন। আর শেষ দিনেই কিনা ঘটালেন এমন অঘটন! ভিড়ে মেজাজ হারিয়ে প্রকাশ্যে চড় কষালেন নিজের ম্যানেজারকে।

এ সম্পর্কে ভারতের বাংলা দৈনিক ‘সংবাদ প্রতিদিন’ জানায়, সফরের শেষ দিনে মঙ্গলবার একাধিক অনুষ্ঠানে যোগ দেন ম্যারাডোনা। দুপুরে বারাসতের আদিত্য স্কুল অফ স্পোর্টসে পৌঁছে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানেই একটি প্রীতি ম্যাচ খেলার কথা ছিল সৌরভ গাঙ্গুলির দলের বিরুদ্ধে। কিন্তু ভারতের সাবেক ক্রিকেট অধিনায়ক দেরি করে আসায় আর ম্যাচে নামেননি ম্যারাডোনা। তবে তার বাঁ-পায়ের অনবদ্য ড্রিবলিং থেকে স্কুলের শিশু কিশোরদের বঞ্চিত করলেন না বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক। ৫৭ বছরের ম্যারাডোনা জানান দিলেন এখনও কতটা ফিট তিনি।

সৌরভের সঙ্গেও বেশ খানিকক্ষণ সময় কাটান। এসময় কিংবদন্তি ফুটবলার বলেন, ‘আমি এ দেশে এসেছি ফুটবলের টানে। ফুটবলের উন্নতির জন্য ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলছি। সকলে একসঙ্গেই ফুটবলকে সফল করতে হবে।’

তারপর সেখান থেকে চলে আসেন মাদার হাউসে। মোমবাতি জ্বালিয়ে মাদাম তেরেসার সামনে প্রার্থনাও করেন। এতদূর পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল। গোল বাধল তেরেসা হাউস থেকে বেরনোর সময়। কিংবদন্তী ফুটবলারকে দেখতে ভিড় উপচে পড়েছিল মাদার হাউসের বাইরে। তখনই তার গাড়ির কাচে ধাক্কা লাগায় মেজাজ হারান ম্যারাডোনা। নিজেকে কোনোমতে সামলে নিয়ে রওনা দেন চেতলা অগ্রণী ক্লাবের উদ্দেশে।

কিন্তু সেখানের ভিড় দেখে থমকে যান তিনি। নিরাপত্তার কারণেই ভিড়ের কারণে গাড়ি থেকে নামতে চাননি। ক্লাবকর্তাদের কাণ্ডজ্ঞানহীনতায় প্রায় ৪৫ মিনিট গাড়িতেই বসে থাকেন। শেষে তার ম্যানেজার সার্জিও এসে যখন তাকে দু’মিনিটের জন্য গাড়ি থেকে বেরিয়ে আসার অনুরোধ জানালেন, তখন আর মেজাজ ঠিক রাখতে পারলেন না ম্যারাডোনা। মেজাজ হারিয়ে সবার সামনেই সপাটে চড় বসিয়ে দেন সার্জিওর গালে।

এরপর তাকে আর নামতে বলা হয়নি। গাড়িতে বসেই ক্লাবের জন্য একটি স্মারকে অটোগ্রাফ দিয়ে হোটেল রওনা দেন। বুধবার সকাল ৮টার বিমানে দুবাই ফেরার কথা রয়েছে তার।

সূত্র: ইন্টারনেট