লাউয়াছড়া বনে বিরল ‘ব্যাম্বু ট্রিনকেট’ সাপ

56

সবুজ সিলেট ডেস্ক ::
দেশের বনগুলোর মধ্যে জীববৈচিত্র্যে সমৃদ্ধ বন লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান। এটিকে বলা হয় দুর্লভ উদ্ভিদ এবং প্রাণীদের সংগ্রহশালা। এই বনে অন্যান্য বন্যপ্রাণীর মধ্যে রয়েছে বিশ্বে বিরল ব্যাম্বু ট্রিনকেট স্নেক (Bamboo Trinket Snake)। বন্য প্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন সূত্রে জানা গেছে, গত ৩১ ডিসেম্বর রাত সাড়ে সাতটার দিকে শ্রীমঙ্গল উপজেলার জাগছড়া চা বাগানের ফাঁড়ি বাগান গিলাছড়া চা বাগান এলাকায় চা শ্রমিকদের হাতে সাপটি ধরা পড়ে। এ সময় সাপটি চা বাগানের একটি রাস্তা পার হয়ে যাচ্ছিল।

স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে সেদিন রাতেই বন্য প্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন সাপটিকে উদ্ধার করে। খাবারের সংকট থাকায় এই ধরনের সাপ লোকালয়ে আসছে। অনেক আগে এ সাপ দেখা গেলেও এখন দেখা মেলে না। গত বৃহস্পতিবার সাপটিকে লাউয়াছড়ার জানকিছড়া এলাকায় অবমুক্ত করা হয়। এর আগে বাংলাদেশে এ সাপটি পাওয়ার একটি মাত্র রেকর্ড আছে। এটি নির্বিষ এবং সুন্দর রঙিন সাপের মধ্যে একটি।

বন্য প্রাণী গবেষক সূত্রে জানা গেছে, ইংরেজিতে এটিকে ব্যাম্বু ট্রিংকেট স্নেক বলা হয়। স্থানীয় দুধরাজ সাপেরই বে দুধরাজ পাওয়া গেলেও বেম্বো ট্রিংকিট সাপ খুব কম পাওয়া যায়। এটা মূলত মিশ্রসবুজ পাহাড়ি বনের মধ্য এলাকার নিচু ঝোঁপঝাড়ে বাস করে। ইঁদুর, চিকা ইত্যাদি প্রাণী খেয়ে থাকে। এই সাপটি দুই থেকে পাঁচটি ডিম দেয়। বাচ্চা ফোটানোর সময় হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ দিন। একটি পুরুষ সাপের দৈর্ঘ্য ৭৫ থেকে ৮০ সেন্টিমিটার এবং মেয়ে সাপের দৈর্ঘ্য ৯০ থেকে ১০০ সেন্টিমিটার হয়ে থাকে। পরিণত সাপের রং লাল এবং শরীরে হালকা কালো ডোরা দাগ থাকে।

বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো ২০১১ সালে লাউয়াছড়া বনে বেম্বো ট্রিংকিটকে দেখা যায়। ২০১৩ সালে মাত্র একবার মৌলভীবাজারের লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান এলাকায় সড়কের মধ্যে মৃত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছিল। এছাড়া দেশের আর কোথাও এ সাপটি পাওয়ার রেকর্ড নেই। যে কারণে এ সাপটি সম্পর্কে বাংলাদেশে খুব বেশি তথ্য নেই। বাংলাদেশ ছাড়া দক্ষিণ ও পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোতে এ সাপটি দেখা যায়। এর মধ্যে রয়েছে ভারতের দার্জিলিং, সিকিম, আসাম, অরুণাচল, মিয়ানমার, ভুটান, থাইল্যান্ড, লাওস, কম্বোডিয়া, ভিয়েতনাম, নেপাল, দক্ষিণ চীন, তাইওয়ান, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. কামরুল হোসেন বলেন, বেম্বো ট্রিংকিট একটি বিরল প্রজাতির সাপ। বাস্তবে এ সাপের দেখা মেলা খুব দুষ্কর। লাউয়াছড়া ছাড়া দেশের আর কোথাও এ সাপটি পাওয়ার রেকর্ড নেই।

শ্রীমঙ্গল সহকারী বনসংরক্ষক তবিবুর রহমান জানান, অবমুক্ত করা বেম্বো ট্রিংকিটটি গত কিছু দিন আগে চা বাগান থেকে উদ্ধার করা হয়। পরে লাউয়াছড়ার জানকিছড়া এলাকায় অবমুক্ত করা হয়েছে।