৭ বিষয়ের প্রশ্ন ফাঁস!

341

নিউজ ডেস্ক:: প্রশ্নফাঁস থামানোই যাচ্ছে না। একের পর এক প্রশ্ন ফাঁস হচ্ছে। চলমান এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার প্রশ্নও ফাঁস হচ্ছে ধারাবাহিকভাবে। সবশেষ আইসিটি পরীক্ষার প্রশ্নপত্রও ফাঁস হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রবিবার সকাল ৮টা ৫১ মিনিটে হোয়াটসঅ্যাপের একটি গ্রুপে আইসিটির ‘ক সেট’ প্রশ্ন পাওয়া যায়। এরপর সকাল ৯টা ৩ মিনিটে ‘গ সেট’ প্রশ্নও ফাঁস হয়। যা অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। পরীক্ষা শেষে এই দুই সেট প্রশ্নের সঙ্গে মিলিয়ে ফাঁস হওয়া সেটের হুবহু মিল পাওয়া যায়। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত অনুষ্ঠিত ৭টি বিষয়ের প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ পাওয়া গেলো।

প্রথম প্রশ্নফাঁস হয় ১ ফেব্রুয়ারি। এদিন বাংলা প্রথম পত্রের বহুনির্বাচনি অভীক্ষার ‘খ’ সেট পরীক্ষার প্রশ্ন ফেসবুকে ফাঁস হয়। পরীক্ষা শুরুর এক ঘণ্টা আগেই তা ফেসবুকে পাওয়া যায়।

এরপর ৩ ফেব্রুয়ারি সকালে পরীক্ষা শুরুর আগে বাংলা দ্বিতীয় পত্রের নৈর্ব্যক্তিক (বহুনির্বাচনি) অভীক্ষার ‘খ’ সেটের উত্তরসহ প্রশ্নপত্র ফেসবুকে বিভিন্ন গ্রুপে পাওয়া যায়। যার সঙ্গে অনুষ্ঠিত হওয়া পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের হুবহু মিল পাওয়া যায়।

৫ ফেব্রুয়ারি পরীক্ষা শুরুর দুই ঘণ্টা আগে সকাল ৮টা ৪ মিনিটে ইংরেজি প্রথম পত্রের ‘ক’ সেটের প্রশ্ন ফাঁস হয়। যার সঙ্গে অনুষ্ঠিত হওয়া পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের হুবহু মিল পাওয়া যায়।

৭ ফেব্রুয়ারি সকাল ৯টা ১২ মিনিটে ইংরেজি দ্বিতীয় পত্রের ‘খ’ সেটের গাঁদা প্রশ্নপত্রটি হোয়াটসঅ্যাপের একটি গ্রুপে পাওয়া গেছে। যা অনুষ্ঠিত হওয়া পরীক্ষার প্রশ্নের সঙ্গে হুবহু মিলে গেছে।

৮ ফেব্রুয়ারি হোয়াটসঅ্যাপের একটি গ্রুপে ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষার বহুনির্বাচনি অভীক্ষার ‘খ’ সেটের চাঁপা প্রশ্নপত্রটি পাওয়া যায়।

১০ ফেব্রুয়ারি সকাল ৮টা ৫৯ মিনিটে হোয়াটসঅ্যাপের একটি গ্রুপে গণিতের ‘খ-চাঁপা’ সেটের প্রশ্নপত্রটি পাওয়া যায়। যা অনুষ্ঠিত পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের সঙ্গে হুবহু মিলে গেছে।

এদিকে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস সংক্রান্ত যত তথ্য বা লিংক পাওয়া গেছে সেগুলো নিয়ে জরুরি সভা ডেকেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব এবং পরীক্ষা মূল্যায়ন কমিটির আহ্বায়ক আলমগীর হোসেন। রবিবার বিকেল ৪টায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হবে।