সিলেট-বিছানাকান্দি যাত্রাপথের বঙ্গবীর-হাদারপার সড়ক যেন মরণফাঁদ

44
ইদ্রিছ আলী :: 
সিলেট গোয়াইনঘাট উপজেলার বিছানাকান্দি যাতায়াতের পথে বঙ্গবীর হাদারপার সড়কটি যেন মরণ ফাঁদ। দীর্ঘ দিন থেকে এই সড়কে কোন সংস্কার না থাকায় সড়কটি এখন চলাচলের অনুপযোগী। বিশেষ করে গর্ভবতী নারী আর অসুস্থ রোগীদের পোহাতে হচ্ছে সীমাহীন দুর্ভোগ।
ভাঙা এই সড়কের কারণে জনদুর্ভোগ চরমে পৌঁছালেও দেখার যেনো কেউ নেই। ফলে যানবাহন যাতায়ত করছে ঝুঁকি নিয়ে। তাছাড়া পর্যটনকেন্দ্র বিছানাকান্দি যেতে এ রাস্তা দিয়ে প্রতিনিদন দেশি-বিদেশি পর্যটক জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছেন।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ভাঙা এই সড়কের কারনে কয়েকটি এলাকার মানুষ চরম ভোগান্তি পোহাচ্ছেন। দীর্ঘ দিন থেকে এই সড়কে কোন সংস্কার না থাকায় সড়কটির অবস্থা একেবারেই নাজুক। ৫ কিলোমিটারের এই সড়কের দুই পাশে বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থাকায় শিক্ষার্থীরাও পড়েছেন বিপাকে। প্রতিদিন কোন না কোন গাড়ি গর্তে পড়ে বিকল হয়ে সড়কে আটকে যাচ্ছে। রোগী নিয়ে যাতায়াতেও অসহ্য যন্ত্রনায় পড়তে হয়।

সিএনজি চালক বিলাল বলেন, এক হৃদয় বিদারক ঘটনা। প্রায় মাসখানেক আগে হাদারপার এলাকার একজন গর্ভবতী নারীকে নিয়ে আমার অটোরিকশায় করে যাচ্ছিলাম সিলেটের ওসমানী হাসপাতালে। কিন্তু ওসমানী হাসপাতালে যাওয়ার আগেই গাড়ির ঝাঁকুনিতে ওই নারীর সন্তান প্রসব হয়। পরে হাসপাতালে যাওয়ার আগেই নবজাতক শিশুটি মারা যায়।” পর্যটক হারুন বলেন, রাস্তা ভাঙ্গার কারনে পর্যটন কেন্দ্র বিছানাকান্দিতে যাতায়াত কষ্ঠকর হচ্ছে। এভাবে বিছানাকান্দিতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাচ্ছে। রাস্তার যে হাল অবস্থা যে কোন মুহুর্তে বড় ধরণের সমস্যা হতে পারে।
এদিকে বৃষ্টির মৌসুম চলে আসায় দুশ্চিন্তায় পড়েছেন স্থানীয়রা। সবার মনে একই প্রশ্ন- ‘কবে সংস্কার হবে বঙ্গবীর- হাদারপার সড়কটি? কবে শেষ হবে ভোগান্তি? বিশেষ করে রাস্তাটি সংস্কার না করায় বৃষ্টির পানিতে সড়কে তৈরি হয়েছে বড় বড় গর্ত। এলাকার শিক্ষার্থী রাছেল জানান, রাস্তা ভয়াবহ অবস্থার কারনে প্রতিদিন স্কুল কলেজে ও মাদ্রারাসার শিক্ষার্থীরা যেতে পারে না। ঢাকা থেকে আগত পর্যটক মল্লিক হোসেন, আমিনুল, মনজুর এলাহি, মেহেদি, তারা বলেন, সিলেটের অন্যতম পর্যটন এলাকা বিছানাকান্দি দেখে তারা মুগ্ধ। কিন্তু নৌকার ভাড়া পীরের বাজার থেকে ১৬০০ টাকা- হাদারপার থেকে ১২০০ টাকা।  রাস্তার যে হাল অবস্থা যে কোন মুহুর্তে বড় ধরণের সমস্যা হতে পারে। রাস্তায় চলাচল উপযোগী করার উর্ধ্বতন মহলের কাছে আহ্বান জানান। প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যের লীলাভূমি সিলেটে গোয়াইনঘাট উপজেলার বিছানাকান্দিতে পর্যটকদের ঢল নামে বেশী ঈদের ছুটিতে। কিন্তু এবার ঈদ ছুটিতে পর্যটকদের ধ্বস নামতে পারে এই অপরূপ পর্যটন কেন্দ্রে।  কলেজের ছাত্রী হাফিজা বেগম বলেন, রাস্তা ভাঙ্গার কারনে কলেজে যাওয়া কষ্ঠকর হচ্ছে।
এভাবে এ এলাকার প্রত্যেক শিক্ষার্থী তাদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাচ্ছে।  আয়শা বলেন, সিলেট গোয়াইনঘাট উপজেলার বিছানাকান্দি পর্যটন কেন্দ্রে বঙ্গবীর – হাদারপার সড়ক রাস্তা ভাঙ্গার কারনে যাতায়াত কষ্ঠকর হচ্ছে। এভাবে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাচ্ছে।  গোয়াইনঘাট উপজেলার চেয়ারম্যান আব্দুল হাকিম বলেন, আগামী জুলাই মাসে টেন্ডার হবে।