নগরীতে ঋণের দায় থেকে বাঁচতে নিজের দোকানে আগুন, আটক ১

23

স্টাফ রিপোর্টার::
সিলেটে ঋণের দায় থেকে বাঁচতে নিজেই নিজের প্রিন্টিং প্রেসের দোকানে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছেন এক ব্যবসায়ী। শুধু তাই নয়, নিজের দোকানে আগুন লাগালেও সে আগুনে পুড়েছে আরো দুটি প্রিন্টিং প্রেসের দোকান। সিলেট নগরীর জিন্দাবাজারস্থ মুক্তিযোদ্ধা গলিতে গত শনিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। পরিকল্পিতভাবে আগুন লাগানোর ঘটনা ফাঁস হওয়ায় সোমবার বিকেলে ব্যবসায়ী নাজমুল হাসানকে আটক করে পুলিশে দেয়া হয়েছে। নাজমুল হাসানের বাড়ি ঢাকার দোহারে। তার বাবার নাম ওমর আলী। তিনি দীর্ঘদিন ধরে সিলেট সদর উপজেলার পীরবাজার টিকরপাড়ায় বসবাস করছিলেন।
জানা যায়, গত শনিবার সকাল ৭টার দিকে জিন্দাবাজারস্থ মুক্তিযোদ্ধা গলিতে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার আগে সুমাইয়া প্রিন্টিং প্রেস, আর আর প্রিন্টিং ও তাজিম অফসেট প্রিন্টিং পুড়ে যা। এতে প্রায় চল্লিশ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়। এ ঘটনার পর কিভাবে আগুন লাগলো, তার অনুসন্ধান শুরু করেন ব্যবসায়ীরা। নাজমুল হাসানের গতিবিধি সন্দেহজনক হওয়ায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন ব্যবসায়ীরা। একপর্যায়ে নাজমুল আগুন লাগানোর কথা স্বীকার করেন।
মুক্তিযোদ্ধা গলি ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মেহেদি কাবুল জানান, নাজমুল হাসান বিভিন্নজনের কাছে বিপুল অঙ্কের টাকা ঋণগ্রস্থ ছিলেন। ঋণের দেনা থেকে মুক্তি পেতে তার মালিকানাধীন সুমাইয়া প্রিন্টিং প্রেসে আগুন লাগান তিনি। তার ধারণা ছিল, দোকান পুড়ে গেছে বলে দেনা থেকে মুক্তি পাবেন।
নগরীর কোতোয়ালী থানার ওসি মোশাররফ হোসেন জানান, ব্যবসায়ী নাজমুল হাসানকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।