রাজনীতি হলো নিজের স্বার্থকে বিসর্জন দিয়ে কাজ করা —- ব্যারিস্টার আরশ আলী

13

রাজনৈতিক দলগুলো মানে শুধু ভোট চিন্তা নয়, রাজনীতি হলো উচ্চতর মনুষ্যত্ব গড়ে তোলার একটি প্ল্যাট ফরম। রাজনীতি হলো নিজের স্বার্থকে বির্সজন দিয়ে, জনগণের স্বার্থে কাজ করা। মনুষ্যত্ব যদি গড়ে তুলতে না পারা যায়, তাহলে সমাজ বা রাষ্ট্রের চরিত্র হবে আগ্রাসনী। আমাদের রাজনীতি হলো মানুষের মধ্যে মূল্যবোধ ও মনুষ্যত্ব সৃষ্টি করা। নতুন কমিটি সেই সৃষ্টিশীলতা নিয়েই কাজ করবে।
গত মঙ্গলবার বিকেল ৫টায় সিলেট নগরীর তালতলাস্থ দলীয় কার্যালয়ে গণতন্ত্রী পার্টি সিলেট জেলা কমিটির সভাপতি মো. আরিফ মিয়ার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মো. জুনেদুর রহমান চৌধুরীর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে গণতন্ত্রী পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি প্রবীণ রাজনীতিবিদ ব্যারিস্টার মোহাম্মদ আরশ আলী নতুন কার্যকরী কমিটির সদস্যদের উদ্দেশ্যে এ কথা বলেন।
ব্যারিস্টার আরশ আলী আরো বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১৪ দল জোটগতভাবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। জোটের নেত্রী আওয়ামীলীগ সভাপতি, বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা, জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতিমধ্যেই ঘোষণা দিয়েছেন জোট আছে, জোট থাকবে, মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহণকারী ও চেতনায় বিশ^াসী বন্ধুদেরকে নিয়েই একটি অসম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ সম্পন্ন ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্রমুক্ত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়বো। আমরাও দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে সেই লক্ষ্যে কাজ করবো। সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আপনারা ১৪ দলের প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের পক্ষে কাজ করবেন। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সুনামগঞ্জ-২ (দিরাই-শাল্লা) আসনসহ জোটে আমরা ১০টি আসন দাবী করেছি। কেন্দ্রীয়ভাবে আমরা সেইভাবে কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। আপনারা জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ, স্বজনপ্রীতি, গুম-খুন, অপহরণ, কালোটাকার মালিক ও দলবাজদের বিরুদ্ধে ভোটারদেরকে সচেতন করতে, তাদের কাছে যেতে হবে। মনে রাখবেন, ভোটারাই নির্বাচনের নিয়ামক শক্তি।
সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা গণতন্ত্রী পার্টির সহ-সভাপতি বিপুল বিহারী দে, আব্দুল কুদ্দুছ সরদার, সৈয়দ সয়েফ আহমদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গুলজার আহমদ, শিক্ষা ও সংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক প্রাণ কান্ত দাস, দপ্তর সম্পাদক আজিজুর রহমান খোকন, প্রচার সম্পাদক এনামুল করিম এনাম, ডা. সুবাশ কান্তি দাস, এডভোকেট আবু তালেব মিয়া, নাজিম উদ্দিন আহমেদ, লোকমান আহমদ, তোফায়েল আহমদ, দুলাল মিয়া, কালা মিয়া, শংকর ঘোষ প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি