দেশের প্রতিটি মানুষ সুন্দরভাবে বাঁচবে : প্রধানমন্ত্রী

11

সবুজ সিলেট ডেস্ক ::

‘দেশের একটি মানুষও গৃহহারা থাকবে না। একটি মানুষও অভুক্ত থাকবে না। প্রতিটি মানুষ সুন্দরভাবে বাঁচবে। আর সেই সঙ্গে আমাদের সব শ্রেণী লেখাপড়া শিখে উন্নত হবে। প্রযুক্তির জ্ঞান সম্পন্ন হবে।’

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রেসিডেন্ট গার্ড রেজিমেন্টের (পিজিআর) ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সবার হাতে হাতে আমরাই মোবাইল ফোন তুলে দিয়েছি। আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা, স্মার্ট ডিভাইস ব্যবহার করা ও সেগুলোর উন্নতির লক্ষ্যেই আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

বঙ্গবন্ধুর অবদানের কথা স্মরণ করে তিনি বলেন, জাতির জনক ১৯৭৪ সালে বেতবুনিয়াতে ভূ উপগ্রহ কেন্দ্র স্থাপন করে যান। ওই পর্যন্তই ছিল। তারপরে আর কোনো অগ্রগতি ছিল না।এবার আমরা ক্ষমতায় এসে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপন করে আমরা মহাকাশ জয় করেছি।

এই স্যাটেলাইট আমাদের বিভিন্ন কাজে প্রয়োজন হবে। এটি আমাদের নৌ বাহিনীর জন্য কোষ্টগার্ডের জন্য প্রয়োজন হবে। যারা গভীর সমুদ্রে মাছ ধরতে যায় তাদের জন্য এটি ব্যবহার হবে। এর মাধ্যমে সারাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ইন্টারনেট যোহাযোগের সেবা পৌঁছে যাবে। শিক্ষা দীক্ষাসহ সর্বকাজে আমরা মহাকাশ স্যাটেলাইট ব্যবহার করতে পারব।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, আমরা বাংলাদেশকে অর্থনৈতিকভাকে সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। দরিদ্র দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে চাই না। সেই লক্ষ্যে এখন কাজ চলছে। সেইসঙ্গে প্রতিবন্ধী বা অটিজম থেকে থেকে শুরু করে সবার ভাগ্যন্নোয়নে কাজ করে যাচ্ছি। তিনি এ সময় ভিক্ষুকমুক্ত দেশ গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের কথা তুলে ধরে বলেন, আমাদের পার্শ্ববর্তী দুটি দেশ ভারত-মিয়ানমার। তাদের সঙ্গে বন্ধুত্ব সম্পর্ক বজায় রেখেও আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করে আমরা জয় লাভ করি। আমাদের বন্ধুত্ব কিন্তু তাতে চির ধরেনি।

প্রসঙ্গত, আজ ৫ জুলাই প্রেসিডেন্ট গার্ড রেজিমেন্টের ৪৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। উক্ত অনুষ্ঠানে সশস্ত্র বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।