ছাত্রদলের বিদ্রোহীদের ধাওয়ায় পালালেন মুক্তাদির

136

স্টাফ রিপোর্টার ::
সিলেটে ছাত্রদলের বিদ্রোহী নেতাকর্মীদের ধাওয়া খেয়ে পালালেন বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর সিলেট আগমনে আবারো সংঘর্ষে জড়ালো সিলেটের ছাত্রদলের বিদ্রোহী নেতাকর্মীরা। তবে এবার তাদের সরাসরি টার্গেটে পরিণত হলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির।
জানা যায়, সিলেটের আসন্ন সিটি নির্বাচন উপলক্ষে সিলেট আসছেন আমীর খসরু মাহমুদ। এ খবর পেয়ে সকাল থেকে উপশহর পয়েন্টে জড়ো হয় পদবঞ্চিত ছাত্রদল নেতৃবৃন্দ। বেলা ১ টার দিকে আমীর খসরু সেখানে পৌঁছালে তারা খন্দকার মুক্তাদিরকে কটাক্ষ করে এবং ছাত্রদলের নবগঠিত কমিটির বিপক্ষে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। এর কিছুক্ষন পর বিএনপির এ কেন্দ্রীয় নেতা ডেকে পাঠান পদবঞ্চিত নেতৃবৃন্দদের। তারা সেখানে উপস্থিত হয়ে বর্তমান কমিটির বিভিন্ন অযোগ্যতা তুলে ধরেন। আমীর খসরু এসব ব্যাপার মনোযোগ দিয়ে শুনেন এবং তাদের এ ব্যাপারে দেখবেন বলে আশ্বস্ত করেন।
পরে পদবঞ্চিত নেতৃবৃন্দ যখনই আমীর খসরুর সাথে দেখা করে নিচে নেমে আসেন তখনই সেখানে উপস্থিত হন বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির। তাকে দেখেই ক্ষোভে ছাত্রদল নেতৃবৃন্দরা তাকে দালাল এবং ধর ধর স্লোগান দিয়ে ধাওয়া দিলে তার সাথে থাকা নেতাকর্মীরা তাকে নিয়ে দ্রুত স্থানীয় হোটেলে ঢুকে পরেন।
এসময় খন্দকার মুক্তাদিরের সাথে থাকা সদর উপজেলা ছাত্রদলের আহবায়ক আ.ফ.ম কামাল ও যুবদল কর্মী সাহেদুর রহমান ওরফে ডোম সাহেদকে পদবঞ্চিতরা শারীরিক ভাবে লাঞ্চিত করে। পরে তারা খন্দকার মুক্তাদিরের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দেয়া শুরু করলে পুলিশ এসে সকলকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়।
এব্যাপারে বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদিরকে একাধিকবার কল করলে তিনি কল রিসিভ করেননি।
উল্লেখ্য, ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে গত একমাস ধরে সিলেটে উত্তেজনা চলছে। এরই বহিঃপ্রকাশ ঘটলো মুক্তাদিরের দৌঁড় খাওয়ার মাধ্যমে।