রাশিয়া বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স

27

স্পোর্টস ডেস্ক ::
রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে অবশেষে শিরোপা জয় করে নিলো তারুণ্যের ফ্রান্স। ৪-২ গোলে এবারের চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। বিশ্ববাসী ফাইনাল খেলায় দেখল রোমাঞ্চকর এক লড়াই। মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে ফাইনালে জিতে দ্বিতীয়বারের মতো শিরোপা জিতল ফ্রান্স।

রাশিয়া বিশ্বকাপের শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মাঠে দুর্দান্ত খেলছে ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া। ১৮ মিনিটের মাথায় ফ্রি কিক পায় ফ্রান্স। কিকে বলটি ক্রোয়েশিয়া খেলোয়াড়ের মাথায় বল লেগে গোল পেয়ে যায় ফ্রান্স। ফাইনালেও হলো আত্মঘাতী গোল। তবে ঠিক ১০ মিনিট পরেই ২৮ মিনিটে অসাধারণ এক গোল করে খেলাকে সমতায় নিয়ে যান ক্রোয়েশিয়ার ফরোয়ার্ড পেরিসিচ।

এর ঠিক ১০ মিনিট পরেই ডি বক্সে ক্রোয়েশিয়ার খেলোয়াড়ের হাতে লেগে যায় বল। পেনাল্টি পায় ফ্রান্স। গোল দেন গ্রিজম্যান। আবারও ২-১ গোলে এগিয়ে যায় ফ্রান্স। ওই লিড নিয়ে প্রথমার্ধ শেষ করে ফ্রান্স।

এরপর দ্বিতীয়ার্ধের ৫৯ মিনিটে পগবার দারুণ গোলে ৩-১ গোলের লিড নেয় ফ্রান্স। এর ঠিক ৬ মিনিট পর ম্যাচের ৬৫ মিনিটে চোখ ধাঁধাঁনো গোল করেন ফ্রান্সের তরুণ তারকা এমবাপ্পে। তার গোলে ৪-১ গোলের লিড নেয় ফ্রান্স। তবে ক্রোয়েশিয়া খেলোয়াড় মানজুকিক ৬৯ মিনিটে ফ্রান্সের গোলকিপারের বল পাস থেকে অতির্কিত গোল করে ব্যবধান কমিয়ে ফেলে।

এর আগে রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত নয়টায় মাঠে নেমেছে দু’দল।

এবারের বিশ্বকাপে নাইজেরিয়াকে ২-১ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করে ক্রোয়েশিয়া। এরপর ফেবারিট হিসেবে আসা আর্জেন্টিনাকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দেয় মডরিচের দল। শেষ ম্যাচে আইসল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে গ্রুপ সেরা হিসেবে দ্বিতীয় রাউন্ডে চলে যায় ক্রোয়েশিয়া।

অন্যদিকে ফ্রান্স তাদের গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২-১ গোলের জয় পায়। পেরুকে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে হারায় ১-০ গোলে। আর ডেনমার্কের বিপক্ষে গ্রুপের শেষ ম্যাচে গোল শূন্য সমতা নিয়ে গ্রুপ সেরা হয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠে।

তবে নক আউট পর্ব থেকে ফ্রান্স ফেবারিট দলের মতো খেলা দেখিয়েছে। দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে হারিয়েছে ৪-৩ গোলে। কোয়ার্টার ফাইনালে উরুগুয়েকে বিদায় করে দিয়েছে ২-০ গোলে হারিয়ে। আর সেমিফাইনালের ম্যাচে ডার্ক হর্স বেলজিয়ামকে ১-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে উঠে গেছে ফ্রান্স।

অন্যদিকে ক্রোয়েশিয়া দ্বিতীয় রাউন্ডে ডেনমার্কের সঙ্গে ১২০ মিনিট খেলে ১-১ গোলে সমতার পর টাইব্রেকারে জিতে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে। এরপর কোয়ার্টার ফাইনালে খেলেছে রাশিয়ার বিপক্ষে। সেখানেও ১২০ মিনিটে ২-২ গোলের সমতার পর টাইব্রেকার জিতে সেমিফাইনালে ওঠে ক্রোয়েশিয়া।

ফাইনালের যাওয়ার লড়াইয়ে ফেবারিট তকমা পাওয়া ইংল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারায় ক্রোয়েশিয়া। ওই ম্যাচেও ১২০ মিনিট খেলতে হয়েছে ক্রোয়াটদের।

ফ্রান্স একাদশ: ‍উগো লরি, বেঞ্জামিন পাভার্দ, রাফায়েল ভারান, স্যামুয়েল উমতিতি, হের্নান্দেস, গোলো কঁতে, পল পগবা, কাইলিয়ান এমবাপে, আন্তোয়ান গ্রিয়েজমান, ব্লেইস মাতুইদি ও অলিভিয়ের জিরুদ।

ক্রোয়েশিয়া একাদশ: দানিয়েল সুবাসিচ, ভ্রাসালকো, দেহান লভরেন, দোমাগাজো ভিদা, ইভান স্ত্রিনিচ, ব্রোজোভিচ, ইভান রাকিতিচ, লুকা মদরিচ, ইভান পেরিশিচ, আন্তে রেবিচ ও মারিও মানজুকিচ।