খরচ ৮৮৩ বিলিয়ন, আয় ১৮৪ বিলিয়ন রাশিয়া বিশ্বকাপে

36


স্পোর্টস ডেস্ক::
১১ শহরের ১২ স্টেডিয়ামে নানা ঘটনা ও নাটকীয়তা শেষে পর্দা নামল রাশিয়া বিশ্বকাপের। ফুটবল বোদ্ধাদের মতে, রাশিয়া বিশ্বকাপই ‘সর্বকালের সেরা’।

হবেই বা না কেন? মাসব্যাপী রোমাঞ্চ ছড়ানো এই বিশ্বকাপ ফুটবল বিশ্বকে উপহার দিয়েছে হাসি-কান্না, ঘটন-অঘটন, প্রাপ্তি-হতাশার হাজারো মহাকাব্য। ছিল চমক আর রেকর্ডেরও ছড়াছড়ি। তা ছাড়া পুরো ফুটবল বিশ্বকে বুঁদ করে রাখতে আয়োজনের কোনো কমতি রাখেনি আয়োজক কর্তৃপক্ষও।

সুষ্ঠুভাবে এই বিশ্বকাপ আয়োজন করতে আয়োজক রাশিয়া খরচ করেছে দেশটির মুদ্রায় প্রায় ৮৮৩ বিলিয়ন রুবল। বিশ্বকাপ উপলক্ষে চার মিলিয়নেরও বেশি লোকের সমাগম ঘটেছিল রাশিয়ায়। বিশ্বকাপের পর্দা নামতে হিসাব-নিকাশ শেষে জানা গেল, রাশিয়া বিশ্বকাপ থেকে উপার্জন করেছে ১৮৪ বিলিয়ন রুবল।

রাশিয়ার সংবাদমাধ্যম তাস নিউজের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে প্রাভডা রিপোর্ট। সংবাদমাধ্যমটি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, বিশ্বকাপ উপলক্ষে রাশিয়ায় আশা পর্যটকরা দেশটির রাজধানী মস্কোতে খরচ করেছেন ৯৬.৫ বিলিয়ন রুবল। যা মস্কোর বাজেটের চেয়ে ১৩.২ বিলিয়ন রুবল বেশি।

বিশ্বকাপের আরেক শহর কাজানে সমর্থকরা খরচ করেছেন ১১.২ বিলিয়ন রুবল। যা ২০১৭ সালে কাজানে স্বাভাবিক খরচের হিসাবের চেয়ে ছয়গুন বেশি। খাবার-বাসস্থান ও অন্যান্য খরচ মিলিয়ে কাজানে পর্যটকদের গড়পড়তা দৈনিক খরচ ছিল ৩৭ হাজার রুবল।

আরেক শহর নিঝনি নভগরোদে স্থানীয় ব্যবসায় অতিরিক্ত ১০ বিলিয়ন রুবল অর্জন হয়েছে। আমেরিকান কনসাল্টিং সংস্থা ম্যাককিনসের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বকাপ আয়োজনে রাশিয়ার মোট খরচ হয়েছে ৮৮৩ বিলিয়ন রুবল। আর টুর্নামেন্ট থেকে রাশিয়ার নিট উপার্জন ছিল ১৮৪ বিলিয়ন রুবল।

এর আগে ভিটিবির প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে সমর্থকরা ১৭ বিলিয়ন রুবলের চেয়েও বেশি খরচ করেছেন। ১১ শহরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ১৬.২ বিলিয়ন রুবল খরচ করেছেন মস্কোতে থাকা সমর্থকরা। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে একাতেরিনবার্গ।

সেখানে সমর্থকরা খরচ করেছে ২১১ মিলিয়ন রুবে। আর ১৪৬ মিলিয়ন রুবল খরচ করে এই তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে কাজান শহর। টুর্নামেন্ট চলাকালীন, পর্যটকরা দৈনিক ৫০০ থেকে তিন হাজার ডলার খরচ করেছেন। এর ৪০ ভাগ অর্থই খরচ হয়েছে বিশ্বকাপের বিভিন্ন স্মারক ও খাবার কিনতে।