মজলুমের পক্ষে, ইনসাফ ও উন্নয়নের স্বার্থে টেবিল ঘড়িতে ভোট দিয়ে বিজয়ী করুন— এডভোকেট জুবায়ের

17

আসন্ন সিলেট সিটি নির্বাচনে সিলেট নাগরিক ফোরাম মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী বিশিষ্ট আইনজীবী এডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের বলেছেন- আমাদের আবেগ অনুভুতির পুরোটা জুড়েই পূণ্যভুমি সিলেট। সৌহাদ্র সম্প্রীতির উজ্জল দৃষ্ঠান্ত সিলেটে ৩০ জুলাই নির্বাচন নিয়ে কোন ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবেনা। দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির পেছনে সিলেটবাসীর রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ অবদান। দেশের আধ্যাত্মিক রাজধানী হয়েও সিলেট বিভিন্ন দিক থেকে আজো অনেক পিছিয়ে রয়েছে। তার কেবলই সৎ,যোগ্য ও মেধাবী নেতৃত্বের অভাবেই। দীর্ঘ মেয়াদী মহাপরিকল্পনা গ্রহণের মাধ্যমে স্বল্প সময়ের মধ্যে সিলেটকে শুধু বাংলাদেশের নয়, বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। আমরা মজলুম, আমাদের উপর নির্যাতনের স্টীম রোলার চালানো হয়েছে। তবুও আমরা ইনসাফ ও নীতি থেকে একচুলও সরে যাইনি। ৩০ জুলাই নির্বাচনে মজলুমের পক্ষে, ইনসাফ ও উন্নয়নের প্রতীক টেবিল ঘড়িতে ভোট দিয়ে বিজয়ী করুন। আমাদের নিশ্চিত বিজয় ছিনিয়ে নেয়ার ষড়যন্ত্র হলে দাতঁ ভাঙ্গা জবাব দেয়ার জন্য প্রস্তুত থাকুন।
তিনি গতকাল শনিবার আসন্ন সিসিক নির্বাচনে টেবিল ঘড়ি মার্কার সমর্থনে নগরীর ঐতিহাসিক কোর্ট পয়েন্টে সর্বশেষ নির্বাচনী জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন। সিলেট নাগরিক ফোরামের আহ্বায়ক প্রফেসর ড. আব্দুল আহাদের সভাপতিত্বে, সদস্য সচিব মো: ফখরুল ইসলাম ও মহানগর জামায়াতের সেক্রেটারী মাওলানা সোহেল আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত জনসভায় বক্তব্য রাখেন- জামায়াতের কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের আমীর মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন, কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য সাবেক এমপি অধ্যক্ষ মাওলানা ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারী জেনারেল ড. মোবারক হোসাইন, লেবারপার্টির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান ও সিলেট মহানগর সভাপতি মাহবুবুর রহমান খালেদ, ইসলামী ঐক্যজোটের কেন্দ্রীয় সহকারী মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা জহুরুল হক, জামায়াতের কেন্দ্রীয় মজলিশে শুরা সদস্য ও জেলা দক্ষিণের আমীর মাওলানা হাবীবুর রহমান, জেলা উত্তরের আমীর হাফিজ আনোয়ার হোসাইন খান, ২০ দলীয় জোট সিলেট মহানগর সদস্য সচিব ও এডভোকেট জুবায়েরের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট হাফিজ আব্দুল হাই হারুন, এনডিপি জেলা সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান, জাগপার মহানগর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহজাহান আহমদ লিটন, নেজামে ইসলাম পার্টি জেলা সভাপতি ক্বারী আবু ইউসুফ চৌধুরী, বিজেপি জেলা সদস্য সচিব ডা: একেএম নুরুল আম্বিয়া, ইসলামী ঐক্যজোটের জেলা সাধারণ সম্পাদক ডা: হাবীবুর রহমান, ২০ দলীয় জোট সিলেট জেলা সদস্য সচিব ও সাবেক দক্ষিণ সুরমা উপজেলা চেয়ারম্যান মাওলানা লোকমান আহমদ, সিলেট জেলা উত্তরের সেক্রেটারী মাওলানা ইসলাম উদ্দিন, জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জয়নাল আবেদীন, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান সাইফুল্লাহ আল হোসাইন, গোলাপগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান হাফিজ নজমুল ইসলাম, বিশিষ্ট আলেমে দ্বীন প্রিন্সিপাল মাওলানা আব্দুল সালাম আল মাদানী, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ উপাধ্যক্ষ আব্দুস শাকুর, ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় এইচআরডি সম্পাদক জামশেদ আলম সরকার ও সিলেট মহানগর সভাপতি নজরুল ইসলাম প্রমুখ।
সাবেক এমপি অধ্যক্ষ মাওলানা ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী বলেন- সিলেট নগরীতে পরিবর্তনের স্লোগান উঠেছে। এই পরিবর্তন সৎ, যোগ্য ও মেধাবী নেতৃত্বের পরিবর্তন। এই পরিবর্তনের মাধ্যমে নগরবাসী একজন প্রকৃত খাদেম পাবেন। যার নেতৃত্বে সিলেট হবে বিশ্বমানের নগরী।
জামায়াতের নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের আমীর মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন বলেন- সিলেট হচ্ছে সকল সফল আন্দোলনের সুতিকাগার। এখানে অতীতে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন, শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে নামকরণ বিরোধী আন্দোলন সহ বিভিন্ন আন্দোলনে সিলেটবাসীর রয়েছে গৌরবোজ্জল ভুমিকা। আপনাদের সামনে আরো একটি আন্দোলন এসেছে আর সেটা হচ্ছে ৩০ জুলাইয়ের নির্বাচনে মজলুমের পক্ষে সৎ, যোগ্য ও মেধাবী নেতৃত্ব এডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়েরকে টেবিল ঘড়ি মার্কায় বিজয়ী করার আন্দোলন। সিলেটে তারাই বিজয়ী হওয়ার অধিকার রাখে, যারা পুলিশ-গুলীকে ভয় না করে নিজেদের ভোটকেন্দ্র রক্ষায় জীবন দিতে পারে। ৩০ জুলাই সিলেটবাসী জীবন দিয়ে হলেও নিজেদের অধিকার রক্ষা করবে।
বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারী জেনারেল ড. মোবারক হোসাইন বলেন- বাংলাদেশ তথা দক্ষিণ পুর্ব এশিয়ার সর্ববৃহৎ ছাত্র আন্দোলন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের সাবেক সফল কেন্দ্রীয় সভাপতি, সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্যের রুপকার এডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়েরকে সিলেট সিটিতে মেয়র পদে নির্বাচনের মাধ্যমে নতুন সুর্যোদয় হবে। আর টেবিল ঘড়ির বিজয় নিয়ে কোন ষড়যন্ত্র হলে ছাত্র সমাজকে দাঁত ভাঙ্গা জবাব দেয়ার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।-বিজ্ঞপ্তি