দিয়া-করিমের পরিবারকে ৫ লাখ করে অনুদান নৌমন্ত্রীর

22

সবুজ সিলেট ডেস্ক
রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে বেপরোয়া বাসের চাপায় নিহত শিক্ষার্থী দিয়া খানম মিম ও আবদুল করিম রাজিবের পরিবারকে পাঁচ লাখ করে ১০ লাখ টাকার চেক দিয়েছেন নৌ পরিবহন মন্ত্রী ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকরী সভাপতি শাজাহান খান।

শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর আশকোনায় নিহত আব্দুল করিমের আত্মীয়ের বাসায় গিয়ে তার মাকে নৌপরিবহন মন্ত্রী সান্ত্বনা ও সমবেদনা জানিয়েছেন নৌপরিবহন মন্ত্রী। সরকারি তথ্য বিবরণীতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এসময় মন্ত্রী করিমের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন। তিনি করিমের মা ও ছোট ভাইয়ের হাতে পাঁচ লাখ টাকার চেক তুলে দেন।এসময় মন্ত্রী করিমের ছোট ভাই আল-আমিনের লেখাপড়ার খরচ চালানোর জন্য মাসিক অনুদান দেওয়ারও প্রতিশ্রুতি দেন। মন্ত্রী তার বাবার নামে প্রতিষ্ঠিত আচমত আলী খান ফাউন্ডেশন থেকে প্রতিমাসে এ অনুদান দেবেন।

তথ্য বিবরণীতে আরও বলা হয়, পরে নৌপরিবহন মন্ত্রী মহাখালী বাসস্ট্যান্ড মসজিদে মিম ও রাজিবের জন্য দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে অংশ নিয়ে নিহতদের রুহের মাগেফরাত এবং আহতদের সুস্থতা কামনা করেন।

এছাড়া মন্ত্রী মিমের বাবার কাছে মহাখালীতে পাঁচ লাখ টাকার চেক দেন এবং মিমের ছোট ভাইয়ের লেখাপড়ার জন্য প্রতিমাসে আচমত আলী খান ফাউন্ডেশন থেকে অনুদান দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।

সন্ধ্যায় মন্ত্রী বাসচাপায় আহত হয়ে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি শিক্ষার্থীদের দেখতে যান। তিনি তাদের চিকিৎসার খোঁজ-খবর নেন এবং ছয়জন শিক্ষার্থীকে ৩০ হাজার টাকা করে অনুদান দেন।

গত ২৯ জুলাই রাজধানীতে জাবালে নূর পরিবহনের দুই বাসের পাল্লাপাল্লিতে শহীদ রমিজ উদ্দিন কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত হন। এ ঘটনার পর নিরাপদ সড়কের দাবিতে রাস্তায় নেমে পড়ে সারা দেশের শিক্ষার্থীরা। আর সরকারের পক্ষ থেকে সড়ক পরিবহন আইন দ্রুত পাস করা ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিহতদের পরিবার প্রতি ২০ লাখ টাকা করে অনুদান দিয়েছেন।