গোলাপগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানের মৃত্যু

88

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি
গোলাপগঞ্জ পৌরসভার উপ-নির্বাচন করতে পারলেন না সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান। তিনি ঘোষণা দিয়েছিলেন এবারের উপ-নির্বাচনে গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মেয়র পদে নির্বাচন করবেন তিনি। ঘাতক ড্রাম ট্রাক কেড়ে নিল প্রাণ। চলে গেলেন না ফেরার দেশে। তার বাড়ি উপজেলার গোলাপগঞ্জ পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের দাড়িপাতন গ্রামে।

গত বুধবার সকালে উপজেলার হেতিমগঞ্জের চৌমুহনীর অদুরে ঘাতক ড্রাম ট্রাক সিলেট ট- ১৩-৩৬১৪ ও অনটেস্ট সিএনজি অটোরিক্সার মুখোমুখী সংঘর্ষে চালকসহ দুই সহোদর নিহত হন এবং গুরুত্বর আহত হন ফজলুর রহমান। তাকে প্রথমে ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পরে বুধবার রাতেই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট শহরে বেসরকারি ইবনে সিনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল অনুমান সাড়ে ৪ ঘটিকার দিকে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান (৫৫) মারা যান। তার মৃত্যুর খবর চারদিকে চাউর হলে পৌরসভাসহ নিজ এলাকায় বইছে শোকের মাতাম।

তিনি গোলাপগঞ্জ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন পদে দায়িত্বে ছিলেন। এ ছাড়াও তিনি গোলাপগঞ্জ পৌরসভায় একাধিক বার মেয়র পদে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধিতা করছিলেন। এবারও তিনি গোলাপগঞ্জ পৌরসভায় মেয়র পদে উপ-নির্বাচনের জন্য ঘোষণা করেছেন। তিনি আর উপ-নির্বাচন করতে পারলেন না। মর্মান্তিক সড় দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়ে চলে গেলেন তিনি না ফেরার দেশে।

এদিকে গত বুধবার সকালে উপজেলার ফুলবাড়ী ইউপির সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কের হেতিমগঞ্জ চৌমুহনীর অদুরে মোল্লাগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সম্মুখে ড্রাম ট্রাক ও সিএনজি অটোরিক্সার মুখোমুখী সংঘর্ষে উপজেলার ঘোগারকুল গ্রামের মৃত সিকেন্দর আলীর ছেলে চালক সুরুজ আলী ও সহোদর তরমুজ আলী প্রাণ হারান। নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারাযান সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান। মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের দুইজনসহ তিন ব্যক্তি মারা যাওয়ায় ট্রাক চালক রাজিবের বিরুদ্ধে গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় আলোচিত সড়ক পরিবহন আইনে মামলা নং- ৭ দায়ের করা হয়েছে। ধারা ২৭৯, ৩০৪-খ ও ৩৩৮ক।

বৃহস্পতিবার বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে চালক রাজিবকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। আটক চালকের বাড়ি টাঙ্গাই জেলার নগরপুর থানার কলমাইত গ্রামে। সে সোনার উদ্দিনের ছেলে বলে জানা যায়।