নগরীতে অবৈধ পশুর হাট বসানোর পাঁয়তারা প্রভাবশালীদের

72

স্টাফ রিপোর্টার
দেশের আকাশে জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা গেছে। আগামী ২২ আগস্ট বুধবার পবিত্র ঈদুল আজহা ঈদ উদযাপিত হবে। বায়তুল মোকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের দীনি দাওয়াত ও সংস্কৃতি বিভাগে কর্মকর্তারা চাঁদ দেখার খবর নিশ্চিত করেছেন। কক্সবাজার থেকে চাঁদ দেখার সংবাদ জানিয়েছেন ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক। এবার ঈদে ২১, ২২ ও ২৩ আগস্ট সরকারি ছুটি। গতকাল রোববার বায়তুল মোকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ তথ্য জানানো হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি ও ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান। সভায় ধর্মমন্ত্রী জানান, সব জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়, বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়, আবহাওয়া অধিদপ্তর, মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র, দূর অনুধাবন কেন্দ্র থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী রোববার বাংলাদেশের আকাশে হিজরি ১৪৩৯ সনের জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা গেছে। আজ সোমবার থেকে জিলহজ মাস গণনা শুরু হবে। ২২ আগস্ট (১০ জিলকদ) বুধবার দেশে ঈদুল আজহা পালিত হবে। এদিকে সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে ২১ আগস্ট ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে। ঈদুল আজহা মুসলমানদের দ্বিতীয় বড় ধর্মীয় উৎসব। ত্যাগের মহিমায় উদ্ভাসিত এ উৎসবে মুসলমানরা তাদের প্রিয় বস্তু মহান আল্লাহর নামে উৎসর্গ করে তার সন্তুষ্টি অর্জনের চেষ্টা করেন। ঈদুল আজহা অনুষ্ঠিত হওয়ার সময়ই লাখ লাখ মুসলমান সৌদি আরবের পবিত্র ভূমিতে হজ পালন করেন। হাজীরা ঈদের দিন সকালে কোরবানী দেন।

অন্যদিকে কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে সিলেট নগরীর পাড়া-মহল্লায় গত বছরের মতো অবৈধ পশুর হাট বসানোর প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। আর এসব হাট বসানোর নেপথ্যে রয়েছেন স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরসহ ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালী কিছু নেতা। তাদের সঙ্গী থাকেন বিএনপি ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা।

গতকাল রোববার পর্যন্ত নগরীর অন্তত ১৫টি স্থানে পশুর হাট বসানোর প্রস্তুতি শুরু করেছে ক্ষমতাসীনরা। এক্ষেত্রে বাদ পড়ছে না পাড়ার গলি কিংবা খেলার মাঠও।

কোরবানীর দিন ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে বাড়বে এসব হাটের সংখ্যাও। সিলেট নগরীর একমাত্র বৈধ পশুর হাট কাজীরবাজার নিয়ে মামলা চলমান থাকায় সেটি ব্যক্তি মালিকানায় পরিচালিত হয়। গত বছর সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে চারটি স্থানে অস্থায়ী হাটের ইজারার দরপত্র দেয়া হয়েছে। এগুলো হচ্ছে- সোবহানীঘাট, চালিবন্দর, ঝালোপাড়া মসজিদ গলি, কাকলি সিনেমা হলের সামনের মাঠ। কিন্তু এ বছর এখনো কোথাও ইজারা দেয়া হয়নি। তবে এসবের বাইরে নগরীর বিভিন্ন স্থানে অনুমোদন ছাড়াই অন্তত ১৫টি অবৈধ হাট বসায় প্রভাবশালীরা।

এদিকে, অবৈধ হাটের কারণে বৈধ হাটের ইজারাদাররা বরাবরই ক্ষতির সম্মুখীন হয়ে আসছেন। তাদের মতে, প্রতিবার অবৈধ হাটের লোকেরা পেশীশক্তির বলে বৈধ হাটে আসা পশুর ট্রাক আটকে নিজেদের হাটে নিয়ে যান, এতে করে তাদের ক্ষতির সম্মুখিন হতে হয়। এ বছরও এর ব্যতিক্রম হবে না বলে মনে করছেন তারা।

সূত্রমতে জানা যায়, অবৈধ পশুর হাটের পক্ষের লোকেরা মোটরসাইকেল নিয়ে সিলেটের প্রবেশদ্বারের বিভিন্ন সড়কে অবস্থান নিয়ে ওই সড়ক দিয়ে আসা পশুবাহী ট্রাক অস্ত্রের মুখে ভয়ভীতি দেখিয়ে নিজেদের হাটে নিয়ে যান। ফলে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা বেপারী যেমন তাদের চাহিদা মোতাবেক পশু হাটে যেতে পারেন না তেমন ক্ষতিগ্রস্তও হন তারা। অনেক সময় একাধিক হাটের লোকদের মধ্যে ট্রাক ছিনিয়ে নেয়া নিয়ে হাতাহাতি থেকে সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটে।