যৌন হয়রানির প্রতিবাদে জকিগঞ্জে সড়ক অবরোধ, মামলা

36

জকিগঞ্জ প্রতিনিধি
জকিগঞ্জে জোবেদ আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে বখাটে কর্তৃক উতক্তের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে তার সহপাঠিরা। মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত জকিগঞ্জ- কালীগঞ্জ প্রায় তিনঘন্টা অবরোধ করে রাখে তারা। এসময় শিক্ষার্থীরা রাস্তায় টায়ার পুড়িয়ে বখাটে আকছারের গ্রেফতার দাবি করে বিক্ষোভ করতে থাকে। পরে পুলিশ ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের আশ্বাসে তারা অবরোধ তুলে নেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বিদ্যালয় থেকে সহপাঠীদের সাথে বাড়ি ফেরার পথে সোমবার ওই ছাত্রীকে উত্যক্ত করে বাবুর বাজার এলাকার সিমেরবন্দ গ্রামের ময়নুল ইসলামের ছেলে আকছার আহমদ। ওইদিন বিকেলে বিষয়টি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে লিখিতভাবে জানায় ছাত্রীর পরিবার।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, ওই বখাটে নির্যাতিত ছাত্রীর টেনে হেছড়ে শরীরের জামা ছিড়ে ফেলে এবং জড়িয়ে ধরে মোবাইল ফোনে সেলফি উঠায়। এসময় তার সাথে থাকা সহপাঠীদেরকেও হুমকি দেয়। তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে বখাটে আকছার পালিয়ে যায়।

পরে স্থানীয় ইউপি সদস্য আজির উদ্দিন লোকন বিষয়টির সমাধানের আশ্বাস দেন। ঘটনার পরের দিন তিনি জানান, বখাটের পরিবার ইউপি সদস্যদের ডাকে সাড়া দেয়নি তবে বখাটে আকছারের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করে। মঙ্গলবার বিষয়টি জানাজানি হলে শিক্ষার্থীরা ক্লাস ছেড়ে সকাল সাড়ে এগারটায় রাস্তায় নামে ঘটনার প্রতিবাদে।

এদিকে মঙ্গলবার বিকেলে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য ও শিক্ষকবৃন্দ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিজন কুমার সিংহর সাথে দেখা করে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন।

সন্ধ্যায় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল হালিম বাদী হয়ে ওই বখাটেকে আসামী করে জকিগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

জকিগঞ্জ-বিয়ানীবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাক সরকার বলেন, ‘যৌন হয়রানীর ঘটনা আপোষযোগ্য নয়। কালক্ষেপন না করে ঘটনার পর পরই বিষয়টি পুলিশকে জানালে অভিযুক্তকে আটক করা সহজ হতো।’ তিনি বলেন, লিখিত অভিযোগ তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।