ঘাতকদের ফিরিয়ে কলঙ্কমুক্তির প্রত্যয়

11

ছবি : শাহ মো. কয়েছ আহমদ

স্টাফ রিপোর্টার
সিলেটে শোক আর শ্রদ্ধায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের নিহত স্বজনদের স্মরণ করছে সিলেটবাসী। গতকাল বুধবার সকালে সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদমিনারে জড়ো হন বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ। সেখানে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তুবক অর্পণ করেন সকলে। এর আগে সিলেট রেজিস্ট্রারি মাঠ থেকে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা এক শোক র‍্যালি বের করেন। এ র‍্যালি নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদমিনারে এসে আলাদা আলাদাভাবে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করে। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে দুপুরে নগরীর হাফিজ কমপ্লেক্সে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শিরণি বিতরণ, মিলাদ মহফিল ও দুআ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এছাড়া নগরীর এবং নগরীর বাইরে বিভিন্ন ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, উপজেলা ও পৌরসভায় যথাযথ মর্জাদায় স্মরণ করা হয় জাতির পিতাকে।

গতকাল সকালে কবি নজরুল অডিটোরিয়ামে সিলেট জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আলোচনা সভায় বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম নিয়ে আলোচনা করেন বক্তারা। এছাড়াও সিলেট জেলা পুলিশ লাইন মাঠে আয়োজন করা হয় আলোকচিত্র প্রদর্শনীর। শহিদমিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন সিলেট জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ, সিলেট জেলা ও মহানগর যুবলীগ, সিলেট জেলা ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগ, সিলেট মহানগর ছাত্রলীগ, শ্রমিকলীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ শহিদমিনারে স্থাপিত অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন।

এসব অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ‘বাংলাদেশ ও বাঙালির সবচেয়ে হদয়বিদারক ও মর্মস্পর্শী শোকের দিন ১৫ই আগস্ট। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৩৯তম শাহাদাত্বার্ষিকী এই দিন বাঙালি জাতির কান্নার দিন। আমাদের একটিই দাবি জাতির পিতার পলাতক খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিয়ে এই ঘটনার কলঙ্কমুক্তি দিতে হবে।

বক্তারা বলেন, ১৯৭৫ সালের এই দিনের কালরাত্রিতে ঘটেছিল ইতিহাসের সেই কলঙ্কজনক ঘটনা। কিছু উচ্ছৃঙ্খল ও বিপথগামী সৈনিকের হাতে সপরিবারে প্রাণ দিয়েছিলেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। রাষ্ট্রীয়ভাবে যথাযোগ্য মর্যাদায় ও ভাবগম্ভীর পরিবেশে পালিত হচ্ছে জাতির জনকের শাহাদাতবার্ষিকী। বাঙালি জাতি আজ গভীর শোক ও শ্রদ্ধায় স্মরণ করছে তাঁর শ্রেষ্ঠ সন্তানকে । নৃশংস ওই ঘটনায় বাংলার অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে সেদিন আরো যারা প্রাণ হারিয়েছিলেন তারা হলেন: জাতির পিতার সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, পুত্র শেখ কামাল, শেখ জামাল, শেখ রাসেল, পুত্রবধূ সুলতানা কামাল, রোজী জামাল, ভাই শেখ নাসের ও কর্নেল জামিল। খুনিদের বুলেটে সেদিন আরো প্রাণ হারান বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে মুক্তিযোদ্ধা শেখ ফজলুল হক মনি, তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আরজু মনি, ভগ্নিপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত, শহীদ সেরনিয়াবাত, শিশু বাবু, আরিফ রিন্টু খানসহ অনেকে। প্রতিবছর ১৫ আগস্ট আসে বাঙালির হদয়ে শোক আর কষ্টের দীর্ঘশ্বাস হয়ে। আর আগস্ট মাস বাংলাদেশের মানুষের কাছে শোকের মাসে পরিণত হয়েছে এই দিনটির জন্যই।

বক্তারা বলেন, ধানমন্ডির ঐতিহাসিক ৩২ নম্বর বাসভবনে সপরিবারে বঙ্গবন্ধু নিহত হলেও সেদিন আল্লাহ’র অসীম কৃপায় দেশে না থাকায় প্রাণে বেঁচে যান বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা এবং কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানা। সে সময় স্বামী ড. ওয়াজেদ মিয়ার সঙ্গে জার্মানিতে সন্তানসহ অবস্থান করছিলেন শেখ হাসিনা। শেখ রেহানাও ছিলেন বড় বোনের সথে।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের সে রাতে কি ঘটেছিল তা স্মৃতিতে আনলে আঁতকে উঠতে হয়। কাপুরুষোচিত আক্রমণ চালিয়ে পৈশাচিক পন্থায় ঘাতক দল রাতের অন্ধকারে হামলা চালায় স্বাধীনতার স্থপতির বাসভবনে। প্রথম তলার সিঁড়ির মাঝখানে নিথর পড়ে ছিলেন ঘাতকের বুলেটে ঝাঁঝরা হওয়া চেক লুঙ্গি ও সাদা পাঞ্জাবি পরিহিত স্বাধীনতার মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। অভ্যর্থনা কক্ষে শেখ কামাল, মূল বেডরুমের সামনে বেগম মুজিব, বেডরুমে সুলতানা কামাল, শেখ জামাল, রোজী জামাল, নিচতলার সিঁড়ি সংলগ্ন বাথরুমে শেখ নাসের এবং মূল বেডরুমে দুই ভাবীর ঠিক মাঝখানে বুলেটে ক্ষত-বিক্ষত রক্তাক্ত অবস্থায় পড়েছিল ছোট্ট শিশু শেখ রাসেলের লাশ।

সিলেট জেলা পরিষদ : স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সিলেট জেলা পরিষদ এর উদ্যোগে গতকাল বুধবার দুপুরে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

সিলেট জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা দেবজিৎ সিংহ এর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. লুৎফুর রহমান এডভোকেট। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ছিলেন এদেশের মাটি ও মানুষের পরম বন্ধু। আজীবন মানুষের কল্যাণে কাজ করে গেছেন। জনগণকে নিয়ে ছিল তার সমগ্র স্বপ্ন ও সাধনা। স্বাধীনতার পর দেশবিরোধী চক্র তাঁর স্বপ্ন বাস্তবায়নের আগেই চিরতরে নিঃশেষ করে দেয়। কিন্তু তাঁর সুযোগ্য কন্যা, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। ফলে বিশে^র বুকে বাংলাদেশ আজ একটি রুলমডেল হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। তিনি বঙ্গকন্যার এসব কার্যক্রম বাস্তবায়নে সকলকে এক যোগে কাজ করার আহবান জানান।

সিলেট জেলা পরিষদের সাঁটলিপিকার এ.কে.এম কামারুজ্জামান মাসুম এর পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের সদস্য আমাতুজ জাহুরা রওশন জেবিন রুবা, সুষমা সুলতানা রুহি, মতিউর রহমান, নূরুল ইসলাম, সাইয়্যিদ আহমদ সুহেদ, মোহাম্মদ শাহানুর, মো. লোকন মিয়া, জেলা পরিষদের উপ-সহকারী প্রকৌশলী হাসিব আহমদ, উচ্চমান সহকারী দেলওয়ার হোসেন জোয়ারদার। উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্য মহিলা আওয়ামীলীগের কোষাধ্যক্ষ নাজমা হোসেন প্রমুখ। শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত ও শেষে দোয়া পরিচালনা করেন কালেক্টরেট জামে মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা শাহ আলম।

সিলেট জেলা যুবলীগের : জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সিলেট জেলা যুবলীগের উদ্যোগে শোক র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল ১১ টায় সুরমা টাওয়ারের সামন থেকে আরম্ভ হয়ে শোক র‌্যালীটি নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে রেজেষ্টারী মাঠে জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের র‌্যালীর সাথে যোগ দেয়।

এ সময় উপস্তিত ছিলেন জেলা যুবলীগের সভাপতি শামীম আহমদ, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মহসিন কামরান, সাংগঠনিক সম্পাদক এড. মোহাম্মদ জুয়েল, প্রচার সম্পাদক জাহিদ সারওয়ার সবুজ, অর্থ সম্পাদক আবু তাহের, স্বাস্থ্য ও পরিবেশ সম্পাদক আব্দুল মতিন, সহ জণশক্তি সম্পাদক শাইস্তা তালুকদার, লাভলু বড়ুয়া, সদস্য মাসুক মিয়া আশিক, জেলা যুবলীগ নেতা গোলাম মৌলা চৌধুরী, রেজাউল ইসলাম রেজা, শাহিন আহমদ, সাজলু লস্কর, এম, এ কাইয়ুম, জহিরুল ইসলাম জুয়েল, শেখ আবুল হাসনাত বুলবুল, জাহেদ কবির চৌধুরী, রেদওয়ান আহমদ বাপ্পী, শামীম খান, রাসেল আহমদ, সায়েম শাহ, আরশ আলী সুহেল, আনসার আলী, রাজু আহমদ, তাহমিদ আহমেদ নাদেল, ফরহাদ চৌধুরী, রাশেদ ইকবাল চৌধুরী, জাহেদ হোসেন তালুকদার, সাইফুর রহমান, শাহ তুষার, তানজির আলী, মাহমুদুল হাসান সোহান, মুক্তার আলী, তুহিন, কাওসার, তাহমিদ রিফাত প্রমুখ।

জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পনের মাধ্যমে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেছেন সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতাকর্মীরা। বঙ্গবন্ধুর ৪৩তম শাহাদাৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসে গতকাল বুধবার বেলা এগারোটার দিকে এই শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়।

সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি আফসার আজিজ, সাধারন সম্পাদক জালাল উদ্দিন আহমদ কয়েছ, সহ সভাপতি- পিযুষ কান্তি দে, জলিল আহমদ লিটন, জাহসিন আহমদ রিজু, আজির উদ্দিন, সুফিয়ান এ পান্না, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া মাসুক, সাংগঠনিক সম্পাদক রওনক আহমদ, মকবুল হোসেন জাবেদ, দপ্তর সম্পাদক পিংকু ধর, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক ইফতেখার হোসেন মনি, মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক তারেকুল ইসলাম মারুফ, সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল গফফার রাজু, আইন বিষয়ক সম্পাদক বিকাশ রঞ্জন অধিকারী, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক নাজমুল ইসলাম, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সাহাদত হোসেন সাহেদ, সহ স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক হেলাল আহমদ, সহ জনশক্তি ও কর্মসংস্থান বিষয়ক সম্পাদক আকবর হোসেন লাভলু, সহ কৃষি বিষয়ক সম্পাদক সাজ্জাদুর হক সাজ্জাদ, সহ সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক সাইফ উদ্দিন আহমদ সাবের, সহ শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক অলিউর রহমান অলি, সহ তথ্য ও প্রযুক্তি যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক বিভাংশু গুণ বিভু, কার্যকরী সদস্য- মুজিবুর রহমান মুজিব, উসমান খান শাহীন, মো. রেহান উদ্দিন, আশরাফুল হাসান কামরান, মোস্তফা উল্লাহ, মাহমুদুর রহমান সুজন, তাজুল ইসলাম লস্কর জুনেদ, এস. জামান জুনেদ, আব্দুল মুহিত স্বপন।

মহানগর যুবলীগ : ১৫ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সিলেট মহানগর যুবলীগের উদ্যোগে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করা হয়।

শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পনকালে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক আলম খান মুক্তি, যুগ্ম আহ্বায়ক মুশফিক জায়গীরদার, যুগ্ম আহ্বায়ক সেলিম আহমদ সেলিম।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সুবেদুর রহমান মুন্না, রাহেল আহমদ চৌধুরী, জাকিরুল আলম জাকির, আনিসুর রহমান তিতাস, শ্যামল সিংহ, ইমামুর রহমান লিটন, লাহিন আহমদ, আব্দুর রব সায়েম, মুরাদ আহমদ মুরন, মিনহাজ চৌধুরী লিটন, সাইদুর রহমান, উবায়েদ বিন বাসিত সুমন, আমিনুল ইসলাম সোহেল, মুহিবুর রহমান মুন্না, হোসাইন আহমদ, আব্দুল হাফিজ নুর আলী, সেবুল আহমদ সাগর, জাহির চৌধুরী, ইসলাম উদ্দিন, ওমর ফারুক, সাকারিয়া হোসেন সাকির, ইমদাদ হোসেন ইমু, তারেক আহমদ চৌধুরী, আব্দুর রহমান সুমেল, হাসনাত চৌধুরী শিপলু, ইয়াসিন আহমদ, মাসুদ আহমদ, ইসলাহ উদ্দিন বাবলু, তুহিন আহমদ, বিজয় চন্দ্র, এডভোকেট আবুল কাশেম, এডভোকেট আকবর, রুপম আহমদ, আব্দুল আহাদ, আবির হাসান রানা, জুয়েল আহমদ, জামাল আহমদ, রেজাউল করিম হাসান, আব্দুল কাদির ইমন, আব্দুল ওয়াদুদ সোহাগ, জাকির হোসেন, আব্বাস আহমদ, সেলিম আহমদ, সাপলু আহমদ, সোহেল আহমদ, আব্দুস সালাম সাহেদ, আলমগীর হোসেন, রিপন কোরেশী, তাহমিদ আহমদ, লন্টু ঘোষ রাজু, নাজমুল ইসলাম চৌধুরী, নাইম ইকবাল চৌধুরী, অমিত জিৎ, জুনায়েদ আল হাবিব। পরে জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের শোক র‌্যালী অংশ গ্রহণ করেন মহানগর যুবলীগ নেতৃবৃন্দ।

মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ : জাতীয় শোক দিবস ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩ তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে গতকাল বুধবার দুপুরে সিলেট মহানগর ও জেলা আওয়ামীলীগের শোক র‌্যালীতে অংশগ্রহণ করেন সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতৃবৃন্দ। র‌্যালী শেষে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পনের মাধ্যমে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন নেতৃবৃন্দ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি কাউন্সিলর আফতাব হোসেন খান, সাধারণ সম্পাদক দেবাংশু দাস মিঠু, সহ সভাপতি বদরুল ইসলাম বদরু, এম এ সামাদ, জাহাঙ্গীর আলম, রাহুল চৌধুরী, এম এ রশীদ, ডা. রকিবুল হাসান জুয়েল, ফারুক আহমদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বদরুল হোসেন খান কামরান, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল হাই আল হাদী, গোলাম হাসান চৌধুরী সাজন, ওয়ালি উল্ল্যা বদরুল, দপ্তর সম্পাদক এম কামরুল আই রাসেল, প্রচার সম্পাদক রাজেশ দাস রাজু, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক শাহনুর আলম, প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক আতিকুল আম্বিয়া আতিক, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক রয়েদুর রহমান মনি, জনশক্তি ও কর্মসংস্থান বিষয়ক সম্পাদক জিয়াব আহমদ তফাদার, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক পারভেজ আহমদ, নাট্য বিষয়ক সম্পাদক রুহিন আহমদ, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান মঞ্জু, ত্রাণ ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক সম্পাদক আরজু বাঙালী, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক ফয়সল আহমদ ফাহাদ, তথ্য ও প্রযুক্তি যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক সুব্রত সামন্ত সরকার, সহ স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক রুবেল আহমদ, সহ যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক কবির আলম, সহ নাট্য বিষয়ক সম্পাদক ফাহাদ আহমদ রুমেল, সহ মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক শমমের আলী শম্বু, সহ সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক হেলাল খান, সহ ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ঝুটন পাল, সদস্য সাইফুল আলম সিদ্দিকী, সোহেল আহমদ, শাহরিয়ার হোসেন, আবুল কালাম, আব্দুল মনাফ, মিসবাহ মির্জা, বাবুল আহমদ পাঙ্গাস, সায়মন আহমদ, সাহেদ আহমদ, রাসেল আহমদ প্রমুখ।

মহানগর ছাত্রলীগ : জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের উদ্যোগে বুধবার সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের রক্তদান কর্মসূচী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল বাছিত রুম্মানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলীম তুষারের পরিচালনায়, প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, যুগ্ম সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন, মহানগর যুবলীগের আহবায়ক আলম খান মুক্তি, যুগ্ম আহবায়ক সেলিম আহমদ সেলিমসহ মহানগর ছাত্রলী ও ওয়ার্ড ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন ।

ইব্রাহিম স্মৃতি সংসদ : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩ তম মৃত্যুবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে সিলেট ইব্রাহিম স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে গতকাল বুধবার নগরীর ধোপাদিঘীরপাড়স্থ হাফিজ কমপ্লেক্র মিলাদ ও দোয়া মাহফিল এবং আলোচনা সভায় অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় সদস্য ও সিলেট মহানগরের সভাপতি সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, ইতিহাসের মহানায়ক যে মহামানবের সৃষ্টি না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন হতো না। সে মহান নেতাকে ও তার পরিবারকে ১৫ আগস্ট ১৯৭৫ কাকডাকা ভোরে একদল বিপথগামী সেনা কর্মকর্তা বুলেটের আঘাতে হত্যা করে। বঙ্গবন্ধু ক্ষুধামুক্ত দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা দেখতে চেয়েছিলেন কিন্তুক তা স্বপ্নপূরণ হলো না। বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে। উন্নয়নকে বাধা গ্রস্থ করতে সেই পেতাততারা আবারও বিভিন্ন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে তাদের এই ষড়যন্ত্র প্রতিহত করতে বাংলার মানুষ জেগে উঠেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসিকতায় এ দেশের শক্ররা আজ নিরব হয়ে ঘাপটি মেরেআছে। যতই ঘাপটি মেরে থাকোনা কেন অব্যাহত ভাবে বন্ধবন্ধু খুনিদের বিচার এই বাংলার মাঠিতেই করা হচ্ছে। আর যে সমস্ত খুনিরা বিদেশে পালিয়ে আছে তাদেরকে অচিরেই দেশে এনে ফাসি কার্য্যকর করা হবে। দোয়া মাহফিলে মোনাজাত করেন কালেক্টরেট জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা মো. শাহ আলম। এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, এড. শাহ ফরিদ আহমদ, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালিক, ফয়জুর আলোয়ার আলাউর, বিজিৎ চৌধুরী, এড. নাছির উদ্দিন খান, অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক, সায়ফুল আলম রুহেল, তপন মিত্র, করিউদ্দিন আহমদ, মোস্তাক আহমদ পলাশ, আরমান আহমদ শিপলু, এড. মাহফুজুর রহমান, আবু জাহেদ, ময়নুল ইসলাম, আবুল কালাম ফনিক, অতুল দে, লন্ডন মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি সুহেল আহমদ সাহেলসহ জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সিলেট সরকারী মহিলা কলেজ : সিলেট সরকারী মহিলা কলেজ ১৫ই আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুরে কলেজের অডিটোরিয়ামে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, সিলেট সরকারী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. হায়াতুল ইসলাম আকঞ্জি। বক্তব্যে তিনি বলেছেন, বঙ্গন্ধুর আদর্শ মনে প্রাণে লালন করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর উদারতা অনুস্বরণ করে মানবিক মূল্যবোধ হৃদয়ের মাঝে জাগ্রত করে দেশকে এগিয়ে নেয়া সম্ভব। স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন বঙ্গবন্ধুকে আমি কাছে থেকে দেখেছি একজন উদার মনের মানুষ ছিলেন। যার ত্যাগের বিনিময়ে আমরা পেয়েছি একটি স্বাধীন দেশ।

অর্থনীতি বিভাগের প্রভাষক সফিকুল ইসলাম এর পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন, উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ফাহিমা জিন্নুরায়েন, সহযোগী অধ্যাপক মো.মছব্বির চৌধুরী, সহযোগী অধ্যাপক জামালুর রহমান, সহযোগী অধ্যাপক মো.বশির আহমদ, সহযোগী অধ্যাপক বিমান বিহারী রায়, সহযোগী অধ্যাপক আব্দুল করিম খান ও ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ঝুমুর সুত্রধর, জামিলা আক্তার, তানজিম আক্তার প্রমুখ।

শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন সোনিয়া বিনতে খয়ের ও গীতা পাঠ করেন মৌমিতা চক্রবর্তী এবং জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রচনা প্রতিযোগিতা, কবিতা আবৃত্তি, হামদ ও নাত প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহনকারী ছাত্রীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

জয়বাংলা শিল্পী ঐক্য পরিষদ : হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩ তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন জয়বাংলা শিল্পী ঐক্য পরিষদ সিলেটের নেতৃবৃন্দ। এসময় নেতৃবৃন্দ- জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রানিত ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রাখতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান।

পুষ্পস্তবক অর্পনকালে সংগঠনের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দের সাথে উপস্থিত ছিলেন, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সাবেক মহিলা সংসদ সদস্য সৈয়দা জেবুন্নেছা হক হক এমপি।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, শিল্পী ঐক্য পরিষদ সিলেটের সভাপতি মো. আজিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক প্রাণতোষ দাস পান্না, সাংগঠনিক সম্পাদক তপন কুমার বৈষ্ণব, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হুমায়ুন রশিদ শাহিন, অর্থ সম্পাদক সবুজ কুমার বিশ্বাস, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা মৌসুমী দত্ত, সমবায় সম্পাদক তন্ময় আদিত্য, সাংস্কৃতিক সম্পাদক তাজ উদ্দিন, সদস্য ধীরেন্দ্র বিশ্বাস, দেবল দাস, শিথিল বিশ্বাস, হিমু বিশ্বাস, মাহমুদুর রহমান, জুনু মিয়া, আখতার হোসেন, হৃদয় পাল সঞ্জু, অমল দাস, পৃতুল প্রসূন দাস, লিমা আক্তার, চুমকি দাস, রহিমা বেগম ও রাজকুমার দাস রাজু।

জালালাবাদ রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে : ১৫ই আগস্ট জালালাবাদ রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অত্যন্ত ভাব-গাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে জাতির জনক, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়েছে। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে জালালাবাদ রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃক আয়োজিত বিভিন্ন অনুষ্ঠান সমূহের মধ্যে ছিল জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা, কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাজ ধারণ এবং স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচী পালন।

দিনের শুরুতে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয় এবং কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। অতঃপর সকাল ১০টায় সন্ধানী, জালালাবাদ রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ ইউনিট কর্তৃক কলেজের লেকচার গ্যালারীর সম্মুখে আয়োজিত স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচী উদ্বোধন করেন জালালাবাদ রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. আবেদ হোসেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন কলেজের উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক এ.কে.এম. দাউদ, হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক মো. তারেক আজাদ, ডার্মাটোলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক শামীমা আখতার, হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. আরমান আহমেদ শিপলু সহ সর্বস্তরের শিক্ষক, চিকিৎসক, ছাত্র-ছাত্রী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ। উল্লেখ্য যে, রক্তদান কর্মসূচীর মাধ্যমে বিভিন্ন গ্রুপের রক্ত প্রায় ৫০ ব্যাগ সংগ্রহ করা হয় এবং বিনামূল্যে প্রায় ২০০ জন মানুষের রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করা হয়।

এছাড়াও সন্ধানী, জালালাবাদ রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ ইউনিটের উপদেষ্টা ডা. আরিফুর রহমান, ডা. রাহাত ও সন্ধানীর কার্যকরী সদস্য রূপন, রাজীব, সাব্বির, মুহিব, এমিম, তন্নী, প্রান্ত, আদিল ও অন্যান্য সাধারণ সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও চালিবন্দরের বিশিখা কিন্ডারগার্ডেন স্কুলে সন্ধানী, জালালাবাদ রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ ইউনিটের সহযোগীতায় স্বেচ্ছায় রক্তদান ও ব্লাড গ্রুপ নির্ণয় প্রোগ্রাম দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্ট কালরাতে শাহাদাৎ বরণকৃত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত ও দেশরতœ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ উত্তরোত্তর সমৃদ্ধির জন্য দোয়া করা হয়।

অটিস্টিক ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুল : অটিস্টিক ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুলে জাতির জনক বন্ধবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৩ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন অটিস্টিক ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের নিয়ে জাতীয় শোক দিবসে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মো. হারুন-অর-রশীদ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট, সুনামগঞ্জ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও অফিসার্স ক্লাব, সুনামগঞ্জ এর সদস্য সচিব প্রদীপ সিংহ। স্কুল ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য সুবিমল চক্রবর্তী চন্দন, মো. আল-আমীন। দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব হাফেজ মাওলানা মো. নুর হুসাইন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অত্র স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. মিজানুল হক সরকার এবং সঞ্চালনা করেন অত্র স্কুলের সহকারী শিক্ষক সাফাত উল হক চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে অত্র স্কুলের সকল শিক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দকে জাতির জনক বন্ধবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর আত্মজীবনী নিয়ে আলোচনা সহ বার্ষিক মিলাদ মাহফিলে কেরাত ও হামদ-নাথ প্রতিযোগীতায় শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদ্বয় স্কুলের সার্বিক তথ্যাদির খোঁজ খবর নেন এবং স্কুলকে এগিয়ে নেয়ার জন্য সকল শিক্ষকবৃন্দকে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা মূলক পরামর্শ প্রদান করেন।

নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি : জাতীয় শোক দিবস ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এ আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. তোফায়েল আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান এডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরী। অতিথিবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইউনিভার্সিটি ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য অধ্যাপক মো. হেনা সিদ্দিকী, পাবলিক হেলথ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ডা. রঞ্জিত কুমার দে ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মো. শাহজাদা আল সাদিক। ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শামিম আল আজিজ লেলিনের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন সহকারী অধ্যাপক নুসরাত রিকজা, আল মেহদী সাদাত চৌধুরী, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক শামস্্ এলাহী রাসেল, প্রক্টর ও সহকারী অধ্যাপক রথীন্দ্র চন্দ্র গোপ, সহযোগী অধ্যাপক মো. তানভীর আহমদ চৌধুরী ও আবুল হাসানাথ ইবনে আবেদীন প্রমূখ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে এডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরী- বঙ্গবন্ধুর ত্যাগ, আদর্শ ও দেশ প্রেম ধারণ করে বাঙালী জাতি সমৃদ্ধ দেশ গঠনে এগিয়ে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন এবং ১৫ই আগস্টের সেই মর্মান্তিক ঘটনায় নিহত বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সকলের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।

সভাপতি ড. তোফায়েল আহমদ বলেন বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ ও বাঙালী জাতির স্থপতি হিসেবে চিরকালই অধিষ্ঠিত থাকবেন । অনুষ্ঠানে শোকদিবস উপলক্ষে কবিতা পাঠ করেন ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ফাতেমা রশিদ ছাবা।

আলোচনা শেষে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয় । দোয়া পরিচালনা করেন শেখঘাটস্থ শেখ ছানা উল্লা জামে মসজিদের ইমাম হাফেজ মাওলানা শেখ মো. নাজিম উদ্দিন। দোয়া মাহফিলের পর উপস্থিত সবাইকে আপ্যায়ীত করা হয়।

সাধারণ বীমা কর্পোরেশন : স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে গতকাল বুধবার সাধারণ বীমা কর্পোরেশন সিলেট জোনাল অফিসের উদ্যোগে সকাল ১১টায় এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সাধারণ বীমা কর্পোরেশন সিলেট জোনাল অফিসের ইনচার্জ মো. মহিবুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও রিপা ফেরদৌসীর পরিচালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন উপ-ব্যবস্থাপক শান্তনু কুমার দে, সহকারী ব্যবস্থাপক রণিত দেবনাথ, পুলক দত্ত, বিশ্বজিৎ রায়, ফয়েজ আহমদ, লিটন ধর প্রমুখ।

সভায় বক্তারা ১৫ আগস্টকে শুধু মুখে নয়, অন্তরেও ধারণ করা এবং তার আদর্শ বাস্তবায়নে যে যার অবস্থান থেকে নিরলসভাবে কাজ করে যাওয়ার প্রতি গুরুত্বারোপ করেন।

সিকৃবিতে রক্তদান কর্মসূচি : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি পালিত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মোড়ে লায়ন্স ক্লাব অব সিলেট ও বাঁধন সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শাখার যৌথ উদ্যোগে এবং মুজিব জাহান রেড ক্রিসেন্ট রক্ত কেন্দ্রের সহযোগিতায় এ কর্মসূচি সম্পন্ন হয়।

প্রধান অতিথি হিসেবে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. মো. মতিয়ার রহমান হাওলাদার। উদ্বোধনকালে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ একই নাম। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম না হলে বাংলাদেশের জন্ম হতো না। বঙ্গবন্ধু হচ্ছেন হাজার বছরের সর্বশ্রেষ্ট বাঙালি। তিনি আমৃত্যু দেশ ও মানুষের কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন। তাঁর চিন্তা-চেতনা জুড়ে ছিল বাংলাদেশ ও বাঙালির উন্নয়ন।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সিকৃবির রেজিস্ট্রার বদরুল ইসলাম শোয়েব, লায়ন্স ক্লাব অব সিলেট প্রেসিডেন্ট লায়ন ডা. খন্দকার মাজহারুল আনোয়ার শাহজাহান, সিকৃবি শিক্ষক সমিতির সেক্রেটারি প্রফেসর ড. শহীদুল ইসলাম, সিকৃবির অফিসার্স সমিতির সভাপতি কৃষিবিদ সাজিদুল ইসলাম, সিকৃবির জনসংযোগ ও প্রকাশনা পরিচালক কৃষিবিদ আনিসুর রহমান, অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার ফাতেহা শিরিন, সিকৃবির উপ পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. আব্দুল আউয়াল, উপ-পরিচালক কৃষিবিদ দেবাশীষ সাহা, উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মেহেদী হাসান, লায়ন্স শিশু হাসপাতালের সেক্রেটারি লায়ন ইমরান আহমেদ, লায়ন্স ক্লাব অব সিলেট সেক্রেটারি মো. লায়ন মুহিতুর রহমান, ট্রেজারার লায়ন হুমায়ুন কবির, বাঁধন সিকৃবি শাখার প্রেসিডেন্ট তৌহিদুর রহমান, সেক্রেটারি খাদিমুল ইসলাম, সিকৃবির প্রকৌশলী মো. আলা উদ্দিন, সিকৃবির শিক্ষার্থী শিমুল রায়, আলমগীর হোসেন, রাজু আহমদ, নিলয় রায়, বশির আহমদ, সোহেল মিয়া, শাকিল আহমদ প্রমুখ।

১০নং ওয়ার্ড শ্রমিকলীগ : ১৫ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে জাতীয় শ্রমিকলীগ সিলেট উদ্যোগে ১৪ আগস্ট গত মঙ্গলবার রাতে নগরীর ১০নং ওয়ার্ডের কানিশাইল এলাকায় মঈন উদ্দিন এস্টেট এর মধ্যে এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

১০নং ওয়ার্ড শ্রমিকলীগের গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রিন্টু তালুকদারের পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জাতীয় শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি ও সিলেট জেলা সভাপতি প্রকৌশলী এজাজুল হক এজাজ।

আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ১০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তারেক উদ্দিন তাজ। বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন ১০নং ওয়ার্ড শ্রমিকলীগের সহ-সভাপতি মাসুদ করিম জুয়েল, জেলা রিক্সা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল জলিল, ১০নং ওয়ার্ড আওয়ামলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান প্রমুখ। শেষে ’৭৫ এর ১৫ আগস্ট নিহতদের রূহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন কানশাইল জামে মসজিদের ইমাম।

ব্রাইটন হাসপাতাল : জাতীয় শোক দিবস ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩ তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে পূর্ব মিরাবাজারস্থ ব্রাইটন হাসপাতালের উদ্যোগে গতকাল বুধবার সকাল ৯টায় ফ্রি চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। ফ্রি চিকিৎসা সেবা অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এ. বি. এম. জিল্লুর রহমান উজ্জ্বল ও ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এস.এম. শওকত আমীন তৌহিদ এবং কর্মশালা পরিদর্শন করেন ২০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ।

এতে উপস্থিত ছিলেন, ব্রাইটন হাসপাতালের চেয়ারম্যান রোটারিয়ান ডা. মো. মিছবাউল ইসলাম, ম্যানিজিং ডিরেক্টর ডা. ইশফাক জামান সজীব, বি.এম.এ. এর সেন্ট্রাল কাউন্সিলর অধ্যাপক জামাল আহমেদ চৌধুরী, সহকারি অধ্যাপক ডা. এম. এ. লতিফ,

পরিচালনা পরিষদের সদস্য সহযোগী অধ্যাপক ডা. গোলাম মওলানা, সহকারি অধ্যাপক ডা. ফাহিম আরা খানম জেসী, সহকারি অধ্যাপক ডা. এহছান আলী দিপু, বিদ্যুৎ কান্তি দাস, মনোজ কুমার, এম. এইচ. পারভেজ বিশ্বাস, ডা. আশরাফুজ্জামান চৌধুরী, মো. তোফায়েল আহমেদ, জাফুল আহমদ চৌধুরী, ডা. ইস্টার হালদার মার্থা, ডা: আনিসুজ্জামান আরা খান, ডা. এমরান হোসেন, ডা. সুজা চন্দ্র পাল, ডা. রূপক কুরী প্রমুখ।

৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ: জাতীয় শোক দিবস ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুব লীগ, ছাত্রলীগ ও আওয়ামীলীগ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে ১৫ আগস্ট বুধবার জালালাবাদ জামে মসজিদে বাদ আসর মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

এতে উপস্থিত ছিলেন, মোতাওয়াল্লী জামাল উদ্দিন সাবু, পূলক কবির চৌধুরী, তোফায়েল আহমদ লিমন, আওয়ামীলীগ নেতা এম এ হান্নান, কয়েছ উদ্দিন আহমদ, সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আফতাব হোসেন খান, সৈয়দ কামাল, রুয়েব আহমদ, শাহ সিদ্দিকী, পারিদ আহমদ পাভেল, সৈয়দ আশরাফ রিফাত, শামীম আহমদ, রুহিন আহমদ, শাহানুর আলম, আব্দুর রউফ, ফয়ছল আহমদ ফাহাদ, মোশারফ হোসেন, শিব্বির আহমদ, শিমুল আহমদ, রুকনুজ্জামান রুকন প্রমুখ। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবাবর্গ, দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করেন জালালাবাদ মসজিদের খতিব মাওলানা আবুল হোসেন।

কামরান আছমা হেলথ কেয়ার : জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে কামরান আছমা হেলথ কেয়ার সেন্টারের উদ্যোগে বুধবার সিলেট নগরীর চালিবন্দর বসন্ত মেমোরিয়েল স্কুল ( বিশিকা) এলাকায় শত শত রোগিদের মধ্যে বিনামূল্যে চক্ষু শিবির স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক এবং কামরান আছমা হেলথ কেয়ার সেন্টার‘র পরিচালক, রাকিব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ- পরিচালক ড. আরমান আহমদ শিপলু, চিকিৎসা সেবায় সহযোগিতার করেন ড. তাজুল ইসলাম আসাদ, ড. কামরুজ্জামান সুয়েব, ড. জাকির হোসেন, ড. আদনান, এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রুহুল মালিক ছোটন, কাজী আব্দুল মুকিত সুমন, ফয়জুন নুর জাকি, আহবাবুল করিম একরাম, সুয়েব আহমদ সানু, আব্দুল মোমিন লাহিন, শাহ আলম বাছিত, ইফতেখার রায়হান চৌধুরী, আরাফাত আহমদ, মুরাদ আহমদ, সালমান আহমদ, জামিল হোসেন, শহিদুল ইসলাম অহি, শেখ রওশন এজদানি, আব্দুল কাইয়ুম, রুবেল হোসেন, শিহাব রাফছান, তোফায়েল আহমদ তুহিন, আব্দুল হাকিম জুয়েল, আব্দুল মোতালেব শিপলু, ইমন হোসেন, আবিদুল হক চৌধুরী, যীশু কৃষ্ণ দেব জনি, পলাশ দাস, লোকমান হোসেন, উজ্জল আহমদ, আব্দুল্লা আল লোকমান, সুমন আহমদ, রনি চক্রবর্তী, রঞ্জন কর, মকবুল হোসেন প্রমুখ।

আব্দুল গফুর স্কুল এন্ড কলেজ : স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে নগরীর আব্দুল গফুর ইসলামী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার প্রতিষ্ঠানের হলরুমে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন স্কুল এন্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. জিয়াউর রহমান।

সহকারি শিক্ষক রুহুল আমীনের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সিনিয়র শিক্ষক আতিকুর রহমান, সহকারি শিক্ষক হেলাল উদ্দিন, আব্দুর রকিব মানিক, আশফাক আহমদ চৌধুরী, প্রভাষক নুরে কামাল ভূইয়া ও মামুন আহমদ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন কিন্ডারগার্টেন শাখার প্রধান শিক্ষক নাজমা আক্তার, প্রভাষক জেবুন্নেছা খাতুন, রুহেনা আক্তার, সহকারি শিক্ষক ছদরুল হাসান, পারভীন বেগম, খলিলুর রহমান, মমতাজ বেগম, কিন্ডারগার্টেন শাখার সহকারি শিক্ষক আশরাফুল হক আনোয়ারী, রোকসান আরা বেগম, লাকি বেগমসহ সকল শিক্ষক শিক্ষিকা। অনুষ্ঠান শেষে হামদ নাত, কবিতা, ছড়া ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় বিজয়ী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরষ্কার হিসেবে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কিত বিভিন্ন ধরণের বই তুলে দেওয়া হয়। এছাড়া সবশেষে দোয়া পরিচালনা করেন কিন্ডারগার্টেন শাখার সহকারি শিক্ষক আশরাফুল হক আনোয়ারি।

উল্লেখ্য, আলোচনা সভা দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও স্কুল এন্ড কলেজ গভার্ণিংবডির সভাপতি এটিএমএ হাসান জেবুল প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা ছিল। জরুরী কাজ থাকায় তিনি উপস্থিত হতে পারেননি।

জালালাবাদ গ্যাস : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে জালালাবাদ গ্যাস টি অ্যান্ড ডি সিন্টেম লিমিটেডের উদ্যোগে মেন্দিবাগস্থ সিলেট প্রধান কার্যালয় গ্যাস ভবনে গতকাল ভোরে জতীয় পতাকা উত্তোলন (অর্ধনমিত) করা হয়। গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় গ্যাস ভবন থেকে শোক র‌্যালি সহকারে কোম্পানীর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

এরপর জালালাবাদ গ্যাসের অডিটোরিয়ামে শোক দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভায় অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন কোম্পানীর ব্যবস্থাপক (অর্থ) মো. ইকরামুল কবীর। আলোচান সভায় বক্তব্য রাখেন, মহাব্যবস্থাপক (বিপণন-উত্তর/প্রশাসন) প্রকৌশলী মো. শাহীনুর ইসলাম, মহাব্যবস্থাপক (কণ্ট্রাকশন) প্রকৌশলী শোয়েব আহমদ মতিন, উপমহাব্যবস্থাপক ও জালালাবাদ গ্যাস অফিসার্স ওয়েলফোয়র অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি কয়েছ আহমদ, ব্যবস্থাপক (বোর্ড) মো. শহিদুল ইসলাম, জালালাবাদ গ্যাস অফিসার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক তৌফিকুল আহসান চৌধুরী, জালালাবাদ গ্যাস কর্মচারীলীগ (সিবিএ) এর সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল মতিন, সহ সাধারণ সম্পাদক মো. ফজলুল বারী।

এদিন গ্যাস ভবনের নামজ ঘরে জোহরের নামাজের পর জাতির পিতা ও ১৫ আগস্টে নিহত তার পরিবারের সকল সদস্যদের আতœার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় ১৫ইং আগস্টে নিহত তার পরিবারের সদস্যসহ সকলের রূহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করা হয়। আলোচসভা, দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে কোম্পানীর সকল মহাব্যবস্থাপকবৃন্দ, উপমহাব্যবস্থাপকবৃন্দ, জালালাবাদ গ্যাস অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের কর্মকর্তাবৃন্দ, জালালাবাদ গ্যাস কর্মচারীলীগ (সিবিএ) এর সকল নেতৃবৃন্দসহ সকল স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মদন মোহন কলেজ ছাত্রলীগ : জাতীয় শোক দিবস ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩ তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে মদন মোহন কলেজ ছাত্রলীগের উদ্যোগে গতকাল বুধবার দুপুর ১২টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পনের মাধ্যমে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়।

মদন মোহন কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি এ. কে. এম. মাহমুদুল হাসান সানি এবং সাধারণ সম্পাদক মো. মিফতাহুল হোসেন লিমনের নেতৃত্বে এসময় ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দক্ষিণ সুরমা কলেজ : জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বুধবার সকাল ১১টায় দক্ষিণ সুরমা কলেজে অনুষ্ঠিত হয় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রচিত ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ পাঠচক্র। স্বজন’র দক্ষিণ সুরমা কলেজ শাখার আয়োজনে আব্দুল জব্বার জলিল অডিটোরিয়ামে এই পাঠচক্র অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতেই ১৫ ই আগস্টের শহীদ স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। ইংরেজি বিষয়ের প্রভাষক ও জেলা স্বজন সমাবেশের সভাপতি সুমন রায়ের সভাপতিত্বে পাঠচক্রের আলোচনায় প্রধান অতিথি ছিলেন কলেজের অধ্যক্ষ মো. শামছুল ইসলাম। এতে বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশের জন্ম হতোনা। সবাইকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সোনার বাংলা গড়ার আহবান জানান বক্তারা।

আলোচনায় অংশ নেন, কলেজের শিক্ষক অধ্যাপক মতিউর রহমান, শাহানা বেগম, রাহেনা হক, সালমা বেগম, রওনক জাহান বেগম, মো আশরাফুল হক, মতিলাল দাশ, মো.মুহিবুর রহমান, পলাশ রঞ্জন দাশ, সুভাষ চন্দ্র সাহা, কাজরী রানী ধর, শ্যামলী চক্রবর্তী, কানিজ ফাতেমা, সুপ্তা চৌধুরী, দীপক চন্দ, পলি সেনাপতি, শুকরিয়া জাহান, নন্দন কর্মকার, মুহিবুর রহমান মিনু, খালেদ আহমদ, স্বজন সমাবেশের কলেজ সভানেত্রী আতিকারা এনি, স্বজন মনিরাজ, হায়দার আলী, ফাহিম আহমদ, বিথী আক্তার, ইশরাত আক্তার, রুসেল আহমেদ, শাওন দাস, সাইফুল ইসলাম, মো. সাদিকুল ইসলাম, মিজানুর রহমান চৌধুরী, তাহমিদ আহমদ, মো. আল আমিন, মো. সাজ্জাদ আলী, জুয়েল আহমদ, মো. ফাহিম খান, মাহের হাবিব, আতিকারা এনি, হায়দার আলী, মো. মনিরাজ, ফাহিমা আক্তার, নুসরাত নিজাম অন্না, ইসরাত আহমেদ, বীনতে নাহার বীথি ও তাসলিমা এনাম তাক্কি। আলোচনা শেষে সঙ্গীত পরিবেশন করেন প্রভাষক দীপক চন্দ ও পলি সেনাপতি। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন ইশরাত আহমেদ।

মহানগর শ্রমিক লীগ : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৩ তম শাহাদত বার্ষিকী জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন সিলেট মহানগর শ্রমিকলীগ।

এসময় সিলেট মহানগর শ্রমিকলীগের সভাপতি এম. শাহরিয়ার কবির সেলিম এবং সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আলম রোমেন এর নেতৃত্বে জাতীয় শ্রমিকলীগ সিলেট মহানগর শাখার উদ্যোগে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বঙ্গবন্ধু’র প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন।

মহানগর যুব মহিলা লীগ : জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সিলেট মহানগর যুব মহিলা লীগের উদ্যোগে গতকাল বুধবার সকালে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করা হয়।

শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন কালে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট মহনগর যুব মহিলা লীগের সভাপতি নাজিরা বেগম শীলা, ১৮ নং ওয়ার্ডের সভাপতি তামান্না জন্নাত শিওলী, ১০ নং ওয়ার্ডের ফারজানা আক্তার তাহেরা, ৮ নং ওয়ার্ডের রিনা বেগম, ২৫ নং ওয়ার্ডের নাজমা বেগম, ২১ নং ওয়ার্ডের রাশিদ আক্তার মনি, ২৭ নং ওয়ার্ডের শারমীন আক্তার। অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জীল বেগম, রাহেলা জেরীন, আসমা আক্তার, মোছা. এনি প্রমুখ।

জেলা শ্রমিক লীগ : সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি স্বাধীন বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদত বার্ষিকী জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জাতীয় শ্রমিকলীগ সিলেট জেলা শাখার উদ্যোগে তালতলাস্থ টিএন্ডটি ফেডারেল ইউনিয়ন কার্যালয়ে গতকাল বুধবার সকাল ১১ ঘটিকার সময় এক শোক র‌্যালী আরম্ভ হয়ে জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের ঐতিহাসিক রেজিস্ট্রি মাঠে শোক র‌্যালীতে যোগদান করে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়।

বাদ’জোহর হজরত শাহজালাল (রহ.) দরগা মাজারে জেলা ও মহানগর আলীমীলীগের মিলাদ মাহফিলে অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানগুলিতে অংশগ্রহণ করেন জেলা শাখার সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি প্রকৌশলী এজাজুল হক, সাধারণ সম্পাদক শামীম রশিদ চৌধুরী, সি. সহ-সভাপতি আব্দুল মতিন ভুঁইয়া, সহ-সভাপতি আব্দুল জলিল, সহ-সভাপতি আব্দুস সাত্তার, সহ-সভাপতি সিরাজুল ইসলাম, সহ-সভাপতি মো. হারুন, সহ-সভাপতি আজিজুর রহমান, জেলার উপদেষ্টা ও জেলা হকার্সলীগের সভাপতি আউয়াল হোসেন, সি. যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর খান, প্রচার সম্পাদক প্রকৌশলী আনোয়ার হোসেন, দপ্তর সম্পাদক দুলন রঞ্জন দেব, ক্রীড়া সম্পাদক শাহ আলম সুরুক, সমাজকল্যাণ সম্পাদক মিজানুর রহমান, সদর উপজেলার সাধারণ সম্পাদক ফয়সল মাহমুদ, বিএডিসি সিবিএ এর সভাপতি দিলিপ কুমার চন্দ্র, ব্যাংক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি মোফাক্কারুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মজিদ, জনতা ব্যাংক সিবিএ এর সাধারণ সম্পাদক মীর ইয়াকুত আলী দুলাল, জেলার সহ-সম্পাদক ও নির্মাণ শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক নূর-এ-আলম, জেলার সহ-সম্পাদক ও স্বর্ণশিল্পী শ্রমিকলীগের সভাপতি রফিক আহমদ, জেলার সহ-সম্পাদক ও স্বর্ণশিল্পী শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক শমরেন্দ্র সিং, টিএন্ডটি সিবিএ এর সভাপতি সুদর্শন ভট্টাচার্যী, সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক, গণপূর্ত সিবিএ সভাপতি হাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক, পানি উন্নয়ন বোর্ড সিবিএ সভাপতি মোহাম্মদ রেহান, সাধারণ সম্পাদক মো. কবির আহমদ, কৃষি ব্যাংক সিবিএ এর সভাপতি আছকির মিয়া, সাধারণ সম্পাদক শাহনূর আলী, রূপালী ব্যাংক সিবিএ এর সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান, সোনালী ব্যাংক সিবিএ এর সাবেক সাধারণ সম্পাদক খালেদ আহমদ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন, সিলেট জেলা রিক্শা শ্রমিকলীগের সভাপতি মুজিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিল, সিলেট গ্যাস ফিল্ড শ্রমিকলীগের যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল খালিক, হোটেল রেস্তোরাঁ শ্রমিকলীগের নেতা নাসির আহমদ, আবুল কাশেম, শ্রমিকলীগ নেতা সালমান আহমদ ও হুমায়ুন কবির প্রমুখ।

সেন্ট্রাল উইমেন্স কলেজ : সিকৃবির ডেপুটি রেজিস্ট্রার ও সেন্ট্রাল উইমেন্স কলেজের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান বলেছেন, বাংলাদেশের জন্মকথায় এবং বাংলার প্রতিটি পরতে বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের নাম জুড়ে থাকবে। পৃথিবীর ইতিহাস যতদিন বাঁচবে বঙ্গবন্ধুও ততদিন বাঁচবেন। তিনি আরও বলেন, মানুষের মুক্তির সংগ্রামে নিজের জীবনকে যিনি উৎসর্গ করে গড়ে তুলতে চেয়েছেন স্বপ্নের সোনার বাংলা। আমরা তাঁর সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠায় সকলে মিলে কাজ করতে হবে।

তিনি গতকাল বুধবার নগরীর সেন্ট্রাল উইমেন্স কলেজ কর্তৃক আয়োজিত শোক দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। রসায়ন বিভাগের প্রভাষক মো. হাবিবুর রহমানের পরিচালনায় আলোচনাসভা ও উপস্থিত বক্তব্য প্রতিযোগিতার সভাপতিত্ব করেন কবি ও কলেজের অধ্যক্ষ কামাল আজাদ। সভাপতির বক্তব্যে তিনি বঙ্গবন্ধুর বর্ণালি জীবনের রূপ তুলে ধরেন। ছাত্র জীবনের বঙ্গবন্ধুর সাথে সাক্ষাতের স্মৃতিচারণ করে বলেন, তিনি হলেন সেই নেতা যিনি আমার পাশের ১০-১২ গ্রামের নাম বলে দিয়ে অবাক করে দিয়েছিলেন। যে নামগুলোর সাথে আমি পরিচিত হলেও বেশিরভাগ গ্রামে আমার যাওয়া সম্ভব হয়নি, কিন্তু বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান যেভাবে বললেন তাতে মনে হল উনার গ্রামের কথাই বলছেন। এরকম নেতা ছিলেন যিনি বাংলার প্রতিটি গ্রাম ও মানুষ সম্পর্কে অভহিত ছিলেন।

বঙ্গবন্ধুর ত্যাগ ও শোক দিবসের প্রেক্ষাপট নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

সকালে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সম্মিলিতভাবে একটি র‌্যালি নিয়ে শিবগঞ্জ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালি শেষে আলোচনাসভায় বক্তব্য রাখেন কলেজের উপাধ্যক্ষ মো. আহমদ জিয়া, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রভাষক সাদিক আহমদ সুহেল, ইসলামের ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক মো. ইয়াকুব আলী।

‘বঙ্গবন্ধু ও ১৫ আগস্টের প্রেক্ষাপট’ বিষয়ে উপস্থিত বক্তব্য প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন একাদশ শ্রেণীর নাজনীন জাহান ইমু, ফৌজিয়া রহিম, জামিলা আক্তার পাপিয়া, বর্ণালি ব্যানার্জি, বর্ষা আক্তার মিম, মুন্নি বেগম, ইসরাত জাহান ইমা, নাজনীন আক্তার, মদিনা আক্তার ইমা, উম্মে তাহমিদা খানম এনি, রীতা বেগম, তাওহিদা আক্তার। অনুষ্ঠান শেষে প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেন শিক্ষকবৃন্দ।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩ তম মৃত্যুবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল করেছে সিলেট সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠন। বুধবার দুপুরে সদর উপজেলার টুকেরবাজার তেমুখি এলাকার একটি কমিউনিটি সেন্টারে এসব কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ও মোগলগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হিরণ মিয়ার পরিচালনায় আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি আওয়ামী লীগ নেতা জেলা বারের এপিপি এডভোকেট নূরে আলম সিরাজী, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আমীর উদ্দিন, প্রচার সম্পাদক মকসুদ আহমদ, অর্থ সম্পাদক মো. সাজ্জাদ মিয়া, প্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতা আখতারুজ্জামান, মম কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আজাদুর রহমান আজাদ, কান্দিগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজাহিদ আলী।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- লন্ডন মহানগর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজুর রহমান বাবলু, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা সাব্বির খান, ফারুক আহমদ, মিজানুর রহমান, আব্দুল মান্নান, নজীব দত্ত, শাহাব উদ্দিন, কুতুব উদ্দিন, কবির উদ্দিন, যুবলীগ নেতা মোয়াজ্জেম হোসেন, আশরাফ সিদ্দিকী, কুতুব উদ্দিন, আনসার উদ্দিন, তাজিব আলী, মুহিবুর রহমান সুমন, সদর উপজেলার যুবলীগ নেতা শাহাব উদ্দিন, সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ আহ্বায়ক শাহজাহান কবির, যুগ্ম আহ্বায়ক ফয়সল আহমদ, সেলিম আহমদ, ময়নুল হাজারী, নুরুল আমীন খুকু, সায়মন আহমদ, সদস্য জামিল আহমদ, মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক উপ-দপ্তর সম্পাদক শহীদ মো. আকিল অপু, সাবেক সদস্য আফসর রহিম, মদন মোহন কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মিফতাহুল ইসলাম লিমন, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা আল-আমীন, সৌরভ দাস, নজরুল ইসলাম, আহমদ জাহান সুহান, রুহুল আমীন শাওন, সালমান আহমদ, রুহেল আহমদ, নিশতি প্রমুখ। আলোচনা সভা শেষে মোনাজাত ও শিরনি বিতরণ করা হয়।

সিলেট চেম্বার : চেম্বার কনফারেন্স হলে দি সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস ২০১৮ উপলক্ষে গতকাল বুধবার জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারবর্গ সহ নিহত সকল শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনায় এক দোয়া মাহ্ফিল অনুষ্ঠিত হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন শেখঘাট কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা শেখ ছাদিকুর রহমান। এসময় উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সদস্য আ. ন. ম. শফিকুল হক, সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিজিত চৌধুরী, সিলেট চেম্বারের সিনিয়র সহ সভাপতি মাসুদ আহমদ চৌধুরী, সহ সভাপতি মো. এমদাদ হোসেন, পরিচালক পিন্টু চক্রবর্তী, নুরুল ইসলাম, আব্দুর রহমান, চন্দন সাহা, ফালাহ্ উদ্দিন আলী আহমদ, মো. আব্দুর রহমান জামিল, মো. আতিক হোসেন, অর্থমন্ত্রণালয়ের গণসংযোগ কর্মকর্তা জাবেদ সিরাজ, সিলেট চেম্বারের সাবেক পরিচালক এম. এ. ওয়াদুদ, সদস্য মো. আরিফ মিয়া, মো. কয়ছর আলী, সমীর লাল দেব, পাবেল আহমদ, আবুল মিয়া, খোরশেদ আলম প্রমুখ।

সোনালী ব্যাংক : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে সোনালী ব্যাংক লিমিটেড প্রিন্সিপাল অফিস সিলেটের উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। কর্মসূচির মধ্যে ছিল সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতি পুষ্পস্তবক অর্পন। জেনারেল ম্যানেজারস অফিস, সিলেট এর জেনারেল ম্যানেজার গোপী নাথ দাসের নেতৃত্বে সোনালী ব্যাংক লিমিটেড, সিলেট অঞ্চলের সকল স্তরের কর্মকর্তা/কর্মচারীর উপস্থিতিতে র‌্যালী সহকারে যথাযোগ্য মর্যাদায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন। অন্যান্য অনুষ্টানাবলির মধ্যে ছিল বঙ্গবন্ধুর জীবন ও আর্দশের উপর আলোচনা অনুষ্টান ও দোয়া মাহফিল।

সোনালী ব্যাংক লিমিটেড, প্রিন্সিপাল অফিস, সিলেটের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মো. আনিসুল হকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেনারেল ম্যানেজারস অফিস, সিলেটের জেনারেল ম্যানেজার গোপীনাথ দাশ। পবিত্র কোরআন তেলোয়াত ও পবিত্রগীতা পাঠের মধ্য দিয়ে অনুষ্টান শুরু হয় ।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সোনালী ব্যাংক এমপ্লয়ীজ ইউনিয়ন বি ২০২, প্রিন্সিপাল কমিটি, সিলেট এর সাধারণ সম্পাদক জয়নুল আবেদীন, সোনালী ব্যাংক বঙ্গবন্ধু পরিষদ, সিলেট এর সাধারণ সম্পাদক সচ্চিদানন্দ চক্রবর্তী, সোনালী ব্যাংক অফিসার্স ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন, সিলেট এর সিনিয়র সহ সভাপতি স্বাগতম দাস, সিলেটের এর এসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার মো. খোন্দকার মাজহারুল কবির, সিলেট এর এসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার অঞ্জনকুমার দে, সিলেট কর্পোরেট শাখার এসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার দুলন কান্তি চক্রবর্তী প্রমূখ।

আলোচনা সভা শেষে ১৯৭৫এর ১৫ই আগস্টে শাহাদাৎ বরণকারী বঙ্গবন্ধু ও তাঁরপরিবার পরিজনের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত ও দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে অনুষ্টানের সমাপ্তি ঘটে।

শাহজালাল জামেয়া ইসলামিয়া স্কুল এন্ড কলেজ : শাহজালাল জামেয়া ইসলামিয়া স্কুল এন্ড কলেজে নানা কর্মসুচির মাধ্যমে জাতিয় শোক দিবস পালন করা হয়েছে । কর্মসুচির মধ্যে ছিল শিক্ষার্থীদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, কবিতা আবৃত্তি, হাম নাত ও রচনা প্রতিযোগিতা। দোয়া ও আলোচনা সভার মাধ্যমে কর্মসুচির সমাপ্ত হয় । ঐ দিন দুপুরে আলোচনা সভায় জামেয়ার কালচারাল কমিটির আহবায়ক আব্দুল্লাহ আল মামুনের সভাপতিত্বে সহকারি শিক্ষক আব্দুর রশিদ ও প্রভাষক মহিবুর রহমান শামিমের পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন জামেয়ার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোহাম্মদ গোলাম রব্বানী। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন সহকারি প্রধান শিক্ষক মোস্তফা কামাল, কলেজ ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম মজুমদার, বালিকা শাখার ইনচার্জ জাকিয়া নুরী চৌধুরী, ইংলিশ সেকশনের ইনচার্জ সেলিনা আক্তার ক্রোড়ী, নার্সারী বাংলা সেকশনের ইনচার্জ জাহানারা বেগম। আরো বক্তব্য রাখেন সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা আব্দুল জলিল, আব্দুর রব, প্রভাষক নুরুল আমীন, প্রভাষক এইচ এম ফারুক, জাকিয়া ফেরদৌস, হাবিবা বেগম প্রমুখ । পরে প্রধান অতিথি বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাজে পুরস্কার তুলেদেন ।

দক্ষিণ সুরমা উপজেলা যুবলীগ : স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দক্ষিণ সুরমা উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে ১৫ আগস্ট বুধবার দুপুরে সিলেট রেলস্টেশন প্রাঙ্গণে এক আলোচনা সভা, দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

দক্ষিণ সুরমা উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক মো. নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহবায়ক আশিক আলীর পরিচালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট-৩ আসনের এমটি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী।

আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা সাইফুল আলম, যুগ্ম সম্পাদক রাজ্জাক হোসেন, দক্ষিণ সুরমা থানার ওসি খায়রুল ফজল, সিলেট রেলস্টেশনের ম্যানেজার কাজী শহিদুর, জিআরপি ওসি জাহাঙ্গীর হোসেন, বাংলাদেশ রেলওয়ে শ্রমিকলীগের সভাপতি আব্দুল মতিন ভুইয়া, আওয়ামীলীগ নেতা সেলিম আহমদ মেম্বার, আকবর আলী মেম্বার, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ছদরুল ইসলাম, ব্যাংকার কয়েছ আহমদ সেলিম। উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুবলীগের সদস্য লাহিনুর রহমান লাহিন, সোহেল আহমদ কর্নেল, নিজাম আহমদ, হোসেন মিনহাজ, বেলায়েত হোসেন, নন্দন পাল, মনসুর আহমদ চৌধুরী, হেলাল আহমদ, নুরুল ইসলাম দারা, সালাম আহমদ, লিটন আহমদ, যুবলীগ নেতা সিরাজ আহমদ, জাকের খান, শামীম আহমদ, ছাত্রলীগ নেতা সুয়েব আহমদ, মুস্তাফিজ আহমদ, আনসার মিয়া প্রমুখ।

শেষে ১৫ আগস্ট নিহতদের রূহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন মুক্তিযোদ্ধা সাইফুল আলম। পরে শিরণী বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ।

দিরাই প্রতিনিধি : বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে স্বাধীনতার মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় উপজেলা পরিষদের প্রধান ফটক থেকে দিবসটি উপলক্ষ্যে একটি শোক র‍্যালি বের করা হয়। পৌর শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা প্রশাসন প্রাঙ্গণে স্মৃতিসৌধে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ। দুপুর ১২টায় উপজেলা গণমিলনায়তনে হলে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাহিদুল আলমের সভাপতিত্বে ও উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মাহফুজুর রহমানের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান তালুকদার। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সিরাজ উদ্দিন হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান এহসান চৌধুরী, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আতাউর রহমান, উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি তাজুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা তাপস কুমার রায়, শিক্ষক নেতা বিশ্বজিৎ চৌধুরী, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সাধারণ সম্পাদক রাহাত মিয়া রাহাত, উপজেলা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সায়েল আহমদ চৌধুরী প্রমুখ। সভা শেষে শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত রচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ। বেলা ২টায় বিভিন্ন মসজিদে বিশেষ মোনাজাত, মিলাদ মাহফিল ও মন্দিরে প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াও বিভিন্ন সরকারী বেসরকারি প্রতিষ্ঠান শোক দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করে।

ছাতক প্রতিনিধি : ছাতকে উপজেলা প্রশাসন, আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠন, মুক্তযোদ্ধা সংসদ, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড, ছাতক সদর ইউনিয়ন, জেলা বঙ্গন্ধু ফাউন্ডেশন, ছাতক সিমেন্ট কারখানা সিবিএ, শ্রমিকলীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পৃথকভাবে পালন করা হয়েছে। জাতীয় শোক দিবস পালনে উপজেলার প্রত্যক ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড কমিটিসহ আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের তৃণমুল পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা গৃহীত কর্মসূচীতে অংশ নেন। এদিকে, উপজেলা প্রশাসন ও পরিষদের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলেক্ষে উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতীকৃতে পুস্পস্তবক অর্পন, শোক র‌্যালী, রচনা ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী ও আলোচনা সভা উপজেলা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। সকালে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক, পরিষদের পক্ষে উপজেলা চেয়ারম্যান অলিউর রহমান চৌধুরী বকুল, এএসপি ছাতক সার্কেল দুলন মিয়াসহ, উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তর, বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষে নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। পরে উপজেলা চেয়ারম্যান অলিউর রহমান চৌধুরী বকুলের নেতৃত্বে বের করা হয় একটি শোক র‌্যালী। পরে উপজেলা মিলনায়তনে শোক দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, এমপি মুহিবুর রহমান মানিক। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবেদা আফসারীর সভাপতিত্বে এবং সমবায় কর্মকর্তা বিজিত রঞ্জন কর ও ইউআরসি ইন্সট্রাকটর মোস্তফা আহসান হাবিবের যৌথ পরিচালনা অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, সহকারী কমিশনার(ভুমি) সোনিয়া সুলতানা, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার দুলন মিয়া, সাবেক পৌর চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহিদ মজনু, অধ্যক্ষ মঈন উদ্দিন আহমদ, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আনোয়ার রহমান তোতা মিয়া, আব্দুস সামাদ, নুরুল আমিন, আওয়ামীলীগ নেতা সৈয়দ আহমদ, প্রেসক্লাবের সভাপতি সৈয়দ হারুন-অর রশীদ, ইউপি চেয়ারম্যান গয়াছ আহমদ, বিল্লাল আহমদ, মুক্তিযোদ্ধা কবির উদ্দিন লালা, উপজেলা স্বেচ্চাসেবকলীগের সভাপতি ওবায়দুর রউফ বাবলু, শ্রমিকলীগের সভাপতি আবু বক্কর রাজা, গোবিন্দগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি তাজাম্মুল হক রিপন প্রমুখ। অপরদিকে উপজেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে বিকেলে শহরে র‌্যালী ও মন্ডলীভোগস্থ দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। বিকেলে সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক, পৌর মেয়র আবুল কালাম চৌধুরী ও সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক, কেন্দ্রিয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য শামীম আহমদ চৌধুরীর নেতৃত্বে শহরে বের করা হয় এক বিশাল শোক র‌্যালী। র‌্যালীটি শহর প্রদক্ষিণ করে মন্ডলীভোগস্থ দলীয় কার্যালয়ে শোক দিবসের আলোচনা সভায় মিলিত হয়। এর আগে সকালে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও কালো পতাকা উত্তোলন, নেতা-কর্মীদের মাঝে কালোব্যাজ ধারন ও বাদ জোহর কেন্দ্রিয় জামে মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও মন্দীরে বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক আজমল হোসেন সজলের সভাপতিত্বে এবং আওয়ামীলীগ নেতা শাহীন চৌধুরীর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত শোক দিবসের আলোচনা সভায় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পৌর মেয়র আবুল কালাম চৌধুরী বলেন, বাঙালি জাতির স্বপ্ন নস্যাৎ করতে পাকিস্তানী দোষররা ৭৫ এইদিনে বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যা করেছিল। কিন্তু জাতির জনকের রক্ত যার দেহে বহমান বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা সেই অশুভ শক্তির স্বপ্নকে দুঃস্বপ্নে পরিনত করে দিয়েছেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর খুনীদের এক-এক করে ফাঁসির কাষ্ঠে ঝুলিয়ে প্রমান করেছেন ৭১ ও ৭৫ এর ঘাতকদের এক আতংকের নাম শেখ হাসিনা। তিনি দেশবাসীকে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে ও ডিজিটাল সোনার বাংলা গড়তে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, ৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট জাতির জনকের হত্যাকান্ডের খবরে ছাতক-দোয়রায় যারা উল্লাস করেছে তারা আজ সু-কৌশলে আ.লীগে প্রবেশ করেছে। যারা বিভিন্ন বামপন্থি দলের সভা-সমাবেশে আ.লীগ ও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটাক্ষ করতো তারাই আওয়ামীলীগে অনুপ্রবেশ করে ছাতক-দোয়ারার আ.লীগের ঘারে চেপে বসেছে। সরকারী সম্পদ লুটেপুটে পকেট ভারী করছে এসব আ.লীগ নামধারী অশুভশক্তি। নতুন প্রজম্মের কাছে তাদের মুখোশ উন্মোচন করার সময় এসেছে। এখন থেকে প্রকৃত মুজিব সৈনিকরাই ছাতক-দোয়ারায় আওয়ামীলীগের নেতৃত্ব দেবে। জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরো শক্তিশালী করতে শোকের মাসে মুজিব সৈনিকদের এ শপথ নিতে হবে। আগামী নির্বাচনে নৌকার বিজয়কে নিশ্চিত করতে তিনি এখন থেকে নেতা-কর্মীদের মাঠে কাজ করার আহবান জানান। সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক শামীম আহমদ চৌধুরী। সভায় বক্তব্য রাখেন, আওয়ামীলীগ নেতা জয়নাল আবেদীন তালুকদার, প্যানেল মেয়র তাপস চৌধুরী, পৌর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার অজয় ঘোষ, আওয়ামীলীগ নেতা রেজা মিয়া তালুকদার, নুর উদ্দিন, দেওয়ান আবুল কালাম মাষ্টার, আশিক মিয়া, আনোয়ার হোসেন, জয়নাল আবেদীন, শাহ ইলিয়াছ, ইউপি চেয়ারম্যান দেওয়ান পীর আব্দুল খালেক রাজা, সাইফুল ইসলাম, পৌর কাউন্সিলর আখলাকুল আম্বিয়া সোহাগ, ধন মিয়া, সুদীপ দে, আওয়ামীলীগ নেতা রুহুল আমিন তালুকদার, আব্দুল বারী চপল, আব্দুল হক, ডা. রেদোওয়ানুল হক আরজু, আ.লীগ নেতা কামাল উদ্দিন, মোতাহির আলী, ফয়জুল ইসলাম, শাহীন তালুকদার, আব্দুল মমিন, শামছুল ইসলাম খান, আজাদ মিয়া মেম্বার, আব্দুল কাদির, আব্দুর রহিম, সামছুল হক, হুছন আলী, নাসির উদ্দিন, যুবলীগ নেতা দেলোয়ার হোসন, নজরুল চৌধুরী, শামীম তালুকদার, শাহ মোহাম্মদ শাহীন, পল্টু দাস, সাবেক ছাত্র নেতা পংকজ চৌধুরী, ছাত্রলীগ নেতা মাহির চৌধুরী, শ্রমিকলীগ নেতা খলিলুর রহমান, আমির হোসেন বাবু, শাহ আলম, রাফী খান, আফজাল হোসেন, শহিদুল ইসলাম, শফিকুল ইসলাম, মোহাম্মদ হানিফ, দিলবর আলী, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি জামায়েল আহমদ ফরহাদ, কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি রিয়াদ আহমদ চৌধুরী, সহ-সভাপতি আব্দুল কাদির তালকদার, ছাত্রলীগ নেতা রুবেল তালুকদার জনি, রাজিব তরফদার, আলীরাজ চৌধুরী, স্বেচ্চাসেবকলীগ নেতা আব্দুল বাছিত মামুন, সাদমান মাহমুদ সানি প্রমুখ। সভা শেষে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। পরে আগত নেতা-কর্মীদের মাঝে শিরনী বিতরণ করা হয়। অন্যদিকে, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের উদ্যোগে র‌্যালী ও কমান্ড কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সাবেক কমান্ডার নুরুল আমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, সাবেক কমান্ডার আনোয়ার রহমান তোতা মিয়া, আব্দুস সামাদ, পৌর কমান্ডার অজয় ঘোষ, মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা, কবির উদ্দিন লালা, আজাদ মিয়া, আব্দুল খালিক, প্রমুখ। এদিকে, জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে পরিষদ কার্যালয়ে ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সচিব পিংকু দাসের পরিচালনায় জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন, সাবেক ইউপি সচিব সুকেশ পাল, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি নুরুল হক মেম্বার, আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল কাদির, ইউপি সদস্য ময়না মিয়া, আব্দুস ছালাম, আতর আলী, কাজী নজরুল ইসলাম মারুফ, সুলতান মিয়া, আব্দুল মালিক, সদস্যা তাহমিনা আক্তার, রওশন আরা, আফিয়া খাতুন, যুবলীগ নেতা ফরহাদ মিয়া, রুকন মিয়া জুয়েল আহমদ প্রমুখ।

ছাতক সিমেন্ট কারখানা সিবিএ : ছাতক সিমেন্ট কারখানা কর্মকর্তা-কর্মচারী, সিবিএ ও শ্রমিকদের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে। সকালে কারখানা কর্মকর্তা-কর্মচারী, সিবিএ ও শ্রমিকরা কালো ব্যাজ ধারন করে শোক র‌্যালীতে অংশ নেন। পরে সিবিএ কার্যালয়ে সিবিএ সভাপতি খছরুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও মফিজুর রহমান শাহীনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, কারখানার এমডি শ্যামলেন্দু দত্ত। বক্তব্য রাখেন, কারখানার মহিলা ক্লাবের সভাপতি স্বপ্না দত্ত, কারখানার প্রশাসনি বিভাগীয় প্রধান রেজাউল করিম, রুপওয়ে বিভাগীয় প্রধান মাহবুব এলা, সিবিএ সাধারন সম্পাদক আব্দুল কদ্দুছ, সিবিএ নেতা সাইদুল ইসলাম, একলু মিয়া, লোকমান হোসেন, শাহাদত হোসেন, মাখন দাস, কৃপেশ দাস, আব্দুল হেকিম, কছির আলী, আব্দুল্লাহ, শ্রমিক ক্লাবের সভাপতি দ্বিজবর মজুমদার, যুগ্ম সম্পাদক মফিজ উল্লাহ, সমবায় সমিতির সম্পাদক হাববুর রহমান কাজল, সহ সম্পাদক হাবিবুর রহমান, কারখানা মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মাহফুজুর রহমান প্রমুখ।

এ ছাড়া পদক্ষেপ মানবিক উন্নয়ক কেন্দ্র, খাগহাটা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, শ্রীকৃষ্ণপুর-দিলালপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পৃথকভাবে জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়েছে।

বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি : বিয়ানীবাজারে বঙ্গবন্ধুর ৪৩তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে। উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও সামাজিক সংগঠন জাতীয় মোক দিবস পালন করেছে।

সকাল ১০টায় উপজেলা চত্বরে জাতির জনকের অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে পুষ্প শ্রদ্ধা নিবেদন করেন প্রশাসন ও রাজনীতিক সংগঠনের নেতাকর্মী। বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজ ক্যাম্পাসে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন কলেজ কর্তৃপক্ষ ও উপজেলা, সরকারি কলেজ ও পৌরসভা ছাত্রলীগ।

প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ অর্পন শেষে পৌরশহরে শোক যাত্রা করা হয়। এছাড়া জাতীয় শোক দিবসে তাৎপর্য তুলে ধওে আলোচনা সভা, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা ও রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করে উপজেলা প্রশাসন।

তাহিরপুর প্রতিনিধি : তাহিরপুরে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মস্বীকৃত খুনীদের দেশের মাটিতে ফিরিয়ে এনে ফাঁসির রায় কার্যকর করার দাবীতে শোক র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল ১১টায় উপজেলা প্রশাসন, আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, শ্রমিকলীগ, ছাত্রলীগ একত্রিত হয়ে একটি শোক র‌্যালী উপজেলা সদরের বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিন করেছে। র‌্যালী শেষে উপজেলা পরিষদ চত্বরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্থবক অর্পন শেষে উপজেলা গনমিলনায়তন কেন্দ্রে উপজেলা নির্বাহী অফিসার পূর্ণেন্দু দেব এর সভাপতিত্বে উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি আমিনুল ইসলামের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আবুল হোসেন খান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক অমল কান্তি কর, সহ সভাপতি আলী মর্তূজা, থানা অফিসার ইনচার্জ নন্দন কান্তি ধর, উপজেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রফিকুল ইসলাম, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মুহাম্মদ আব্দুছ ছালাম, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মিজানুর রহমান, উপজেলা উপজেলা যুবলীগ আহবায়ক হাফিজ উদ্দিন, আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সস্পাদক আলমগীর খোকন। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামীলীগ নেতা সেলিম আখঞ্জি, উপজেলা শ্রমিকলীগ আহবায়ক বিলাল আমিন, যুগ্ম আহবায়ক মতিউর রহমান, কবিন্দ্র চন্দ, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আবুল বাশার প্রমূখ।

ছাতক প্রতিনিধি : ছাতকে জাতীয় শোক দিবস উলপক্ষে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাত বার্ষিকীতে দোয়াও মিলাদ মাহফিল সম্পন্নœ করা হয়েছে। গতকাল বুধবার বাদ যোহর শহরের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে য্ক্তুরাজ্য আওয়ামীলীগ নেতা জয়নাল আবেদীন তালুকদারের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি চারন করে বক্তব্য রাখেন য্ক্তুরাজ্য আওয়ামীলীগ নেতা জয়নাল আবেদীন তালুকদার। জালালীয়া ফাজিল মাদ্রাসা আরবী প্রবাসক মাওলানা আলী আজগর খান, দোয়া পরিচালনা করেন কেন্দ্রী মসজিদের ঈমাম ও খতিব মাওলানা ক্বারী গিয়াস উদ্দিন। এসময় মিলাদ মাহফিলে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ডা. গোলাম মন্তকা, রাজনীতিবিদ খলিলুর রহমান মানিক, আওয়ামীলীগ নেতা আবুল হোসেন, ব্যবসায়ী আতিক মিয়া, নজরুল হক, ছাত্রলীগ নেতা নয়ন প্রমুখ।