কুলাউড়ায় অপহরণ : মুক্তিপন আদায়কারী চক্রের ৬ সদস্য আটক

49

কুলাউড়া সংবাদদাতা
কুলাউড়ায় অপহরণ করে বিকাশের মাধ্যমে মুক্তিপন আদায়কারী চক্রের ৬ সদস্যকে আটক করেছে কুলাউড়া থানা পুলিশ। আটকের পর গতকাল বুধবার বিকেল ৫টায় সংবাদ সম্মেলন করে থানা পুলিশ। আটক অপহরণকারী চক্রের ৬ সদস্য হলো বড়লেখা উপজেলা উত্তর বাগমারা গ্রামের আতিকুর রহমানের ছেলে মিজানুর রহমান (২৪) বর্তমানে সে কুলাউড়া পৌরসভার দক্ষিণ জয়পাশা গ্রামে বসবাসকারী, কাদিপুর ইউনিয়নের পূর্ব মনসুর গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে ফয়ছল আহমদ(২৩), চাতলগাঁও গ্রামের তফুর মিয়ার ছেলে মোঃ ইমরান (২২), কুলাউড়া সদর ইউনিয়নের প্রতাবী গ্রামের ফরমুজ আলীর ছেলে আকুল মিয়া (২৪) বর্তমানে চাতলগাঁও গ্রামের বাসিন্দা, দক্ষিণ চাতলগাও গ্রামের আব্দুল ওয়াহিদের ছেলে (প্রাইভেটকার চালক) আলা উদ্দিন মাসুদ ওরফে মসুদ (২১) ও দক্ষিণ খৌলা গ্রামের মাখন মল্লিকের ছেলে রূপন মল্লিক (২৩)।

ঈুলিশ জানায়, এই চক্রটি গত মঙ্গলবার মৌলভীবাজার জেলা সদরের বাসিন্দা ও ব্যবসায়ী জাবেদ মিয়াকে চা পাতা ব্যবসার কথা বলে কুলাউড়ায় এনে একটি প্রাইভেট কারে তুলে জিম্মি করে। গাড়ীতে ব্যবসায়ী জাবেদ মিয়াকে মারপিট করে তার সাথে থাকা ৫৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। গাড়ী কুলাউড়া উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ঘুরতে থাকে। সেই সাথে ব্যবসায়ী জাবেদ মিয়ার পরিবার ও আত্মীয় স্বজনের কাছে মোবাইল ফোনে কথা বলে বিকাশে টাকা পাঠাতে বলে।

এদিকে ব্যবসায়ীর পরিবার ও আত্মীয় স্বজনরা অপহরণকারীদের কথামত ২০ হাজার ৬০ টাকা পাঠায়। সেই সাথে ব্যবসায়ী জাবেদ মিয়াকে বিভিন্ন স্থানে ঘুরতে ঘুরতে এক পর্যায়ে উপজেলার জয়চন্ডী ইউনিয়নের গাজীপুর চা বাগানের নির্জন এলাকায় একটি মাজারের পাশে ফেলে যায়। খবর পেয়ে ব্যবসায়ী জাবেদ মিয়া আহত অবস্থায় গাজীপুর বাজারে থেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে কুলাউড়া থানা পুলিশ। বিকাশে পাঠানো টাকা উত্তোলনের সুত্র ধরে এবং টাকা ভাগবাটোয়ারার গোপন সংবাদ পেয়ে পুলিশ অভিযুক্তদের অভিযান চালিয়ে আটক করে।

কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শামীম মুসা জানান, অপহরণ ও মুক্তিপন বাবত টাকা আদায়কারী চক্রের সাথে আরও লোক জড়িত রয়েছে। তাদেরকে আটকে সর্বাত্মক চেষ্টা চলছে। এই ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।