দুর্নীতিমুক্ত সমাজ ও দেশ গঠনে শিক্ষার্থীদের মানসিকভাবে তৈরি করতে হবে

25

ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ‘সততা স্টোর’ খোলা হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় দুর্নীতি দমন কমিশন জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি সিলেটের সহযোগিতায় গতকাল বুধবার সিলেটের শহরতলীর টুকেরবাজার সদরে হাজী আব্দুস সাত্তার বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে ‘সততা স্টোর’ উদ্বোধন করা হয়েছে।

এ উদ্বোধন উপলক্ষে দুর্নীতি বিরোধী শ্লোগান সম্বলিত শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ ও মতবনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মালিকের সভাপতিত্বে ও সহকারি শিক্ষক মো. ফারুক আহমদের পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, দুর্নীতিন দমন কমিশন সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক নিরু শামসুন নাহার। তিনি বলেন, একটি সৎ, সমৃদ্ধ এবং দুর্নীতিমুক্ত সমাজ ও দেশ গঠনে এই প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের মানসিকভাবে তৈরি করতে হবে। তাদের মধ্যে সততার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে। প্রাথমিক স্তরে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের নৈতিকতা শিক্ষা দেওয়ার একটি সহজ ও সুন্দর উপায় হতে পারে- সততা স্টোর। সততা মানব চরিত্রের একটি শ্রেষ্ঠ গুণ। মানবজীবনে এর প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। অতএব মানুষকে সদা সর্বদা কথা ও কাজে সততা ও স্বচ্ছতা রক্ষা করতে হবে এবং মিথ্যার অভিশাপ ও গ্লানি থেকে বাঁচতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, দুর্নীতি দমন কমিশনের উপসহকারি পরিচালক মো. তাজুল ইসলাম ভূইয়া, সিলেট জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সাধারণ সম্পাদক রোটারিয়ান বেলাল আহমদ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, হাজী আব্দুস সাত্তার বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক আব্দুর রহমান জুনেদ খোরাসানী, বক্তব্য রাখেন হাজী আব্দুস সাত্তার বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক রাসেন্দ্র নারায়ন তালুকদার, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মঈন উদ্দিন, সদস্য হাজী শফিকুর রহমান।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জ্যোতির্ময় চৌধুরী, আব্দুস শুকুর, আবু হেলাল, মো. বিলাল, মো. তৃপ্তি শোভানাথ, মরিয়ম জেসমিন, রীপা চক্রবর্তী, রোহিতাশ্ব তালুকদার, নিলুফা ইয়াসমিন, মো. মহি উদ্দিন, আবুল বাশার, এহসানুল হক, সোনিয়া আক্তার লিলি, তামান্না নবী চৌধুরী, আল্পনা তালুকদার, মো. আব্দুল্লাহ, মাওলানা জাকারিয়া প্রমুখ। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন ধর্মীয় শিক্ষক মো. শামীম আহমদ।

প্রসঙ্গত : সততা স্টোরে শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় বিভিন্ন পণ্য রাখা আছে। সেখানে পণ্য কেনা ও মূল্য পরিশোধের নিয়মাবলী নিয়ে দু’টি তালিকা রয়েছে, কিন্তু কোনো বিক্রেতা নেই। কোনো কিছু কিনতে হলে স্টোরে থাকা সংশ্লিষ্ট খাতায় পণ্যের বিবরণ লিখতে হবে শিক্ষার্থীকে। এরপর পাশেই রয়েছে টাকা জমা দেওয়ার বক্স। যেকোনো শিক্ষার্থী তার পছন্দমতো পণ্যটি কিনে বক্সে টাকা জমা রাখবে।-বিজ্ঞপ্তি