নতুন বছরে যুক্তরাষ্ট্রকে কিমের হুঁশিয়ারি

31

সবুজ সিলেট ডেস্ক
উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উন নববর্ষ উপলক্ষে দেওয়া ভাষণে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে নতুন হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, তিনি পরমাণু নিরস্ত্রীকরণে অঙ্গীকারবদ্ধ। তবে যুক্তরাষ্ট্র নিষেধাজ্ঞা অব্যাহত রাখলে তিনি অঙ্গীকার থেকে সরে দাঁড়াতে পারেন।

মঙ্গলবার (১ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় ভোরে দেশটির সরকারি টিভিতে উনের ভাষণ প্রচারিত হয়।

ভাষণে উন বলেন, যদি বিশ্ববাসীর সামনে করা প্রতিশ্রুতি না রেখে ট্রাম্প নিষেধাজ্ঞা চালিয়ে যান এবং দেশের জনগণের ওপর চাপ দিতে থাকেন তাহলে আমাদের নিরাপত্তা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য নতুন উপায় খুঁজতে হবে।

উত্তরসূরি কিম ইল সাংয়ের ঐতিহ্য অনুসারে উন প্রতি নববর্ষে ভাষণ দেন। সাধারণত এই ভাষণে গত বছরের অর্থনৈতিক অবস্থা সম্পর্কে দেশের জনগণকে জানানো হয়। পর্যবেক্ষকেরা এই ভাষণ থেকে পিয়ংইয়ংয়ের বৈদেশিক নীতি সম্পর্কে আভাস পেতে চান ।

নববর্ষের ভাষণে কিম জং উন আরও বলেন, উত্তর কোরিয়া পরমাণু অস্ত্র তৈরি, ব্যবহার ও বিস্তার ঘটাবে না বলে অঙ্গীকার করেছে। অঙ্গীকার বাস্তবায়নের জন্য পদক্ষেপও নিয়েছে। তিনি যেকোনো সময় ট্রাম্পের সঙ্গে আবার দেখা করার জন্য প্রস্তুত।

গত বছর নববর্ষ উপলক্ষে দেওয়া ভাষণে উন দক্ষিণ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক নিয়ে বক্তব্য দেন।

ওই ভাষণে উন জানান, দক্ষিণ কোরিয়ার আয়োজিত শীতকালীন অলিম্পিকে উত্তর কোরিয়া অংশ নেবে । গত এপ্রিল মাসে উন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে-ইনের সঙ্গে সীমান্ত নিয়ে আলোচনা করেন।

দুই কোরিয়ার নেতার মধ্যে এরপরও দুইবার বৈঠক হয়েছে। উন সিঙ্গাপুরে গত জুন মাসে ট্রাম্পের সঙ্গে ঐতিহাসিক বৈঠক করেন। পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের বিষয়ে দুই নেতার মধ্যে ওই বৈঠকে চুক্তি সই হয়। তবে এই বৈঠকের পর খুব সামান্যই অগ্রগতি হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের শুরুতে তিনি কিম জং উনের সঙ্গে বৈঠক করতে পারেন।
-সবুজ সিলেট/এসবি