দ্বিতীয় দফায় রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠালো ভারত

21

সবুজ সিলেট ডেস্ক : অবৈধ অভিবাসী দাবি করে দ্বিতীয় দফায় আরও পাঁচ রোহিঙ্গাকে মিয়ানমারে ফেরত পাঠিয়েছে ভারত। বৃহস্পতিবার দেশটির মনিপুর সীমান্ত দিয়ে ওই পাঁচ রোহিঙ্গাকে মিয়ানমারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ভারতের ক্ষমতাসীন কট্টর হিন্দুত্ববাদী বিজেপি সরকার রোহিঙ্গাদের অবৈধ অভিবাসী ও দেশের নিরাপত্তার জন্য হুমকি হিসেবে অভিহিত করে আসছে। ভারত সরকার বলছে, বিভিন্ন আশ্রয় শিবির ও বস্তিতে থাকা হাজার হাজার রোহিঙ্গাকে চিহ্নিত করে মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হবে।

মিয়ানমারের কাছে হস্তান্তর করা ওই পাঁচ রোহিঙ্গাকে বৈধ কাগজপত্র ছাড়া ভারতে প্রবেশের অভিযোগে স্বামী-স্ত্রীসহ তাদের তিন সন্তানকে আসাম থেকে আটক করা হয়। আটকের পর তাদেরকে কারাদণ্ড দেয়া হয়।

রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার সকালে বাসে করে পাঁচ সদস্যের একটি রোহিঙ্গা পরিবারকে মনিপুর সীমান্তে নিয়ে যায় পুলিশ। এরপর তাদেরকে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এর আগে গত চার অক্টোবর অনুপ্রবেশের দায়ে ভারতে কারাভোগ করা সাত রোহিঙ্গাকে মিয়ানমারে ফেরত পাঠায় ভারত।

আসাম রাজ্য পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জয়তি মোহন্ত রয়টার্সকে বলেন, ‘পাঁচ রোহিঙ্গাকে মিয়ানমারের কর্মকর্তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তারা সীমান্ত অতিক্রম করেছে।’ তাছাড়া রয়টার্সের প্রতিনিধির তোলা ছবিতে দেখা যায়, মিয়ানমার সীমান্ত অতিক্রম করছে ওই রোহিঙ্গা পরিবার। আর তাদের পাশে দাঁড়িয়ে আছে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা।

উল্লেখ্য, মিয়ানমারে সহিংসতা ও নিপীড়নের শিকার হয়ে প্রায় ৪০ হাজার রোহিঙ্গা ভারতে আশ্রয় নেয়। আর এদের বেশিরভাগ বসবাস করছে বিভিন্ন আশ্রয় শিবিরে। তাছাড়া অবৈধভাবে প্রবেশের অভিযোগে অনেককে রাখা হয়েছে অভিবাসী আটক কেন্দ্রে। অনেকে আবার বিভিন্ন বস্তিতেও বসবাস করছেন।

সবুজ সিলেট/জেএ