জগন্নাথপুরে প্রবাসীর সম্পত্তি আত্মসাত করতে হামলা

158

সবুজ সিলেট ডেস্ক
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার মিরপুরে বয়োজৈষ্ট প্রবাসী মহিলার সম্পত্তি আত্মসাতে মরিয়া হয়েছে উঠেছে একটি চক্র। তারা দীর্ঘদিন ধরে ওই প্রবাসী মহিলাকে হুমকি-ধামকি দিয়ে সম্পত্তি দখল করতে না পারায় অবেশেষে বাড়ি ঘরে হামলা ও লুটপাট করেছে। গত রোববার বিকেলে মিরপুরের হলিয়ারপাড়াস্থ করিমপুর কুমারগাঁও গ্রামের মৃত গয়াছ মিয়ার স্ত্রী মনতেরা বেগমের ঘরে এ ঘটনাটি ঘটে।
বসতঘরে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনাটি স্থানীয় লোকজন আপোষে সমাধানের উদ্যোগ নিলেও হামলাকারী রুপা মিয়া ও তার বাহিনীর লোকজন তা প্রত্যাখান করে অসহায় প্রবাসী মহিলাকে নানা ভাবে হুমকি দিয়ে আসছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ফলে নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়েছেন হামলার শিকার বয়োজৈষ্ট মনতেরা বেগম।
এক পর্যায়ে বাধ্য হয়ে গত বুধবার সুনামগঞ্জের জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মনতেরা বেগম বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ৬/১৯।
আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন। মামলার আসামিরা হলেন, হলিয়ারপাড়াস্থ করিমপুর কুমারগাঁও গ্রামের মৃত হামছু মিয়ার ছেলে রুপা মিয়া, একই গ্রামের মৃত তেরাব আলীর স্ত্রী রেনু বেগম, মৃত তোরাব আলীর ছেলে জাকারিয়া উরফে আবু, মৃত গফুর মিয়ার ছেলে আজাদ মিয়া ও তার দুই ছেলে সেবুল মিয়া এবং রায়হান মিয়া।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মিরপুরের হলিয়ারপাড়াস্থ করিমপুর কুমারগাঁও গ্রামের প্রবাসী মনতেরা বেগম অসুস্থ হয়ে বাড়িতে বসবাস করে আসছিলেন। বয়োজৈষ্টের কারনে মনতেরা বেগমের সম্পত্তি দখল ও আত্মসাত করতে নানা ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত শুরু করেন চাচাতো ভাই রুপা মিয়া ও তার লোকজন।
বিভিন্ন ভাবে হুমকি-ধ্বমকিতে ব্যর্থ হয়ে গত ৬ জানুয়ারী রোববার দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অভিযোগকারী মনতেরা বেগমের বসত ঘরে হঠাৎ অতর্কিত ভাবে হামলা চালায় রুপা মিয়া ও তার লোকজন। তারা ঘরের মালামাল ভাংচুর করে নগদ টাকা ও পাউন্টসহ জরুরী মালামাল নিয়ে যায়। যার মূল্য অনুমানিক ১৩ লক্ষ টাকা হবে।
এসময় আর্তচিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনার স্থানীয় লোকজন ঘটনাটি আপোষে সমাধানের উদ্যোগ নেন। কিন্তু রুপা মিয়া আপোষ প্রত্যাখান করায় নিরাপত্তার সার্থে মুরব্বীয়ানদের পরামর্শে বাধ্য হয়ে প্রবাসী মনতেরা বেগম বাদি হয়ে সুনামগঞ্জের জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি সিআর মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর থেকে অসহায় বয়োজৈষ্ট মনতেরা বেগমকে নানা ভাবে হুমকি দিচ্ছেন রুপা মিয়া ও তার লোকজন।
এ ব্যাপারে জগন্নাথপুর থানার অফিসার ইনচার্জ হারুনুর রশিদ বলেন, আদালত থেকে মামলাটি তদন্তের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তদন্ত কাজ চলছে। আদালতের নির্দেশে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।