তেলুগু সিনেমায় প্রশংসিত,বিমানবন্দরে নিগৃহীত

21

অনলাইন ডেস্ক:
ভারতের হায়দ্রাদের দেড় শতাধিক প্রেক্ষাগৃহে চলছে বাংলাদেশি মেয়ে মেঘলা মু্ক্তা অভিনীত ভারতের তেলুগু ইন্ডাস্ট্রির মূলধারার ‘সাকালাকালা ভাল্লাবুড়ু। ঠিক এই সময়েই ভারতের হায়দ্রাবাদ বিমান বন্দরে এয়ার ইন্ডিয়ার এক নারী কর্মী দ্বারা হয়রানির শিকার হয়েছেন বলে জানালেন মেঘলা।

মেঘলা মুক্তা জানান, গত বৃহস্পতিবার আমি এয়ার ইন্ডিয়ার AI780 নম্বর ফ্লাইটে হায়দ্রাবাদ থেকে বাংলাদেশে ফিরছিলাম। বিমানে আমার ২৮ কেজি ওজন বহন করার অনুমতি ছিল কিন্তু আমার সকল মালামাল এর ওজন হয়েছিল ২৯ কেজি। তাই আমি অতিরিক্ত ওজনের জন্য নিয়ম অনুযায়ী অর্থ পরিশোধ করতে রাজি ছিলাম। কিন্তু এয়ার ইন্ডিয়ার হায়দারাবাদের গ্রাউন্ড স্টাফ সুপারভাইজার কানিজ ফাতেমা আমাকে কেডিট কার্ডে অর্থ পরিশোধ করতে বলে।

তখন আমি ক্যাশ পেমেন্ট করতে চাইলে তিনি আমাকে বলেন ‘আমার নাকি বাসে ভ্রমন করা উচিত। ‘ তারপর আমি বললাম যে আমি ডলার এক্সচেঞ্জ করে পেমেন্ট করছি কিন্তু তাতেও কানিজ ফাতেমা রাজি হয়নি। ওই ফ্লাইটে আমার কিছু বন্ধু ছিল। তারা আমার কিছু ব্যাগ ভাগাভাগি করতে চাইলে কানিজ ফাতেমা আমাকে বলেন, ‘আপনি এখানে কোন ব্যবসা করতে বা কোন চুক্তি করতে পারেন না।’

বিষয়টি নিয়ে মেঘলার সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, তারা যে ধরনের আচরণ করছে একজন সাধারণ মানুষ হিসেবে এটা কাম্য নয়।এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই। সেই সঙ্গে এমন আচরণের জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে এর সুষ্ঠ বিচার দাবী করেছেন মেঘলা।

ইতোমধ্যে এ ঘটনার জন্য মেঘলার ইন্সটাগ্রাম একাউন্টে এয়ার ইন্ডিয়া তাদের অফিশিয়াল একাউন্ট থেকে কাছে দুঃখ প্রকাশ করে কমেন্ট এবং মেসেজ করেছে বলে জানান এ অভিনেত্রী।তবে আমি এয়ার ইন্ডিয়াকে অভিযোগ করে অফিশিয়াল মেইল পাঠানো হয়েছে। এখন মেঘলা তাদের উত্তরের জন্য অপেক্ষায় আছেন বলে জানান।