পাকিস্তানে আরেকটি বাংলাদেশ হতে দেবেন না জারদারি

14

অনলাইন ডেস্ক:
রয়টার্সপাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) কো-চেয়ারম্যান ও সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ আলী জারদারি বলেছেন, পাকিস্তানের ভেতরে আর একটি নতুন বাংলাদেশ সৃষ্টি হতে দেবে না তাঁর দল। গতকাল শনিবার সিন্ধ প্রদেশের সাঙ্গির জেলার তান্দো আদম শহরে সিনেটর ইমামুদ্দিন সৌকিনের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রাজনীতির অধিকার থেকে বঞ্চিত করা, অর্থনীতির ন্যায্য হিস্যা না দেওয়াসহ সব ক্ষেত্রে বাংলাদেশের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণ করায় ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে স্বাধীনতাযুদ্ধ ঘোষণা করে পূর্ব পাকিস্তান। ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে হেরে যায় পাকিস্তান। আন্তর্জাতিকভাবে স্বাধীনতার এ যুদ্ধকে গৃহযুদ্ধ বলে চালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয় পাকিস্তান। ৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে লাল-সবুজের পতাকা পায় বাংলাদেশ।

এখন দেশটির বেলুচিস্তান এলাকার মানুষ স্বাধীনতার আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন। সেই সময় পিপিপির কো-চেয়ারম্যান সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ আলী জারদারি একটি নতুন বাংলাদেশ সৃষ্টি হতে না দেওয়ার কথা বললেন।

দেশটির অনলাইন এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের খবরে বলা হয়েছে, সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আসিফ আলী জারদারি বলেন, ভারতের নেতারা তিন দশক ধরে পাকিস্তানকে ভাগ করার পরিকল্পনা করে আসছে। মুসলমানেরা কংগ্রেসের সাবেক প্রধান মাওলানা আবুল কালাম আজাদকে সম্মান করেন। কিন্তু তিনিও ষড়যন্ত্রকারীদের মধ্য অন্যতম। তবে এই সময়ে আমরা পাকিস্তানের ভেতরে আর একটি বাংলাদেশ সৃষ্টি হতে দেব না।

আসিফ আলী জারদারি বলেন, একটি যুদ্ধ বিজয়ের মাধ্যমে ‘তাঁরা’ পাকিস্তান সৃষ্টি করেননি। পাকিস্তান সৃষ্টি করেছেন ‘আমাদের’ পূর্বপুরুষেরা। আমার পূর্বপুরুষদের একটি স্কুলে পড়াশোনা করেছিলেন পাকিস্তানের জাতির পিতা কায়েদে আযম। তিনিই রাজনৈতিক সংলাপের মধ্য দিয়ে পাকিস্তানের স্বাধীনতা এনেছেন।

আসিফ আলী জারদারি বলেন, ‘পিপিপির নেতৃত্বের বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা হয়েছে। এর কারণ, শাসকেরা চান সংবিধানের ১৮তম সংশোধন। এটা দিয়ে তাঁরা প্রাদেশিক স্বায়ত্তশাসনকে কমিয়ে আনতে চান। আমাদের সঙ্গে তাঁদের লড়াই বা যুদ্ধ হলো সম্পদের জন্য। পাকিস্তানের সম্পদের জন্য। শুধু সিন্ধুর সম্পদের জন্য নয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘জাতীয় নির্বাচনের (২০১৮ সালের ২৫ জুলাইর নির্বাচন) আগে যে এলার্মের কথা বলেছিলেন তা এখনো বাজছে। কিন্তু মানুষ ওই সময় আমার সেই পূর্বাভাস মানেনি’। তিনি বলেন, ‘আমি বলেছিলাম নাটক মঞ্চস্থ হচ্ছে ১৮তম সংশোধনীর জন্য।’

দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সরকারকে কিছু পরামর্শও দেন আসিফ আলী জারদারি। তিনি বলেন, ‘সমস্যার সমাধান খুঁজুন।’ পিপিপির কো-চেয়ারম্যান আসিফ আলী জারদারি বর্তমান সরকারের বাজেটের সমালোচনা করে বলেন, পিপলস পার্টির সরকার সরকারি কর্মকর্তাদের বেতন দ্বিগুণ করেছে। তাঁর সরকারের সময় দেশের উন্নয়নের চিত্রও তুলে ধরেন।

এর আগে টান্দো আদম শহরে সুলেমান রোশান মেডিকেল কলেজের ভিস্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন আসিফ আলী জারদারি। তিনি হেলিকপ্টারের ওই এলাকায় পৌঁছান।