পাকিস্তানে হামলার বিরুদ্ধে বলায় নায়িকাকে ধর্ষণের হুমকি

37

অনলাইন ডেস্ক:
কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আত্মঘাতি হামলার পর থেকেই ভারত-পাকিস্তানের রাজনৈতিক সম্পর্কের অবনতি ঘটেছে। চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে দুটি দেশের মধ্যে। বলিউডের একঝাঁক তারকারা পাকিস্তানে সরাসরি হামলার জন্য সমর্থন দিচ্ছেন নিজের দেশের সরকারকে।

এদিকে একটি উগ্রপন্থি গোষ্ঠির অপরাধের জন্য একটি দেশে হামলা চালানো ঠিক নয় বলে মন্তব্য করায় বিতর্কের মুখে পড়েছেন সদ্য কংগ্রেসে যোগ দেওয়া অভিনেত্রী শিল্পা সিন্দে। তার জের ধরে তাকে ধর্ষণের হুমকিও দেয়া হয়েছে।

ঘটনার সূত্রপাত অবশ্য নবজ্যোত সিং সিধুকে নিয়ে। একটি মন্তব্যে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন দেশটির সাবেক এই ক্রিকেটার। পুলওয়ামা হামলার পর সিধু বলেছিলেন, ‘কিছু সন্ত্রাসবাদীর জন্য একটা দেশকে আমি কখনও দায়ী করি না। ওরা আমাদের জওয়ানদের হত্যা করে আমাদের সম্মানে আঘাত করেছে কাপুরুষের মতো। কিন্তু, এর জন্য গুরু নানকের মতাদর্শে দাঁড়ি লাগাতে পারব না।’

এরপর থেকেই শুরু হয় সিধুর সমালোচনা। অনেকেই সিধুকে কপিলের শো থেকে বয়কটের দাবি তুলতে থাকে। সিধুকে সমর্থন জানিয়ে অভিনেত্রী শিল্পা বলেছিলেন ভুল কিছু বলেননি সিধু। শিল্পার এই সমর্থনই তাকে বিতর্কের মুখে নিয়ে এসেছে।

সোশাল মিডিয়ায় নানাভাবে হুমকিও দেয়া হচ্ছে তাকে। অনেকে এই অভিনেত্রীকে ধর্ষণ করে পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। আর এসব হুমকি দেখে ক্ষেপেছেন শিল্পাও। তিনি আইনি পথে যাবেন বলেও জানিয়েছেন।

আরো পড়ুন : আটক পাইলটের মুক্তি নিয়ে যা বললেন বলিউড তারকারা
নয়া দিগন্ত অনলাইন ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৮:৫৭

পাকিস্তানের বালাকোটে ভারতীয় বিমান হামলার দাবি করার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই পাল্টা জবাব দিয়েছে পাকিস্তান। ইমরান খানের সরকার বলছে, দুটি ভারতীয় যুদ্ধবিমান গুলি করে ভূপাতিত করেছে তারা। আটক করেছে এক ভারতীয় পাইলটকে।

ভারতীয় বিমানবাহিনীর উইং কমান্ডার ভি অভিনন্দন পাকিস্তানে আটক হওয়ার খবর ভারত সরকারও স্বীকার করেছে। দেশটির সরকার পাকিস্তানকে সতর্ক করার পাশাপাশি অভিনন্দনকে নিরাপদে মুক্তির আহ্বান জানিয়েছে। বলিউড তারকারাও তার নিরাপদে মুক্তির জন্য প্রার্থনা জানিয়েছেন।

মাইক্রো-ব্লগিং সাইট টুইটারে বার্তা দিয়েছেন অনেক বলিউড অভিনেতা ও চলচ্চিত্র নির্মাতা। তাদের মধ্যে রয়েছেন অর্জুন কাপুর, করণ জোহর, দিলজিৎ দোসাঞ্জ, স্বরা ভাস্কর, ইমরান হাশমি, অনুপম খের, সুস্মিতা সেন, অর্জুন রামপাল, তাপসী পান্নু, হুমা কোরেশি, রেনুকা শাহানে, আর মাধবন, বিশাল দাদলানি, নিমরাত কৌর ও রণবীর সিং। ভারতীয় পাইলটকে নিরাপদে দেশের মাটিতে দেখতে চান তাঁরা।

টুইটারে ‘গাল্লি বয়’ তারকা রণবীর সিং লিখেছেন, ‘সাহসী উইং কমান্ডার অভিনন্দন। ভারত তোমার সাথে রয়েছে।’

সুস্মিতা সেন লিখেছেন, ‘বিমানবাহিনীর উইং কমান্ডার ভি অভিনন্দনের নিরাপদ ফেরতের জন্য আমরা সবাই প্রার্থনা করছি। ঈশ্বর মঙ্গল করুন।’

টুইট বার্তায় বিশিষ্ট নির্মাতা-প্রযোজক ও টিভি ব্যক্তিত্ব করণ জোহর উইং কমান্ডার অভিনন্দন ও তাঁর পরিবারকে শক্তি ধারণ করার আহ্বান জানিয়ে লিখেছেন, ভারত তাঁর পাশে রয়েছে ও তাঁর জন্য গর্বিত।

‘উইং কমান্ডার অভিনন্দনের জন্য প্রার্থনা। আশা করি, তিনি নিরাপদে আছেন এবং খুব দ্রুত নিজ দেশে তাঁকে ফেরত দেখতে চাই,’ টুইট-বার্তায় লিখেছেন ‘গুন্ডে’ তারকা অর্জুন কাপুর।

উত্তেজনা প্রশমনে সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিশিষ্ট সংগীতশিল্পী বিশাল দাদলানি টুইটে লিখেছেন, ‘আশা করি, দুই সরকার নাচানাচি বন্ধ করে প্রয়োজনীয় কাজটি করবে।’

আর মাধবন লিখেছেন, ‘আমাদের বিমানবাহিনীর সাহসী পাইলট অভির নিরাপদে ফেরতের প্রার্থনা করছি। ঈশ্বর তাঁকে রক্ষা করুন।’

কাশ্মীরের পুলওয়ামা-কাণ্ডে ভারতীয় আধা সামরিক বাহিনী কেন্দ্রীয় রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের (সিআরপিএফ) ৪০ জনের বেশি জওয়ানের মৃত্যুর ১২ দিন পর গত মঙ্গলবার ভোরে সীমান্ত পেরিয়ে পাকিস্তানের বালাকোটে সন্ত্রাসীদের প্রশিক্ষণ ঘাঁটিতে বিমান হামলা চালায় ভারত।

ভারতের দাবি, বালাকোটে পাকিস্তানভিত্তিক সন্ত্রাসী সংগঠন জইশ-ই-মোহাম্মদের একটি প্রশিক্ষণ ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিয়েছে ভারতীয় বায়ুসেনারা। ৩০০ জনের বেশি জইশ সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। অবশ্য পাকিস্তান এই বিপুলসংখ্যক হতাহতের দাবি অস্বীকার করেছে। ভারতের বিমান হামলার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই পাল্টা জবাব দিয়েছে পাকিস্তান। এ নিয়ে দুই দেশে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এর আগে পাকিস্তানে হামলার পর বলিউড তারকা সালমান খান, অজয় দেবগন, বরুণ ধাওয়ান, কঙ্গনা রানাউত, সঞ্জয় দত্ত, অভিষেক বচ্চন, চেতন ভগত, স্বরা ভাস্কর, রিতেশ দেশমুখ, রাভিনা ট্যান্ডন, সুনীল শেঠি, অতুল কাসবেকার, মধুর ভান্ডারকার, তুষার কাপুর, মল্লিকা শেরওয়াত, আফতাব শিবদাসানি, করণ ট্যাকার; দক্ষিণী তারকা রামচরণ, প্রভাস, মহেশ বাবু, কমল হাসান, জুনিয়র এনটিআর, সামান্থা আক্কিনেনি; টিভি তারকা করণবীর বোহরা; ক্রিকেট তারকা বীরেন্দ্র শেবাগ, গৌতম গম্ভীরসহ অনেকে ভারতীয় সেনাদের সালাম জানিয়েছিলেন।