সেই উদ্‌যাপনের জন্য জরিমানা দিচ্ছেন সিমিওনে

16

খেলা ডেস্ক
ফুটবল মাঠে খ্যাপাটে আচরণের জন্য খেলোয়াড়ি জীবন থেকেই ‘পরিচিত’ ছিলেন ডিয়েগো সিমিওনে। অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের কোচ হওয়ার পরেও সেই ‘খ্যাতি’ ধরে রেখেছেন। চ্যাম্পিয়নস লিগে জুভেন্টাসের বিপক্ষে ২-০ গোলে জেতা ম্যাচে অশালীন উদ্‌যাপন করেছিলেন। সে উদ্‌যাপনের মাশুল দিচ্ছেন এখন।

ডিয়েগো সিমিওনের খ্যাপামোর ইতিহাস নতুন নয়। খেলোয়াড়ি জীবনে বেশ কয়েকবার খ্যাপাটে কাণ্ডকারখানা করে শিরোনামে এসেছিলেন। চ্যাম্পিয়নস লিগের দ্বিতীয় রাউন্ডে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে ম্যাচ ছিল জুভেন্টাসের। প্রথম লেগে ২-০ গোলে জিতেছে সিমিওনের অ্যাটলেটিকো। সেই ম্যাচে দলের প্রথম গোলের পর আবেগ নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেননি সিমিওনে। অশালীন আচরণ করে আলোচনায় এসেছেন। সেই উদ্‌যাপনের খেসারত দিচ্ছেন এখন জরিমানা দিয়ে। ২০ হাজার ইউরো জরিমানা করা হয়েছে তাঁকে।

সিমিওনের সঙ্গে জুভেন্টাসের বৈরীর ইতিহাস আজকের নয়। খেলোয়াড়ি জীবনে লাৎসিও ও ইন্টার মিলানের হয়ে খেলার কারণে জুভেন্টাসের বিরুদ্ধে বিদ্বেষটা তাঁর মজ্জাগত। সেই জুভেন্টাসের বিপক্ষে অ্যাটলেটিকো খেলবে চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট রাউন্ডে, খবরটা শোনার পর অ্যাটলেটিকো শিবিরে সিমিওনের চেয়ে বেশি কেউ উজ্জীবিত হননি! কতটা উজ্জীবিত হয়েছিলেন, সেটা বোঝা গেছে তাঁর উদ্‌যাপনে।

চ্যাম্পিয়নস লিগ শেষ ষোলোর প্রথম লেগে অ্যাটলেটিকোর মাঠে ২-০ গোলে হেরেছিল জুভেন্টাস। স্প্যানিশ ক্লাবটির হয়ে ৭৮ মিনিটে প্রথম গোল করেন উরুগুয়ের ডিফেন্ডার হোসে হিমেনেজ। এর কিছুক্ষণ আগেই অবশ্য আলভারো মোরাতার গোল বাতিল হয়ে যায় ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির (ভিএআর) কল্যাণে। সিমিওনে সম্ভবত তখন থেকেই বেশ চটে ছিলেন। হিমেনেজ দলকে এগিয়ে দেওয়ার পর আর্জেন্টাইন এ কোচ নিজেকে আর ধরে রাখতে পারেননি। গ্যালারিসহ টিভি দর্শকদের অবাক করে সিমিওনে নিজের অণ্ডকোষ চেপে গ্যালারির দিকে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। যথেষ্ট অশোভন উদ্‌যাপন নিঃসন্দেহে।

ব্যস, আর যায় কোথায়। মুহূর্তের মধ্যে সমালোচনা ছড়িয়ে পড়ল চারদিকে। ম্যাচ চলাকালে ঝড় ওঠে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। জয়ের পর তাই অশ্লীল এবং কিছুটা অদ্ভুতুড়ে সেই উদ্‌যাপনের ব্যাখ্যা দিতে হলো অ্যাটলেটিকো কোচকে। সিমিওনে স্বীকার করে নেন, আচরণটি মোটেও শোভন ছিল না। কিন্তু এটি করার নাকি দরকার ছিল!

ফলে, উয়েফাও বসে থাকেনি। উয়েফার আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ তোলা হয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। নিজের আচরণের জন্য পরে দুঃখ প্রকাশ করলেও উয়েফা তদন্ত করতে ছাড়েনি। সেই তদন্ত শেষে উয়েফা সিমিওনেকে ২০ হাজার ইউরো জরিমানা করেছে।