গোলাপগঞ্জের কাকেশ্বরী নদী বাঁচাতে মানববন্ধন

6

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি:
গোলাপগঞ্জ উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ বাজারের মাঝ দিয়ে বয়ে চলা কাকেশ্বরী নদী এক সময় অত্র অঞ্চলের পণ্যপরিবহনসহ নৌপথে একাধিক এলাকার সাথে যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম হলেও এখন তা বিলীন। কেবল বিলীনই না, মুখেমুখে কাকেশ্বরী নদীর নাম থাকলেও এখানে যে একসময় একটি নদী ছিলো তা জানেন না তরুণ প্রজন্ম। বেপরোয়া দখলদারদের কাছে হার মেনেছে নদীর আকার। সময়ের সাথে সাথে এ নদী এখন একটি ছোট নালা মাত্র। তাই কাকেশ্বরী নদী দখলমুক্ত করতে ও খননের দাবিতে মানববন্ধন ও সভা করেছে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সিলেট।

আন্তর্জাতিক নদী রক্ষা দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার আজ ১৪ মার্চ দুপুর ১টায় গোলাপগঞ্জ বাজার চৌমুহনীতে এ মানববন্ধন ও সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধন পরবর্তী সভায় পরিবেশবাদী আব্দুল লতিফ সরকারের সভাপতিত্বে ও সমাজকর্মী সাংবাদিক রুবেল আহমদের পরিচালনায় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম কিম। গোলাপগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবের সেক্রেটারি, সিলেট মিররের গোলাপগঞ্জ সংবাদদাতা জাহিদ উদ্দিনের স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে সূচিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন পরিবেশ কর্মী বদরুল ইসলাম চৌধুরী, গোলাপগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্দুল জলিল, গোলাপগঞ্জ নাগরিক বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি এস এ মালেক, নিরাপদ সড়ক চাই গোলাপগঞ্জ শাখার সভাপতি ইলিয়াছ বিন রিয়াছত, সাংবাদিক চেরাগ আলী, গোলাপগঞ্জ বাজার বণিক সমিতির সদস্য দেলোয়ার হোসেন মাহমুদ।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, গোলাপগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শহিদুর রহমান সুহেদ, গোলাপগঞ্জ পৌর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও গোলাপগঞ্জ বাজার বণিক সমিতির কোষাধ্যক্ষ মাহবুবুর রহমান চৌধুরী, সিলেট ওয়েল ফেয়ার এসোসিয়েশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম, মীরগঞ্জ মোজাহিরুল ইসলাম মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ছয়েফ উদ্দিন, গোলাপগঞ্জ পৌর প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ, কোষাধ্যক্ষ ফাহাদ হোসাইন, দপ্তর সম্পাদক হাবিবুর রহমান, সাংবাদিক খালেদ হোসেন, বি এইচ জুম্মান, জুবের আহমদ প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, একসময় কাকেশ্বরের নদীপথে নৌকায় মালপত্র আনা নেওয়া হতো। খরস্রোতা এ নদীটি ঢাকাদক্ষিণ বাজার থেকে পূর্বদিকে গিয়ে কুশিয়ারা নদীতে সংযুক্ত হয়েছে। অপর দিকে বাজারের পশ্চিমমুখি হয়ে দত্তরাইল, খর্দ্দাপাড়া, নিজ ঢাকাদক্ষিণ হয়ে দেওরভাগা নদীতে সংযুক্ত হয়েছে। ঢাকাদক্ষণ বাজারটি এ নদীকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছিল। বর্তমানে কাকেশ্বর নদীটি দখল করে গড়ে তোলা হয়েছে বহু অবৈধ স্থাপনা। কোথাও কোথাও ময়লা আবর্জনা ফেলে ধীরে ধীরে দখলদাররা ভরাট করে নদীর উপর বাড়ি-ঘর তৈরী করছে। এতে করে নদীটি সংকুচিত হয়ে অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে। বক্তারা অতিসত্বর নদীটি দখলমুক্ত ও খননের ব্যবস্থা করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি জোর দাবি জানান।