৩৭তম বিসিএস: নন-ক্যাডারে প্রায় সবাই নিয়োগ পাবেন

10

সবুজ সিলেট ডেস্ক:
বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের (বিপিএসসি) চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাদিক জানিয়েছেন, ৩৭তম বিসিএসে নন-ক্যাডার থেকে প্রায় সবাই নিয়োগ পাবেন। পিএসসি এ পর্যন্ত যত শূন্য পদের তালিকা পেয়েছে, তাতে প্রায় সবাই নিয়োগ পাবেন।
৩৭তম বিসিএসে ৩ হাজার ৪৫৪ জনকে নন–ক্যাডারে অপেক্ষমাণ রাখা হয়। পদ পাওয়া সাপেক্ষে তাদের নিয়োগ দেওয়ার কথা।
পিএসসি সূত্র জানায়, ১৩ মার্চ পিএসসি ৩৭তম বিসিএসের নন–ক্যাডার থেকে প্রথম শ্রেণির (নবম গ্রেড) পদে সুপারিশের ফলাফল প্রকাশ করে। এতে ৫৭৮ জনকে প্রথম শ্রেণিতে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়। এখন পিএসসি প্রথম শ্রেণির দ্বিতীয় আরেকটি তালিকা প্রকাশের প্রস্তুতি নিচ্ছে। এরপর দ্বিতীয় শ্রেণির তালিকা প্রকাশ করবে।
৩৭তম বিসিএসের অপেক্ষমাণ তালিকা থেকে নন–ক্যাডারে নিয়োগ বিষয়ে জানতে চাইলে পিএসসির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাদিক জানান, ‘শূন্য পদে পর্যাপ্ত পরিমাণ চাহিদা পেয়েছি। ক্রমান্বয়ে সেখান থেকে তাদের নিয়োগ দেওয়া হবে। একটি তালিকা প্রকাশ করেছি। ৩৮তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফলাফলের আগ পর্যন্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে। আশা করছি, এই বিসিএসের নন–ক্যাডার থেকে প্রায় সবাই নিয়োগ পাবেন।’
পিএসসির চেয়ারম্যান আরও বলেন, অপেক্ষমাণ তালিকা থেকে সর্বোচ্চসংখ্যক প্রার্থী নিয়োগ দিতে তারা চেষ্টা করেন। শর্ত না মিললে নিয়োগ দেওয়া সম্ভব হয় না। যেমন- কোনো পদের জন্য বিজ্ঞান থেকে পাস করা প্রার্থী দরকার। সেখানে বিজ্ঞানের প্রার্থী না পেলে সমাজবিজ্ঞানের প্রার্থীকে চাকরি দেওয়া সম্ভব হয় না। এভাবে বেশ কিছু প্রার্থী বাদ পড়েন।
পিএসসির একাধিক সূত্র জানায়, প্রথম শ্রেণিতে ৫০টি শূন্য পদ তাদের হাতে আছে। এতে পরিসংখ্যান কর্মকর্তার পদ আছে ২০টি, রেলওয়ের সহকারী সার্জনের পদ আছে ১২টি, পিএসসির সহকারী পরিচালক পদ আছে ২টি, প্রকৌশলীর কয়েকটি পদ আছে।
পিএসসির ওই সূত্র আরও জানায়, দ্বিতীয় শ্রেণির বেশ কিছু পদের তালিকাও তারা পেয়েছে। এর মধ্যে সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা (এআরও) ৩৮৭টি, খাদ্য পরিদর্শক ৭৫টি, এনবিআরের কর পরিদর্শক ২৭টি, ডেপুটি জেলার নারী ৭টি ও পুরুষ ২৩টি, আনসার ও সার্কেল এডজুটেন্ড ৭৫টি, সিএজি অফিসের অধিক্ষক ৮০টি, ফায়ার সার্ভিসের ১২ গ্রেডের পদে ৪৫টি এবং প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষক পদে ৩ হাজার ৭১৬টি শূন্য পদের চাহিদা রয়েছে।
প্রথম তালিকায় প্রথম শ্রেণির নন-ক্যাডার পদে সমাজসেবা অধিদপ্তরের সমাজসেবা অফিসার পদে ১৫০ জন, খাদ্য অধিদপ্তরের উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক পদে ৫২ জন, নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিসার পদে ২৩ জন, নিবন্ধন পরিদপ্তরের সাবরেজিস্ট্রার পদে ৪০ জন, পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক পদে ৩১ জনসহ সর্বমোট ৭৮ ক্যাটাগরির ৫৭৮টি পদের জন্য সুপারিশ করে ফলাফল প্রকাশ করে পিএসসি।
৩৭তম বিসিএসের বিজ্ঞাপনে ১ হাজার ২২৬ জনের কথা থাকলেও ১ হাজার ৩১৪ জনকে ক্যাডার হিসেবে নিয়োগের সুপারিশ করেছে পিএসসি। এতে সাধারণ ক্যাডার হয়েছেন ৪৬৫ জন, সহকারী সার্জন হয়েছেন ২৭২ জন, ডেন্টাল সার্জন হয়েছেন ৫১ জন। অন্যান্য কারিগরিতে ক্যাডার হয়েছেন ৩১৬ জন। শিক্ষায় ক্যাডার হয়েছেন ২১০ জন।