সিলেটের কলমদর আলীকে দুবাই ফেলে আসলো বিমান

60

সবুজ সিলেট ডেস্ক :
সিলেটের এক প্রবাসীকে দুবাই রেখেই দেশে এসেছে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইট। বিজনেস ক্লাসের টিকেট করা থাকলেও পায়ে ব্যান্ডেজ থাকায় তাকে বিমানে তুলেনি কর্তৃপক্ষ। হতভাগা এই যাত্রীর নাম কলমদর আলী। গত শুক্রবার রাতের একটি ফ্লাইটে দুবাই থেকে দেশে ফেরার কথা ছিল তার।

প্রায় ১৮ বছরে দুবাইয়ের কাজ করছেন সিলেটের কলমদর আলী। সম্প্রতী তার বাম পায়ে ইনফেকশন হয়। কর্মরত কোম্পানী তাকে চিকিৎসা করালেও ডায়বেটিস থাকার কারণে শুকাচ্ছিল না সেই ক্ষত। তাই কোম্পানী তাকে দেশে পাঠানের জন্য রিলিজ দিয়ে দিয়েছে। পুরোপুরি সেরে উঠছেন না বলে, দেশে পাঠানোর ব্যবস্থাও করে দিয়েছে কোম্পানী। স্বস্তিতে দেশে ফিরে যেতে বিমানের বিজি ২৪৮ ফ্লাইটে বিজনেস ক্লাসে টিকিট কেটে দেয় তার কোম্পানী।

বিমানবন্দরে যাওয়ার পর অসুস্থতার সকল কাগজপত্র যাচাই বাছাই করে বুকিংও শেষ করেছিলো বিমান। কিন্তু ইমিগ্রেশনের দিকে হুইল চেয়ারে যাওয়ার পথে আটকে দেয়া হয় তাকে। ফলে কলমদর আলীর বসা হয়নি সেই আরামদায়ক আসনে।

জানা গেছে- কলমদর আলী যেখানে বসা ছিলেন সেখানে হঠাৎ রক্তের ছাপ দেখতে পান বিমানের এক কর্মকর্তা। ব্যান্ডেজ থেকে মেঝেতে রক্ত লেগেছে। ততক্ষণে কলমদর আলী ইমিগ্রেশনের দিকে রওনাও হয়েছেন। বিমানের এক কর্মকর্তা তাকে ডেকে আনেন। কলমদরকে তারা বলেন- পায়ের ক্ষত ব্যান্ডেজ করা থাকলেও গোরালির নিচের অংশ ভেজা ছিলো। বিমানের বুকিং কাউন্টারের সামনের ফ্লোরে কয়েক জায়গায় সেই ভেজা ব্যান্ডেজের দাগ। তাই বিমানে তাকে তোলা যাবে না।

এই বিমানের অনেক যাত্রীই কর্মকর্তাদের অনুরোধ করেন কলমদর আলীকে নেয়ার জন্য। কিন্তু কিছুতেই রাজি হননি বিমানের কর্মকর্তারা।

শেষ পর্যন্ত অসুস্থ প্রবাসী কলমদর আলীকে দুবাই এয়ারপোর্টে রেখেই আকাশে উড়লো বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট বিজি-২৪৮।