শেষ পর্যন্ত বার্সেলোনাতেই আসছেন গ্রিজমান?

7

খেলা ডেস্ক
হন্যে হয়ে একজন স্ট্রাইকার খুঁজছে বার্সেলোনা। আতোয়াঁন গ্রিজমানকে নিয়ে আগ্রহ তাদের অনেক দিনের। ফরাসি স্ট্রাইকার অ্যাটলেটিকো ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছেন। তবে কি তিনি বার্সায় আসছেন?

গত মৌসুমে এক ভিডিও বার্তায় জানিয়েছিলেন, অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ছেড়ে কোথাও যাচ্ছেন না তিনি। সে প্রতিশ্রুতি এক মৌসুমের বেশি রাখলেন না ফরাসি স্ট্রাইকার আতোয়াঁন গ্রিজমান। গতকাল জানিয়ে দিয়েছেন, অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ছাড়ছেন তিনি। গ্রিজমানের নতুন দল হওয়ার দৌড়ে সবচেয়ে এগিয়ে বার্সেলোনা।

লুইস সুয়ারেজের ফর্ম পড়তির দিকে। গোলমুখে আগের মতো ক্ষুরধার নন তিনি। একটা গোল করলে পাঁচটা সহজ সুযোগ নষ্ট করেন। বার্সেলোনাও আস্তে আস্তে বুঝতে পারছে, ৩২ বছর বয়সী সুয়ারেজকে নিয়ে ভাবার সময় হয়েছে। দলের মূল স্ট্রাইকারের প্রশ্নে এখন অন্য কাউকে ভাবছে বার্সা। সেই ‘অন্য কেউ’ যে গ্রিজমান, সেটি জানা গিয়েছিল কয়েক মৌসুম ধরেই।

গ্রিজমানের বার্সায় আসার কথা আগেও বেশ কয়েকবার উঠেছে। কেবল গ্রিজমানই নন, টটেনহামের হ্যারি কেন, লিভারপুলের রবার্তো ফিরমিনো, আইনট্রাখট ফ্রাঙ্কফুর্টের লুকা জোভিচের নামও এসেছে। ফিলিপে কুতিনহোকে বার্সেলোনার কাছে বিক্রি করার সময় লিভারপুল শর্ত জুড়ে দিয়েছিল, ২০২০ সাল পর্যন্ত তাদের কোনো খেলোয়াড়ের দিকে চোখ তুলে তাকাতে পারবে না বার্সা। ফলে, ফিরমিনোকে নেওয়া সম্ভব ছিল না। ওদিকে লুকা জোভিচ প্রায় রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দিয়েই ফেলেছেন। টটেনহামের সভাপতি ড্যানিয়েল লেভির অর্থলোভের সঙ্গে টেক্কা দেওয়ার সামর্থ্য বার্সার ছিল না। বাকি ছিলেন গ্রিজমান। গত মৌসুমে বেশ জোরেশোরে শোনা যাচ্ছিল, অ্যাটলেটিকো ছেড়ে বার্সায় যোগ দেবেন তিনি। কিন্তু শেষ মুহূর্তে সিদ্ধান্ত বদল করে অ্যাটলেটিকোতে থেকে যান এই ফরাসি স্ট্রাইকার। সেই সিদ্ধান্তে অটল থাকলেন ঠিক এক বছর। গতকাল ঘোষণা দিলেন, অ্যাটলেটিকো ছাড়ার সময় এসেছে তাঁর।

গত মৌসুমে যত অ্যাটলেটিকোর সঙ্গে নতুন চুক্তি সই করলেন, গ্রিজমানের ‘বাই আউট ক্লজ’ ধরা হয়েছিল ২০০ মিলিয়ন ইউরো। অর্থাৎ গ্রিজমানকে কিনতে হলে আগ্রহী ক্লাবকে ২০০ মিলিয়ন ইউরো দিতেই হবে। যে ‘ক্লজ’টা আসছে জুলাই মাসের ১ তারিখ থেকে ১২৫ মিলিয়ন ইউরোয় নেমে আসবে। আর সেই সুযোগটা নেওয়ার অপেক্ষায় আছে বার্সেলোনা।

একটা আনুষ্ঠানিক ভিডিওবার্তায় অ্যাটলেটিকোর সমর্থকদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন গ্রিজমান, ‘পাঁচটা অসাধারণ বছর কাটিয়েছি আমি এখানে। সবকিছুর জন্য ধন্যবাদ। আমি আজীবন অ্যাটলেটিকোকে আমার হৃদয়ের মধ্যে রাখব। আমি অ্যাটলেটিকো ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। নতুন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে চাই আমি।’