অর্থসংকটে থমকে গেছে নগরীর উন্নয়ন কাজ পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে মেয়র ও কাউন্সিলরেরা

9

স্টাফ রিপোর্টার
নগরীর উন্নয়ন নিয়ে সিটি করপোরেশনের মেয়র, কাউন্সিলর ও কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করেছেন সিলেট-১ আসনের এমপি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন। গতকাল শুক্রবার বিকেলে নগরভবনে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় নগরীর উন্নয়ন কর্মকান্ড অব্যাহত রাখতে ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সহায়তা কামনা করেন সিটি মেয়র ও কাউন্সিলররা। মন্ত্রীও সর্বোচ্চ সহায়তা করার আশ্বাস দেন।
মতবিনিময় সভায় সিটি কাউন্সিলররা বলেন, নতুন মেয়াদে গত ৯ মাস ধরে দায়িত্ব পালন করলেও নিজেদের ওয়ার্ডে কোন কাজ কিংবা বরাদ্দ পাননি তারা। এতে এলাকার জনগণের কাছে প্রশ্নবিদ্ধ হচ্ছেন তারা। মেয়রের কাছে বার বার বরাদ্দের জন্য গেলেও ফান্ড নেই বলে তিনি ফিরিয়ে দেন।
এই সমস্যা সমাধানে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সরাসরি সহযোগিতা কামনা করেন তারা। এসময় কাউন্সিলররা আরো বলেন, আমরা নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডের সমস্যাগুলোর সমাধান করি, ওয়ার্ডবাসীর দাবিদাওয়া পূরণ করি। এর সুফল পান সংসদ সদস্য ও মেয়র। বিগত সিটি কর্পোরেশন ও সংসদ নির্বাচনে এর প্রভাব পরিলক্ষিত হয়েছে। কিন্তু এই মেয়াদে আমরা জনগণের আস্থার প্রতিদান দিতে পারছি না, মানুষের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারছি না।
এসময় মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, ‘বিগত দিনে দেশের অর্থমন্ত্রী হিসেবে আবুল মাল আব্দুল মুহিত দায়িত্ব পালনকালে যেসব বরাদ্দ সিটি কর্পোরেশনকে দিয়েছিলেন এখন শুধুমাত্র সেই কাজই চলমান আছে। নতুন মেয়াদে দায়িত্ব নেয়ার পর সিলেট সিটি কর্পোরেশনকে কোন বরাদ্দ দেয়নি অর্থ মন্ত্রণালয়। আর পূর্বের বরাদ্দগুলোর টাকা ছাড়িয়ে আনতেও অনেক বেগ পেতে হচ্ছে। এজন্য অর্থের অভাবে সিলেটের বিভিন্ন চিহ্নিত সমস্যা সমাধান করা সম্ভব হচ্ছে না। আটকে আছে উন্নয়ন কাজ।’
মেয়র ও কাউন্সিলরদের বক্তব্য শুনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, সিলেটের উন্নয়নের জন্য আমাকে যেখানে ব্যবহার করা প্রয়োজন করবেন। আজকের সভার মাধ্যমে আমি সিটি কর্পোরেশনের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে অবগত হলাম। আমি অবশ্যই এ ব্যপারে ব্যবস্থা নিব।’
প্রয়োজনে মেয়রকে সাথে নিয়ে অর্থমন্ত্রী ও পরিকল্পনা মন্ত্রীর সাথে দেখা করারও আশ্বাস দেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী।
সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধূরীর সভাপতিত্বে এই মতবিনিময় সভায় সিটি কাউন্সিলররা ছাড়াও সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিধায়ক রায় চৌধুরী, সচিব বদরুল হক, প্রধান প্রকৌশলি নুর আজিসহ উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।