যুক্তরাষ্ট্র মিশিগান বাংলাদেশী আমেরিকান ডেমোক্রেটিক ককাস(BADC) এর আয়োজনে ট্যাক্সী ক্যাব চালকদের সেইফটি ও সিকিউরিটি নিয়ে উর্ধতন পুলিশ প্রশাসনের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

9

কামরুজ্জামান (হেলাল) যুক্তরাষ্ট্র:

যুক্তরাষ্ট্র মিশিগান বাংলাদেশী আমেরিকান ডেমোক্রেটিক ককাস(BADC) এর আয়োজনে ট্যাক্সী ক্যাব চালকদের সেইফটি ও সিকিউরিটি নিয়ে উর্ধতন পুলিশ প্রশাসনের সাথে এক গুরুত্বপুর্ন মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। গত রবিবার মিশিগান ষ্টেট হ্যামট্রামিক সিটির আলাদীন রেষ্টুরেন্টে এই আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় অনুষ্ঠানে পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তা ষ্টেট ও সিটি কাউন্সিলের নির্বাচিত প্রতিনিধি, কমিউনিটির গন্যমান্য ব্যক্তি বর্গ, বিএডিসির নেতৃবৃন্দ ও স্হানীয় প্রায় ৩০ জন ট্যাক্সী ক্যাব চালক অংশগ্রহন করেন। মিশিগানে বাংলাদেশী কমিউনিটিতে গত কয়েক বছরে প্রায় চার জন ট্যাক্সীক্যাব চালক দুষ্কৃিতিকারীদের গুলিতে প্রান হারান। গত ২২শে মে ডিউটিতে থাকা অবস্হায় সর্বশেষ ক্যাব চালক জয়নুল ইসলাম প্রান হারান। অনুষ্টানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন মিশিগান ওয়েইন কাউন্টির শেরিফ (বেনি নেপোলিয়ন) ডিট্রয়েট সিটির ডেপুটি পুলিশ চীফ টড বেটিসন, বিশেষ অতিথি ছিলেন স্টেইট রিপরেসেন্টেটিভ আইজ্যাক রবিনসন, হ্যামট্রামিক সিটির সার্জেন্ট রবার্ট জর্জ। বিএডিসির প্রতিষ্ঠাতা ড. নাজমুল হাসান শাহীন মিটিং এর উদ্দেশ্য ও পরবর্তী কর্মপন্থার নিয়ে আলোচনা করেন। বিএডিসি সভাপতি জুবারুল চৌধুরী খোকন স্বাগত বক্তব্য দেন। পরিচালনায় ছিলেন বিএডিসির জেনারেল সেক্রেটারী রাহাত খান। কমিউনিটির নেতৃবর্ন্দকে পরিচয় করিয়ে দেন সহসভাপতি মুহিত মাহমুদ। মতবিনিময় সভায় সার্বিক সহযোগীতায় ছিলেন বিএডিসি সহ সভাপতি সুলাইমান বাহার, বিএডিসি ১১ ডিষ্ট্রিক কমিটির চেয়ারম্যান সাদেক রহমান (সুমন), বিএডিসি ১৩ ডিষ্ট্রিক কমিটির চেয়ারম্যান আজিজ চৌধুরী, জয়েন্ট জেনারেল সেক্রেটারী কাউসার দেওয়ান, এক্সিকিউটিভ কমিটির সেক্রেটারী আপেল খান ও জিয়াউদ্দিন জিয়া, বিএডিসি ১৪ ডিষ্ট্রিক কমিটির কো-চেয়ারম্যান নাঈম চৌধুরী, বিএডিসি নেতা হাফিজ রহমান, মোহাম্মদ সোলায়মান ও সাবুল চৌধুরী। আলোচনা শেষে বিএডিসির প্রতিষ্ঠাতা ও ট্যাক্সী ক্যাব চালকদের সেইফটি ও সিকিউরিটির এই মতবিনিময় সভার উদ্যোক্তা ড. নাজমুল হাসান শাহীন ঘোষনা করেন: ১.পুলিশ প্রশাসনের সাথে বিএডিসি সেইফটি ও সিকিউরিটির ব্যাপারে প্রত্যেক তিন মাস পর পর সংলাপের আয়োজন করবে। ২. বিএডিসি স্হানীয় প্রশাসনের সাথে রাস্তায় পর্যাপ্ত লাইটের ব্যবস্হাকরন, মসজিদ ও ধর্মীয় উপশনালয়ে সিকিউরিটি বৃদ্ধিকরণ ও ট্ক্সেী ক্যাব গাড়ীতে ক্যামেরা প্রতিস্হাপনের জন্য কাজ করবে। ৩. বিএডিসি ওয়েইন কাউন্টি শেরিফ (বেনি নেপোলিয়ের) অফিসের সাথে কমিউটি পুলিশিং ট্রিইনিং নিয়ে কাজ করবে। মতবিনিময় সভার এক পর্যায়ে ডিট্রয়েট সিটি পুলিশ ইনভিস্টিগিটর ব্রায়েন ফন্টেইন ক্যাব চালকদের সেইফটি ও সিকিউরিটির উপর ৪০ মিনিটের ট্রেনিং পরিচালনা করেন। আলোচনা সভায় বক্তারা পুলিশ প্রশাসনের অতি জরুরী সাহায্য সহযোগীতায় এগিয়ে আসা এবং নিষিদ্ধ অস্ত্র উদ্ধারে প্রশাসনের সহযোগীতা দাবী করেন। সভায় অন্যান্যের মাঝে উপস্হিত ছিলেন বিএডিসি ট্রাষ্টী ড. সিরাজুল ইসলাম ও আনোয়ার হোসেন, বিএডিসির উপদেষ্টা সৈয়দ ইকবাল হোসেন চৌধুরী ও ইউসুফ কামাল, বিএডিসির প্রতিষ্ঠাতা নেতা সেলিম আহাম্মদ ও ফয়সল চৌধুরী প্রমুখ। অন্যানের মাঝে আরো উপস্হিত ছিলেন কমিউনিটি নেতা মো: মনির, আল্লামা, এনাম আহাম্মেদ, আব্দুল হালিম, এম ডি আলম, খাজা শাহাবুদ্দিন প্রমুখ। মতবিনিময় সভায় আরো বক্তব্য রাখেন ডিট্রয়েট সিটি কাউন্সিলম্যান স্কট বেনসন, হ্যমট্রামিক সিটি কাউন্সিলম্যান এনাম মিয়া, প্রাক্তন কাউন্সিলম্যান মোহাম্মদ হাসান, কমিউনিটির নেতৃবৃন্দের মাঝে বক্তব্য রাখেন হাজী নিজাম উদ্দিন, মাওলানা আব্দুল লতিফ আজম, হাফিজ ফখরুল ইসলাম, মন্জুর খান, ট্যাক্সি ক্যাব প্রতিনিধি আব্দুল বাসেত, বাংলাদেশী ইউয়ুথদের মাঝে বক্তব্য রাখেন তাজিম চৌধুরী ও শাহ আলী প্রমুখ। উক্ত আলোচনা সভায় সকলের জন্য বিকালের চা নাস্তার ব্যাবস্থা ছিলো। এছাড়া ও সভার প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিদের সন্মানে আলাদীন রেষ্টুরেন্টে ডিনারের আয়োজন করা হয়। রেষ্টুরেন্টের স্বত্বাধিকারী মোশাররফ চৌধুরী লিটু, আলাল ও টিপু সহ কমিউনিটির সবাইকে মতবিনিময় সভাটি সাফল্যমন্ডিত করার জন্য বিএডিসি পক্ষথেকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। অনুষ্ঠান বিভিন্ন টিভি ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্তিত ছিলেন।