সুনামগঞ্জে ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বন্যাদুর্গতদের পাসে রয়েছেন শেখ হাসিনা ও তাঁর সরকার

7

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান এমপি বলেছেন, শেখ হাসিনা সুনামগঞ্জের গরিব মানুষের জন্য দুর্যোগ সহনীয় ঘর নির্মাণ করে দিয়েছেন। এ অঞ্চলে আরো ৩শ ৪০ টি দূর্যোগসহনীয় ঘর দেয়া হবে। বন্যাকবলিত এলাকায় ইতিমধ্যে ৭শ মে. টন চাল ও নগদ ১৫ লক্ষ টাকা দেয়া হয়েছে। আরো ২শ মে. টন চাল বরাদ্দ রয়েছে এ অঞ্চলের মানুষের জন্য। প্রয়োজনে সাময়িক বসবাসের জন্য বন্যার্তদের তাবুও দেয়া হবে। তিনি বলেন, ২০১৭ সালের অকাল বন্যায় সুনামগঞ্জবাসী ফসল হারিয়েছিলেন। সরকার সারা বছর তাদেরকে বিনামূল্যে চাল ও টাকা দিয়েছেন। বর্তমানেও বন্যাদূর্গত মানুষের পাসে রয়েছেন শেখ হাসিনা ও তাঁর সরকার। গতকাল বুধবার বিকেলে ছাতক উপজেলার ধারণ বাজারে ৩ ইউনিয়নের ২ হাজার বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণকালে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আয়োজিত এক সভায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, শেখ হাসিনার ভাগ্যের সাথে এদেশের মানুষের ভাগ্য জড়িত রয়েছে। তিনি ভালো থাকলে দেশের মানুষ ও ভালো থাকবে। বন্যার কারণে বাংলাদেশের মানুষ কেউ না খেয়ে মরবে না। প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব নজিবুর রহমান প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে সারা দেশের বন্যা পরিস্থিতি মনিটরিং করছেন। কাজেই সুনামগঞ্জের বন্যার্তদের বিষয়টি তিনি নিজেই দেখছেন। সুনামগঞ্জে দুর্যোগের স্থায়ী ব্যবস্থা নিতে এ অঞ্চলে ১৫শ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৯১ কি.মি. নদী খননের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে সরকার।
সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক (ভারপ্রাপ্ত) শরিফুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক, ইউপি চেয়ারম্যান বিল্লাল আহমদ এবং ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর মোস্তফা আহসান হাবীবের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় আরো বক্তব্য রাখেন মুহিবুর রহমান মানিক এমপি, ড. জয়াসেন গুপ্তা এমপি, ছাতক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান।
সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রনালয়ের মহা-পরিচালক আবু সাঈদ হাসেম, সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ শাহ কামাল, সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাপস শীল, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আবু শাদাত লাহিন, মহিলা ভাইস চেয়াম্যান লিপি বেগম, ইউপি চেয়ারম্যান আখলাকুর রহমান, আব্দুল মছব্বির। সভায় ইউপি চেয়ারম্যান গয়াছ আহমদ, আওলাদ হোসেন মাস্টার, মুরাদ হোসেন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ওবায়দুর রউফ বাবলু, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক তজম্মুল হক রিপনসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, শ্রমিক লীগ ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।