জামালগঞ্জে বাবা-ছেলে ও কোম্পানীগঞ্জে কিশোর বজ্রপাতে নিহত

10

স্টাফ রিপোর্টার
জামালগঞ্জ উপজেলার পাগনার হাওরে মাছ ধরতে গিয়ে বাবা-ছেলে ও কোম্পানীগঞ্জে বজ্রপাতে এহসানুল ইসলাম (১৩) নামে আরেক জনের মৃত্যু হয়েছে।
জামালগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, জামালগঞ্জে হাওরে মাছ ধরতে গিয়ে বাবা-ছেলের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকালে উপজেলার পাগনার হাওরে এ ঘটনা ঘটে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয়াঙ্কা পাল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
নিহতরা হলেন, বানু হোসেন (৪০) ও তার ছেলে সুমন মিয়া (১১)। তাদের বাড়ি উপজেলার ফেনারবাক ইউনিয়নের শান্তিপুর গ্রামে।
ইউএনও প্রিয়াংকা পাল জানান, শুক্রবার সকালে পাগনার হাওরে মাছ ধরতে যান বাবা ও ছেলে। এ সময় বৃষ্টি হচ্ছিল। হঠাৎ বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই মারা যান বাবা-ছেলে। পরে স্থানীয় লোকজন তাদের লাশ উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসে। ময়নাতদন্ত ছাড়াই পরিবারের লোকজন লাশ দাফন করতে পারবে বলেও জানান তিনি।
এদিকে কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, কোম্পানীগঞ্জে বজ্রপাতে এহসানুল ইসলাম (১৩) নামে এক স্কুল ছাত্র নিহত হয়েছেন। সে উপজেলার পাড়ুয়া লামাপাড়া গ্রামের শামসুল হকের ছেলে ও পাড়ুয়া আনোয়ারা উচ্চবিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজের ৮ম শ্রেণীর ছাত্র। গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাতে বৃষ্টি নামতে পারে এমন আশঙ্কা থেকে ধান ক্ষেতে জমিনের পানি ছেড়ে দেওয়ার কাজ করছিলেন বাবা শামসুল হক ও ছেলে এহসানুল ইসলাম ।
সেময় হঠাৎ বজ্রপাত হলে ছেলে এহসানুল ঘটনাস্থলেই মারা যান ও বাবা শামসুল হক কিছুটা আহত হন। তবে বর্তমানে তিনি সুস্থ আছেন। কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি তাজুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।