সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকার পুঁজি ফিরে পেল বিনিয়োগকারীরা

10

 

সবুজ সিলেট ডেস্ক
সূচক, লেনদেন ও বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারে দাম বৃদ্ধির মধ্যে দিয়ে আরও একটি সপ্তাহ পার করল দেশের দুই পুঁজিবাজার। ফলে বিনিয়োগকারীরাও তাদের হারানো সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকার পুঁজি ফিরে পেয়েছেন।
এর মধ্যে প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) বিনিয়োগকারীদের পুঁজি বেড়েছে ১ হাজার ৭১৭ কোটি ৭৭ লাখ ৩ হাজার টাকা। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) বিনিয়োগকারীদের মূলধন বেড়েছে ১ হাজার ৭৮০কোটি ৭৮ লাখ ৬ হাজার টাকা। সব মিলে ৩ হাজার ৪৯৮ কোটি ৫৫লাখ ৯ হাজার টাকা।
সাড়ে ২৫ লাখ বিনিয়োগকারীরা এই টাকা ফিরে পেয়েছেন। এর আগের সপ্তাহে ৩ হাজার কোটি টাকার পুঁজি ফিরে পেয়েছেন। তবে তার আগের সপ্তাহে পুঁজি কমেছিল আট হাজার কোটি টাকা।
এ দিন দরপতন আর চারদিন উত্থানের (২৮ জুলাই-১আগস্ট) মধ্য দিয়ে পার হওয়া গত সপ্তাহে দেশের দুই পুঁজিবাজারেই লেনদেন হয়।
এই সময় ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের সপ্তাহের চেয়ে ৩৬ পয়েন্ট বেড়ে পাঁচ হাজার ১৬৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএস-৩০ সূচক ২দশমিক ৩১ পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ৮৩৮ পয়েন্ট এবং ডিএসইএস সূচক ১৮ পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ১৯২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।
লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে ১৮২ কোম্পানির শেয়ারের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে, কমেছে ১৫৪টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৮টি কোম্পানির শেয়ারের দাম।
এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৫৩টির, কমেছে ১৮৫টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৬ কোম্পানির শেয়ারের দাম।
সূচক ও আগের সপ্তাহের চেয়ে অনেক কোম্পানির শেয়ারের দাম বাড়ায় বিনিয়োগকারীরাও লেনদেনে ফিরছে। ফলে বিদায়ী সপ্তাহের চেয়ে লেনদেন ২০৩ কোটি টাকা বেড়েছে। যা শতাংশের হিসেবে দাঁড়িয়েছে ১০ দশমিক ২০ শতাংশ।
গত সপ্তাহে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে এক হাজার ২০২ কোটি ২৩ লাখ ৯ হাজার ৪৫৫ টাকা। এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল এক হাজার ৯৯৮ কোটি ৪২ লাখ ২৪ হাজার ৫৩১ টাকা।
সিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ১৫৬টির, কমেছে ১৪১টির, আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২১ কোম্পানির শেয়ারের দাম। তাতে সিএসইর প্রধান সূচক ৮৫পয়েন্ট বেড়ে ১৫ হাজার ৭৯৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।
আর তাতে গত সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ৯৫ কোটি ৭৪ লাখ ৫১ হাজার ৫১৭টাকা। এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৯৬ কোটি ১৮ লাখ ২৬ হাজার ৫৩১টাকা।