ইসিতে অগ্নিকাণ্ড: তদন্ত প্রতিবেদন বৃহস্পতিবার

12

রোববার রাতে ঢাকার আগারগাঁওয়ে ভবনের বেইজমেন্টে অগ্নিকাণ্ডের পর ইসি চার সদস্যের এই কমিটি গঠন করে। তাদের তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

ইসির অতিরিক্ত সচিব মোখলেসুর রহমান নেতৃত্বাধীন এই কমিটি মঙ্গলবার প্রথম সভায় বসে।

সভা শেষে তিনি  বলেন, “আজ কমিটির সবাইকে নিয়ে প্রথম সভা করেছি। কাল আরেকবার বসব। বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশনে এ প্রতিবেদন জমা দেব।”

১২ তলা এই ভবনের বেইজমেন্টে আগুন বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে লেগেছিল বলে ধারণা করছেন ইসি কর্মকর্তারা।

এ বিষয়ে প্রশ্ন করলে মোখলেসুর বলেন, “এখনই কিছু বলা সম্ভব হবে না।  কমিটির কাজ চূড়ান্ত হলে ও প্রতিবেদন পেশ করেই সব কিছু জানানো হবে।”

তদন্ত কমিটিতে আরও রয়েছেন- জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম, গণপূর্তের ই/এম বিভাগ-৮ এর নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল হালিম, গণপূর্ত বিভাগ-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী শাহ ইয়ামিন-উল-ইসলাম ও ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের প্রতিনিধি। কমিটির সদস্য সচিবের দায়িত্বে রয়েছেন ইসির সহকারী সচিব (সেবা-২) খ ম আরিফুল ইসলাম।

কমিটির কাজ হচ্ছে- অগ্নিকাণ্ড সংঘটিত হওয়ার কারণ ও উৎস নির্ণয়; অগ্নিকাণ্ডের ফলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণ (আর্থিক মূল্যসহ) এবং ভবিষ্যতে এই ধরনের অগ্নিকাণ্ড যাতে না ঘটে সে সংক্রান্ত সুপারিশ প্রণয়ন।

অগ্নিকাণ্ডে অর্ধ শত কোটি টাকার মতো ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণার কথা আগেই জানিয়েছেন এনআইডি উইংয়ের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার সাইদুল।

ইসির এই ভবনে ভোটারদের ডেটাবেইজের তথ্য সংরক্ষিত রয়েছে ১১ তলায়। ভবনের নিচ তলায় ইভিএম সংরক্ষণ করা হয়। আগুনে কিছু ইভিএম পুড়েছে।

ব্রিগেডিয়ার সাইদুলের ভাষ্য অনুযায়ী, ইভিএমের অন্তত দুই ডজন যন্ত্রাংশ, দুই জোড়া শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র ও বৈদ্যুতিক তার পুড়েছে এই অগ্নিকাণ্ডে।

আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত এই ভবনের সবখানে ফায়ার এলার্ম রয়েছে। প্রতি তলায় অগ্নিনির্বাপনের ফায়ার হাইড্রেন্ট রয়েছে। আগুন লাগলে কোথাও কোথাও স্বয়ংক্রিয়ভাবে পানি ছিটানোর (ফায়ার স্প্রিংকলার) ব্যবস্থাও রয়েছে।

তবে রোববার আগুন লাগার সময় এসব ব্যবস্থা কাজ করছিল কি না, তা সংশ্লিষ্ট কেউ বলতে পারেননি।

স্পর্শকাতর নির্বাচন ভবনে অগ্নিকাণ্ড তদন্তে ফায়ার সার্ভিসও একটি তদন্ক কমিটি গঠন করেছে।

বাহিনীর মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজ্জাদ হোসাইন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেছেন, ইসির তদন্ত কমিটির পাশাপাশি তাদের তদন্তও চলছে।

তিনি বলেন, অগ্নি নির্বাপন ব্যবস্থা নির্বাচন ভবনে কেমন ছিল, যা ছিল তা কাজ করেছে কি না, কী কী অসঙ্গতি পাওয়া গেছে, তা ফায়ার সার্ভিসের প্রতিবেদনে থাকবে। আগামীতে কী করণীয় ও প্রয়োজনীয় সুপারিশগুলোও তারা দেবেন।