ড্রোন পরিচালনা ও আমদানি নীতিমালা চূড়ান্ত পর্যায়ে: প্রতিমন্ত্রী

5

ড্রোন পরিচালনা ও আমদানির জন্য নীতিমালা চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী। আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তরে প্রতিমন্ত্রী এ তথ্য জানান।

সরকারি দলের মোরশেদ আলমের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী বলেন, কিছু উৎসাহিত ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান বিনা অনুমতিতে বাংলাদেশের আকাশসীমায় আনম্যান্ড এরিয়েল ভেহিক্যাল সিস্টেম, রিমোট কন্ট্রোল বিমান বা খেলনা বিমান ইত্যাদি ওড়াচ্ছে। এতে দেশি-বিদেশি বিমান, হেলিকপ্টার এবং দ্রুতগতি সম্পন্ন সামরিক বিমানের সঙ্গে আকস্মিক দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

দেশে কী পরিমাণ ড্রোন রয়েছে তার তথ্য সরকারের কাছে নেই উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী জানান, ড্রোন পরিচালনা ও আমদানির বিষয়ে নীতিমালা তৈরি চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। এই নীতিমালায় ড্রোনের আকার, রেজিস্ট্রেশন ও উড্ডয়ন সম্পর্কিত তথ্যাদিসহ অন্যান্য তথ্য অন্তর্ভুক্ত থাকবে। নীতিমালা প্রকাশের পর ড্রোন সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য রাষ্ট্রীয়ভাবে সংরক্ষিত থাকবে।

ওয়াসিকা আয়শা খানের প্রশ্নের জবাবে বিমান প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী বলেন, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বিমানের আয় ৫ হাজার ৭৯০ কোটি টাকা। অন্যদিকে ব্যয় ৫ হাজার ৫১৮ কোটি টাকা।

রুমিন ফারহানার প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, উড়োজাহাজের জ্বালানি তেলের দাম ২৫ শতাংশ বৃদ্ধি, উড়োজাহাজের লিজ খরচ বৃদ্ধি, বৈদেশিক ঋণের সুদ বাবদ খরচ বৃদ্ধি, বৈদেশিক মুদ্রার বিনিময় হার বৃদ্ধি এবং ক্রুদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধি পাওয়ায় ২০১৭-১৮ সালে বিমানের লোকসান হয়েছে।

ইউক্যালিপটাস গাছ কেটে ফেলা হবে
ইউক্যালিপটাসসহ পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর গাছ কেটে ফেলার উদ্যোগের কথা জানিয়েছেন বন, পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন উপমন্ত্রী হাবিবুন্নাহার। সরকারি দলের সংসদ সদস্য শহীদুজ্জামান সরকারের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী এ উদ্যোগের কথা জানান।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আকাশমণি ও ইউক্যালিপটাশের মতো পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর গাছগুলো নানা আকর্ষণ থেকেই মানুষ অনেক আগেই লাগিয়েছে। তবে মানুষ এখন সচেতন। বিগত কয়েক বছরে মনে হয় না কেউ এসব গাছ লাগিয়েছেন। যে গাছগুলো আছে তা কেটে ফেলার বিষয়ে মন্ত্রণালয়ে আলোচনা হয়েছে। আমরা পরিবেশবান্ধব নয়, এমন গাছগুলো যাতে তাড়াতাড়ি অপসারিত হয়, সেই উদ্যোগ নেব।

বাংলাদেশের জলবায়ু সহিষ্ণুতা বেড়েছে
ওয়ার্কার্স পার্টির লুৎফুন নেসা খানের প্রশ্নের জবাবে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন বলেন, বর্তমানে সরকার নিয়ন্ত্রিত বনভূমির পরিমাণ ৬৩ লাখ ৬৮ হাজার ৭৬৫ দশমিক ৬৭ একর। এটি মোট আয়তনের প্রায় ১৫ দশমিক ৫৮ শতাংশ। আর দেশের বৃক্ষ আচ্ছাদিত ভূমির পরিমাণ মোট আয়তনের ২২ দশমিক ৩৭ শতাংশ।

মোয়াজ্জেম হোসেনের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ২০১৬ সালে জলবায়ুর ঝুঁকিপূর্ণ সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ছয় নম্বরে। ২০১৯ সালে সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান সাত নম্বরে। সরকার প্রতিনিয়ত উদ্যোগ গ্রহণ করার ফলে বাংলাদেশের জলবায়ু সহিষ্ণুতা কিছুটা বেড়েছে।

নুরুন্নবী চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে শাহাব উদ্দিন বলেন, সারা দেশে বনভূমির পরিমাণ ৬৩ লাখ ৬৮ হাজার ৭৬৫ একর।

আজ সংসদে বন ও পরিবেশ মন্ত্রীর অনুপস্থিতিতে প্রশ্নের জবাব দেন উপমন্ত্রী হাবিবুন্নাহার। মকবুল হোসেনের এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘নিয়ম অনুযায়ী সিটি করপোরেশনগুলোর আবর্জনার ট্রাক রাতে চলাচল করার কথা। কিন্তু কিছু কিছু করপোরেশন গাফিলতি করে দিনে পরিবহন করে। করপোরেশনগুলোর কাছে আমাদের অনুরোধ, ময়লা রাতে অপসারণ করেন।’

জাতীয় পার্টির পীর ফজলুর রহমান প্রশ্ন করেন, জলবায়ু ফান্ডের টাকায় কর্মকর্তারা বিদেশ সফর করছেন, এটা সত্য কি না? জবাবে হাবিবুন্নাহার বলেন, ‘যে ফান্ডের টাকায় বিদেশ সফরের কথা বলা হচ্ছে সেখানে টাকার পরিমাণ বেশি নেই। আমি অল্প কিছুদিনে দেখেছি, কেউ বিদেশ যাননি। বিদেশে যারা যাচ্ছেন তারা বিদেশের ফান্ডে যাচ্ছেন।’

মুক্তিযুদ্ধ কল্যাণ ট্রাস্টের ১৭টি প্রতিষ্ঠান আছে
নিজাম উদ্দিন হাজারীর প্রশ্নের জবাবে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক জানান, মুক্তিযুদ্ধ কল্যাণ ট্রাস্টের ৭০ দশমিক ৪৬৮৬ একর জমি ও ১৭টি প্রতিষ্ঠান আছে। মুক্তিযুদ্ধ কল্যাণ ট্রাস্টের ৬টি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে পূর্ণিমা ফিলিং স্টেশন ছাড়া অন্যগুলো বন্ধ আছে। বন্ধ প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে কয়েকটি জমি স্বল্প মেয়াদে ভাড়া দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া চট্টগ্রামের নাসিরাবাদের মেটাল প্যাকেজেস লিমিটেডের জমি বিক্রি করা হয়েছে। তবে জমির দলিল বাতিলের জন্য মামলা চলছে।

দিদারুল আলমের প্রশ্নের জবাবে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী জানান, দেশে গেজেটভুক্ত নারী মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা ৩২২ জন।

সৈয়দা রুবিনা আক্তারের প্রশ্নের জবাবে আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, নতুনভাবে করা মুক্তিযোদ্ধার তালিকা যাচাই-বাছাই করার জন্য জেলা, উপজেলা ও মহানগর পর্যায়ে ৪৭০টি কমিটি করা হয়েছিল। এর মধ্যে ৩৭৫টি কমিটি যাচাই-বাছাই করে প্রতিবেদন দিয়েছে। হাইকোর্টে রিট আবেদন, কমিটির ভেতরে দ্বন্দ্ব ও অন্যান্য কারণে ৯৫টি কমিটি প্রতিবেদন দিতে পারেনি।

শান্তিরক্ষা মিশনে সশস্ত্র বাহিনীর ৫ হাজার ৮৫৬ সদস্য
রুমানা আলীর প্রশ্নের জবাবে সংসদ কাজে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী আনিসুল হক জানান, বিশ্বের ৮টি দেশে ৯টি শান্তিরক্ষা মিশনে সশস্ত্র বাহিনীর ৫ হাজার ৮৫৬ জন সদস্য নিয়োজিত আছেন। এর মধ্যে সেনাবাহিনীর ৫ হাজার ৪৯ জন, নৌবাহিনীর ৩৪৫ জন ও বিমানবাহিনীর ৩৪৫ জন। প্রতি সদস্যের বিপরীতে জাতিসংঘ বৈদেশিক ভাতা বাবদ মাসে ১৪২৮ মার্কিন ডলার (৮৫ টাকার এক ডলার হিসেবে ১,২১,৩৮০ টাকা) প্রদান করে। বৈদেশিক ভাতার প্রাপ্ত অর্থ থেকে ৯০ শতাংশ শান্তিরক্ষীদের মাঝে বিতরণ করা হয় এবং ১০ শতাংশ সরকারি কোষাগারে জমা করা হয়।

প্রশ্নোত্তর পর্বের আগে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বিকেল পাঁচটার পর সংসদের অধিবেশন শুরু হয়।