হেরেই চলেছে পাকিস্তান

7

ওয়ানডে সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জয়ের পর টি-টোয়েন্টিতেও পাকিস্তান জয়রথ ছোটাতে চেয়েছিল। নিজেদের মাটিতে খেলা, আর সামনে শ্রীলঙ্কা দল। নিরাপত্তা শঙ্কায় মূল খেলোয়াড়দের অধিকাংশই যে পাকিস্তানে যাননি। কিন্তু সে শ্রীলঙ্কার সঙ্গেও টি-টোয়েন্টিতে পেরে উঠছে না পাকিস্তান। লাহোরে আজ ৩৫ রানে হেরে গেছে স্বাগতিকেরা। টানা দুই ম্যাচে হেরে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ হেরে গেল পাকিস্তান।

প্রথম ম্যাচে ১৬৫ তাড়া করতে নেমে ১০১ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল সরফরাজ আহমেদের দল। আজ অতটা খারাপ অবস্থা হয়নি তাদের। ১৮৩ রানের লক্ষ্যে এক ওভার আগেই ১৪৭ রানে থেমেছে পাকিস্তান। তবে গত ম্যাচের চেয়েও বড় ব্যবধানে হারতে পারত তারা। যদি না ইমাদ ওয়াসিম ও আসিফ আলী বাঁধা হয়ে না দাঁড়াতেন।

১১ রানে দুই ওপেনার হারানো পাকিস্তান ৫২ রানেই ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল। এর মাঝে প্রথম বলেই আউট হয়ে টি-টোয়েন্টিতে শূন্য রানে আউট হওয়ার বিশ্ব রেকর্ড ছুঁইয়ে ফেলেছেন উমর আকমল। এমন অবস্থায় দলকে ভরসা দেন ইমাদ ও আসিফ। জুটি বাঁধার সময় ১২ ওভারে ১৩১ রানের লক্ষ্য পেয়েছিলেন দুজন। ১৬তম ওভারে যখন আউট হলেন ইমাদ, লক্ষ্যটা ২৫ বলে ৫৬ রানে নেমে এসেছিল। ২৯ বলে ৪৭ রান করেছেন ইমাদ।

অন্যপ্রান্তে আসিফ খেলেছেন ওয়ানডে মেজাজে (২৭ রানে ২৯)। টেল এন্ডাররা কেউই পারেননি প্রয়োজনীয় গতিতে রান তুলতে। ফলে ১৯তম ওভারের শেষ বলে যখন আউট হয়েছে আসিফ, জয় তখনো ৩৬ রান দূরে।

এর আগে ভানুকা রাজাপাস্কার প্রথম ফিফটিতে ১৮২ রান তুলেছিল শ্রীলঙ্কা। ২৭ বছর বয়সী বাঁহাতি তিনে নেমে ৪৮ বলে ৭৭ রান তুলেছেন। চারটি চারের সঙ্গে ছয়টি ছক্কা ছিল তাঁর ইনিংসে। শেহান জয়াসুরিয়া ২৮ বলে ৩৪ রান তুলেছেন। ১৫ বলে ২৭ রান করেছেন দাসুন শানাকা। বোলিংয়ে ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা ৩৮ রানে ৩ উইকেট তুলে পাকিস্তানের মেরুদণ্ড ভেঙে দিয়েছেন। টেল এন্ড ধসিয়ে দেওয়া নুয়ান প্রদীপ ২৫ রানে ৪ উইকেট পেয়েছেন।