কাল রাতে আকাশপথে আসছে পেঁয়াজ

44

পেঁয়াজের প্রথম চালান আগামীকাল বুধবার রাতে আকাশপথে মিসর থেকে আসবে। ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সৌদিয়া এয়ারলাইনসের যাত্রীবাহী উড়োজাহাজে প্রথম এই চালানটি এসে পৌঁছাবে। পরদিন বিসমিল্লাহ এয়ারলাইনসের পণ্যবাহী উড়োজাহাজে দ্বিতীয় চালান আসবে। আগামী শুক্রবার তৃতীয় চালান আসবে সৌদিয়া এয়ারলাইনসের যাত্রীবাহী উড়োজাহাজে। এস আলম গ্রুপ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

গ্রুপটি জানায়, আজ মঙ্গলবার আকাশপথে প্রথম চালান আসার কথা ছিল। কিন্তু প্রক্রিয়া শেষ করতে দেরি হওয়ায় আজ আসছে না। আকাশপথে মিসরের কায়রো বিমানবন্দর থেকে সৌদি আরবের জেদ্দা হয়ে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রথম চালান পৌঁছাবে। রাত ১২টার দিকে এই চালান পৌঁছাবে। পণ্যবাহী উড়োজাহাজের শিডিউল পেতে দেরি হওয়ায় দ্রুত সংকট মেটাতে প্রথম চালান যাত্রীবাহী উড়োজাহাজে আনা হচ্ছে।

এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যান সাইফুল আলম মাসুদ তিন দিন আগে  জানিয়েছিলেন, মিসর থেকে সমুদ্রপথে পেঁয়াজের চালান চট্টগ্রাম বন্দরে না পৌঁছানো পর্যন্ত আকাশপথে ধারাবাহিকভাবে পেঁয়াজের চালান আনা হবে। এসব পেঁয়াজ সরকারি সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশকে (টিসিবি) হস্তান্তর করা হবে।

আকাশপথে পেঁয়াজের প্রথম চালান আনার জন্য উদ্ভিদ সঙ্গনিরোধ কেন্দ্র থেকে প্রাথমিকভাবে ২৭৫ টন পেঁয়াজের অনুমতি নিয়েছে এস আলম গ্রুপ। গত রোববার চালানটির অনুমোদন নেওয়া হয়। আকাশপথ ছাড়াও সমুদ্রপথে মিসর থেকে ৫৫ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানির জন্য গত ৩০ অক্টোবর উদ্ভিদ সংঘ নিরোধ কেন্দ্র থেকে অনুমোদন নিয়েছিল গ্রুপটি। সমুদ্রপথে পেঁয়াজের চালান আসতে দেরি হওয়ায় আকাশপথেও আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে গ্রুপটি।

ঢাকা কাস্টমসের সহকারী কমিশনার সাজ্জাদ হোসেন আজ মঙ্গলবার বলেন, আকাশপথে পেঁয়াজের চালান আসামাত্রই তা দ্রুত শুল্কায়ন করে ছাড় করানো হবে। এ জন্য প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নেওয়া আছে।

পেঁয়াজের চালান খালাসের আগে উদ্ভিদ সঙ্গনিরোধ কেন্দ্র থেকে পোকামাকড়মুক্ত থাকার ছাড়পত্র নিতে হয়। শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের উদ্ভিদ সঙ্গনিরোধ কেন্দ্রের উপপরিচালক রতন কান্তি সরকার প্রথম আলোকে বলেন, ছাড়পত্র যাতে দ্রুত দেওয়া হয়, সে জন্য প্রস্তুত আছেন তাঁরা।