মিসাইল দিয়ে শুভেচ্ছা!

5

সবুজ সিলেট ডেস্ক
নতুন নতুন মিসাইল পরীক্ষা চালানোয় ওস্তাদ উত্তর কোরিয়া। কিছু দিন পর পর তারা নতুন নতুন মিসাইল পরীক্ষা চালিয়ে আসছে দেশটি। যার ফলে দেশটির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়ে আসছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।
গত বৃহস্পতিবার আবার দুইটি স্বল্প পরিসরের মিসাইল পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া। দেশটির যৌথ চিফ অব স্টাফ (জিসিএস) এক সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।
তিনি জানান, স্থানীয় সময় বিকাল পাঁচটার দিকে দেশটির উত্তর পূর্ব উপকূলে রায়নপো থেকে সাগরের দিকে দুটি মিসাইল ছোড়া হয়।
তবে কাউকে হামলা করার জন্য মিসাইল দুটি ছোড়েনি উত্তর কোরিয়া। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বিদ্রæপভাবে শুভেচ্ছা জানাতে ছোড়া হয় মিসাইলগুলো। অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে উত্তর কোরিয়ার আবেদনে যুক্তরাষ্ট্র সাড়া না দেওয়ায় ট্রাম্পকে এভাবেই শুভেচ্ছা জানিয়েছে দেশটি।
জিসিএস থেকে জানানো হয়, উত্তর কোরিয়া থেকে এই জাতীয় পদক্ষেপ কোরিয়ান উপদ্বীপের উপর উত্তেজনা নিরসনে প্রয়াসকে সহায়তা করবে না।
এদিকে পিয়ংইয়ংয়ের এই পদক্ষেপকে আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক হুমকি বলে অভিহিত করেছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘উত্তর কোরিয়ার এসব কার্যকলাপ নিয়ে আমরা যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ কোরিয়া ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করব।’ এছাড়া জাপানি জনগণের সুরক্ষা ও সম্পদ সংরক্ষণের জন্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করা হবে বলে জানান জাপানের প্রধানমন্ত্রী।
পিয়ংইয়ং ও ওয়াশিংটনের সঙ্গে আলোচনা ভেস্তে যাওয়ার পর থেকে আরও বেশি আগ্রাসী হয়ে উঠেছে উত্তর কোরিয়া। এর আগে পিয়ংইয়ং থেকে হুঁশিয়ার দিয়ে বলা হয়, আমাদের ধৈর্য ক্রমেই ফুরিয়ে আসছে। আর যুক্তরাষ্ট্রকে তাদের নীতি থেকে বের হয়ে সংলাপ করতে এ বছরের শেষ পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছিল উত্তর কোরিয়া।
এর আগে চলতি মাসের শুরুর দিকে উত্তর কোরিয়া অভিযোগ করে বলে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে যৌথ মহড়ায় অংশ নিয়ে আমাদের সঙ্গে বেঈমানি করেছে। তারা তাদের প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করেছে। যার ফলে চলতি বছরের এপ্রিল থেকে এক ডজনেরও বেশি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে পিয়ংইয়ং।
উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করতে ট্রাম্পকে আহ্বান জানিয়েছেন। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র বলা হয়, উত্তর কোরিয়া চাপ নিরসনকে ন্যায়সঙ্গত করতে পর্যাপ্ত নিরস্ত্রীকরণ পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি।
তবে বার্তা প্রদানের জন্য মিসাইল ব্যবহার করা নতুন নয় উত্তর কোরিয়ার জন্য। এর আগে ২০১৭ সালের ৪ জুলাই যুক্তরাষ্ট্রের ছুটির দিনে একটি বার্তা দিতে ব্যালিস্টিক মিসাইল চালায় উত্তর কোরিয়া।