প্রশাসনের কাছে অভিযোগ । সড়ক আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলনের প্ররোচনা দিচ্ছেন জাকারিয়া

18

সিলেট জেলা সিএনজিচালিত অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের (রেজি. নম্বর ৭০৭)-এর সভাপতি মো. জাকায়িার বিরুদ্ধে সিলেটের জেলা প্রশাসক ও মহানগর পুলিশ কমিশনারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন সিলেট জেলা অটো টেম্পো, অটোরিকশা শ্রমিক জোট (রেজি. নম্বর-২০৯৭)-এর নেতৃবৃন্দ। গতকাল বুধবার নেতৃবৃন্দের পক্ষে এই অভিযোগ দাখিল করেন সংগঠনের কার্যকরী সভাপতি মো. মতছির আলী।
অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, সিলেট জেলা সিএনজি অটোরিকশা শ্রমিকদের কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য শ্রম অধিদপ্তর দুটি শ্রমিক ইউনিয়নের অনুমোদন প্রদান করে। এ দুটি শ্রমিক ইউনিয়ন হলো-সিলেট জেলা অটো টেম্পো, অটোরিকশা শ্রমিক জোট (রেজি. নম্বর-২০৯৭) ও সিলেট জেলা সিএনজি চালিত অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়ন (রেজি. নম্বর-৭০৭)। প্রাথমিক অবস্থায় দুই সংগঠনই শান্তিপূর্ণভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল। কিন্তু কিছুদিন যাবৎ শ্রমিক ইউনিয়ন ৭০৭ এর কেন্দ্রীয়, স্থানীয় নেতৃবৃন্দ শ্রমিকদের নির্যাতন-নিপীড়ন শুরু করেন। এ অবস্থায় ৭০৭ এর নেতৃবৃন্দ হিংসাত্মকভাবে শ্রমিকদেরকে নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে নাজেহাল এবং বিভিন্ন স্থানে অন্যায়ভাবে চাঁদা আদায় করে হয়রানি শুরু করেন। বর্তমানে ৭০৭-এর সভাপতি মো. জাকারিয়া ২০৯৭ এর শ্রমিকদের জোরপূর্বক সড়ক পরিবহণ আইন ২০১৮-এর বিরুদ্ধে আন্দোলনে অংশগ্রহণের চাপ সৃষ্টি করছেন। তিনি প্রকাশ্যে সরকারের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিরুদ্ধে অসৌজন্যমূলক বক্তব্য দিয়ে আসছেন। আবেদনে ৭০৭ এর নেতৃবৃন্দ কর্তৃক বিভিন্ন পয়েন্টে অন্যায়ভাবে চাঁদা আদায়সহ হয়রানি ও নির্যাতন থেকে রক্ষা পেতে ২০৯৭ এর নেতৃবৃন্দ প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেছেন।
এ ব্যাপারে সিলেট জেলা অটো টেম্পো, অটোরিকশা শ্রমিক জোটের কার্যকরী সভাপতি মো. মতছির আলী বলেন, অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জাকারিয়া স¤প্রতি সড়ক পরিহণ আইনের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে আমাদের সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে আন্দোলনে অংশগ্রহণের জন্য চাপ সৃষ্টি করছেন। গত ২ ডিসেম্বর এর প্রতিবাদে আমরা সিসিক মেয়রের কাছে আবেদন করি। বিষয়টি জানতে পেরে জাকারিয়ার নির্দেশে তার লোকজন সিটি কর্পোরেশনের সামনে আমাদের উপরে হামলা চালান এবং পরে দক্ষিণ সুরমার রেল গেইটস্থ ভুইয়ার পাম্পের সামনে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে অতর্কিত হামলা চালিয়ে আমাদের শ্রমিকদের গুরুতর আহত করেন। আহতদের অনেকে এখনো চিকিৎসাধীন। বিজ্ঞপ্তি