বন বিভাগ জানিয়েছে জনবল সংকট । নগরীর জামতলায় বানরের হানায় ৩ শিক্ষার্থী আহত

10

স্টাফ রিপোর্টার
নগরীর জামতলা মহল্লায় বানরের আক্রমণে বাসাবাড়ির লোকজন ও শিক্ষার্থীরা ঘর থেকে বের হতে পারছেন না। বাসা থেকে বের হলেই বানরের আক্রমণের শিকার হতে হয় সবাইকে। বানরের ভয়ে শিক্ষার্থীরা স্কুল-কলেজে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে অনেকে। ইতোমধ্যে ৩ জন শিক্ষার্থীকে আক্রমণ করে কামড়ে দিয়েছে বানর।
মাস দুয়েক ধরে জামতলা মহল্লায় ২টি বানরের আনাগোনা দেখা যায়। এর পর থেকে দিন দিন বানরের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিদিন বানরগুলো বাসাবাড়ির ছাদে, আঙিনায় ও বারান্দায় চলাচল করে। প্রথমদিকে বানরগুলো শিশুদের ভয় দেখালেও ইদানীং বড়দেরও আক্রমণের চেষ্টা করে। ২০ দিন আগে জামতলার বাসিন্দা অ্যাডভোকেট রকিব আলীর মেয়ে, স্টুডেন্ট হোম স্কুলের নার্সারির ছাত্রী তাসনিয়া তাবাচ্ছুমকে স্কুলে যাওয়ার জন্য বাস থেকে বের হলে বাসার আঙিনায় এবং ওইদিন একই স্কুলের ছাত্র জারিফকে বানর কামড়ে দেয়। ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ইনজেকশন দেয়া অবস্থায় আবারও গত সপ্তাহে তাসনিয়া তাবাচ্ছুমকে বানর কামড়ে দেয়। গত মাসে সিলেট পাইলট স্কুলের ছাত্র মাহফুজুর রহমানকে কামড়েছে।
বানরের আক্রমণে অতিষ্ঠ হয়ে জামতলাবাসী ৯৯৯ নাম্বারে ফোন করলে সিলেট বন বিভাগের জিএম আবু বকরের নির্দেশে গত ২ ডিসেম্বর ৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল জামতলায় যায়। মহল্লাবাসী বানর ধরা জন্য বন বিভাগের সহযোগিতা চাইলে তারা বলেন, বন অফিসে জনবল সঙ্কট রয়েছে।