যুক্তরাষ্ট্র মিশিগান স্টেট হ্যামট্রামিক সিটিতে বাংলাদেশী আমেরিকান ডেমেক্রেটিক ককাস এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো আবু হানিফ সেন্সাস ২০২০ রোড শো 

108

কামরুজ্জামান (হেলাল)

যুক্তরাষ্ট্র:

মিশিগান বাংলাদেশী আমেরিকান ডেমেক্রেটিক ককাস (এমআই বি এ ডি সি) এর উদ্যোগে গত ৮ই ডিসেম্বর রোজ রবিবার হ্যামট্রামিক শহরের স্হানীয় গেইটস অব কলম্বাস হলে বাংলাদেশী আমেরিকান কমিউনিটি সহ অন্যান্য কমিউনিটির বিপুল পরিমান লোক সমাগমে আবু হানিফ সেন্সাস ২০২০ রোড শো অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে মুলধারার জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিক, আন্চলিক সামাজিক, ব্যবসায়িক সংগঠন ও বিএডিসির নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

 

অনুষ্ঠানটি পরিচালনার মুলদায়িত্বে ছিলেন বিএডিসির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রাক্তন সভাপতি ড. নাজমুল হাসান শাহীন। অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে ড. নাজমুল হাসান শাহীন মিশিগান অঙ্গরাজ্যের সেক্রেটারী অব স্টেইট জজলিন বেনসন এর সাথে কথা বলেন এবং তার মতামত নিয়ে ঘোষনা দেন যে বিএডিসি মিশিগান অংগরাজ্যে ভোট প্রদানের জন্য বাংলার পাশাপাশি বিভিন্ন ভাষায় ব্যালট পেপার প্রচলনের জন্য কাজ করবে।

মিশিগান বিএডিসির বর্তমান সভাপতি জোবারুল চৌধুরী খোকনের স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের মুল পর্ব শুরু হয়। মুল পর্বে বক্তব্য রাখেন মিশিগান অঙ্গরাজ্যের সেক্রেটারী অব স্টেইট জজলিন বেনসন, মিশিগান অঙ্গরাজ্যের হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভ আইজ্যাক রবিনসন, হ্যামট্রামিক সিটি মেয়র ক্যারেন মেজেস্কী, ৩১ সার্কিট কোর্ট জাজ অলেক্সিস ক্রট, ৩ সার্কিট কোর্ট জাজ ট্রেইসি গ্রীন, ইউ এস সেনেটর গ্যারেজ পিটার্স এর ডিস্ট্রিক ডাইরেক্টর কেভিন রিট, প্রাক্তন কংগ্রেসম্যান পদপ্রার্থী ড: সাঈদ তাজ, জেট্রয়্ট সিটি কাউন্সিলর স্কাট বেনসন, হ্যামট্রামিক সিটি কাউন্সিলর এনাম মিয়া, কাউন্সিলর আবু মুসা, কাউন্সিলর সাদ আলমাসমারী, কাউন্সিলর ইয়ান পেরেটা, কাউন্সিলর (নির্বাচিত) কামরুল হাসান, কাউন্সিলর (নির্বাচিত) নাঈম চৌধুরী, ও কাউন্সিলর (নির্বাচিত) মোহাম্মদ আল মাসারী, মিশিগান স্টেইট রিপ্রেজেন্টেটিভ পদপ্রার্থী মিশেল ওভাল হোল্ডজার। আমন্ত্রিত অতিথিদের মাঝে আরো উপস্হিত ছিলেন ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন সহসভাপতি জো ডগার্টি, লোকাল ২৪ ইউনিয়ন সহ-সভাপতি সেন্ড্রা পনসেটা।

অতিথিদের পরিচালনায় ছিলেন মিশিগান বিএডিসির সভাপতি (নির্বাচিত) মুহিত মাহমুদ,

প্রাক্তন সভাপতি আরিফ মাহমুদ, এক্সিকিউটিভ সহ-সভাপতি সোলায়মান বাহার, প্রাক্তন সভাপতি ইকবাল ফৈয়াজ, এক্সিকিউটিভ সহ-সভাপতি (নির্বাচিত)

নজরুল ইসলাম শামীম, জেনারেল সেক্রেটারী (নির্বাচিত)

জিয়া হক, সহসভাপতি (নির্বাচিত) আজিজ চৌধুরী, ১১ কমগ্রেশনাল ডিসট্রিক্ট চেয়ারম্যান সাদেক সুমন, সহসভাপতি (নির্বাচিত) সালমা সাঈফ, ওরগেনাইজিং সেক্রেটারী (নির্বাচিত) আবুল আজাদ।

 

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে কমিউনিটির ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন এবং ২০২০ সেন্সাস সাফল্য মন্ডিত করে তুলতে মতবিনিময় করেন। কমিউনিটি ও সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন দেওয়ান আকমল চৌধুরী, মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ, রেজাউল চৌধুরী, আব্দুল মুহিত, গিয়াস তালুকদার, আল্লামা মোস্তফা, কামাল রহমান, মাহবুব রাব্বি।

 

অনুষ্ঠানের তৃতীয় ও শেষ পর্বে ছিলো সেন্সাস বিষয়ক প্রশ্ন ও কর্মশালা। এতে অংশ গ্রহন করেন সেন্সাস ২০২০ এর ফিল্ড অফিসার জিনা বার্ডসং। অনুষ্ঠানের এই পর্ব পরিচালনা করেন বিএডিসি নেতা ফয়সল আহাম্মদ ও কাউন্সিলম্যান নাঈম চৌধুরী।

 

সেন্সাস ২০২০ রোডশো অনুষ্ঠানে আরো উপস্হিত ছিলেন বিএডিসি নেতা ড. মোহাম্মদ নাসিম, জ. জাকিরুল হক টুকু, মোহাম্মদ জামান, লুৎফর তাহের, মোহাম্মদ সোলায়মান, কাউসার দেওয়ান, মোহাম্মদ হাফিজ, মোহাম্মদ লুৎফর, মন্জুরুল করিম তুহিন, মাওলানা হাফিজ ফখরুল, ফখরুল ইসলাম বাচ্চু, আপেল খান, জিয়াউদ্দিন জয়, জিএম জাকারিয়া, মোহাম্মোমদ সাদিক, হাম্মদ সাবুল হোসেন। কমিউনিটি ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের মাঝে উপস্হিত ছিলেন মোশাররফ চৌধুরী লিটু, ফারুক আহাম্মেদ চান্দ, মাহফুজ চৌধুরী, আব্দুস শহীদ, শরীফ আহাম্মেদ, আবু হুরার দেওয়ান, আবুল হোসেন ভিংরাজ, ধর্মানেন্দ মহাথেরো, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব কামরুজ্জামান (হেলাল) নাজেল হুদা, কাউসার দেওয়ান প্রমুখ।

 

সেন্সাস একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ কর্মসুচী যার মধ্য দিয়ে

অনেক সামাজিক প্রকল্প যেমন স্কুল, রাস্তা, স্বাস্হ্যপ্রকল্প, ও বিভিন্ন ওয়েলফেয়ার প্রকল্পের সরকারী অনুদান নির্ধারিত হয়। কংগ্রেসে প্রতিটি অঙ্গরাজ্যের প্রতিনিধি সংখ্যা ও সেন্সাস গননায় প্রত্যেক ১০ বছর পর পর নির্ধারিত হয়।

এবার লোক সংখ্যা কমলে মিশিগান অঙ্গরাজ্যের একটা এমনকি দুইটা কংগ্রেসনাল আসন হারানোর ঝুঁকি আছে যা ডেমোক্রেটিক পার্টির হারানোর সম্ভাবনাই বেশী। তাই এইবারের ২০২০ সালের সেন্সাসের গুরুত্ব অত্যন্ত তাৎপর্যপুর্ন। উল্লেখ্য, মরহুম আবু হানিফ ২০১০ সালের সেন্সাসে বিএডিসি ও কমিউনিটির পক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখেন। তাই, মিশিগান বিএডিসির প্রাক্তন ট্রাষ্টী মরহুম আবু হানিফের স্মরনে অনুষ্ঠানটির নামকরনের করা হয়। অনুষ্ঠানে আগত সবাই দল মত পথ নির্বিশেষে একত্রে কাজ করে সেন্সাস ২০২০ কে সাফল্য মন্ডিত করে আমেরিকান কেন্দ্রীয় সরকারের বিশেষ সামাজিক সুবিধাগুলো অক্ষুন্ন রাখতে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

 

অনু্ষ্ঠানের মিডিয়া পার্টনার ছিলো আই টিভি, এম আই প্রবাসী, মিশিগান এক্সপ্রেস, বাংলা সংবাদ।