এসএমপির মাসিক কল্যাণ ও অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত

5

সবুজ সিলেট ডেস্ক
সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) মাসিক কল্যাণ সভা গতকাল সোমবার সকাল ১০টায় সিলেট পুলিশ লাইন্সে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসএমপির পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়া বিপিএম কল্যাণ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সকল পুলিশ সদস্যদের কল্যাণ সংক্রান্ত বিষয়ে মতামত গ্রহণ করে বিভিন্ন দিঙ্নির্দেশনা প্রদান করেন।
কল্যাণ সভায় পুলিশ কমিশনার প্রতিটি পুলিশ সদস্যকে আরো সতর্কতা অবলম্বন করে দায়িত্বপালনের আহ্বান জানান। কোনো পুলিশ সদস্য যাতে কোনো ধরনের অপকর্মের সাথে যুক্ত না হন, সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখার জন্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশ প্রদান করেন তিনি। কোনো পুলিশ সদস্য যাতে মাদক সংক্রান্ত বিষয়ে জড়িত না হন, সে ব্যাপারেও তিনি কঠোর নির্দেশনা প্রদান করেন।
এ সময় তিনি ক্রীড়া ক্ষেত্রে নৈপুণ্য প্রদর্শন ও সাফল্যের জন্য বিভিন্ন ইভেন্টের বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। পুলিশ লাইন্সে অনুষ্ঠিত উক্ত কল্যাণ সভায় সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের সকল অফিসার ও ফোর্স উপস্থিত ছিলেন।
অপরদিকে দুপুর ১২টায় উপশহরস্থ এসএমপির সদরদপ্তরের সভাকক্ষে মাসিক অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত হয়। পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন এসএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (সদর ও প্রশাসন) পরিতোষ ঘোষ, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম ও অপারেশন) মো. শফিকুল ইসলাম, উপপুলিশ কমিশনার (পিওএম) কামরুল আমীন, উপপুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) ফয়সল মাহমুদ, উপপুলিশ কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ পিপিএম, উপপুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) মো. সোহেল রেজা পিপিএম, উপপুলিশ কমিশনার (ডিবি অ্যান্ড প্রসিকিউশন) সঞ্জয় সরকার, অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার (মিডিয়া ও কমিউনিটি সার্ভিস) মো. জেদান আল মুসা, র‌্যাব-৯ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সামিওল আলম, পিবিআই, সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সারোয়ার জাহান, সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এর ইমিগ্রেশনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শরিফুল ইসলাম, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, সিলেটের পরিদর্শক ফনীভূষণ রায়, ট্যুরিস্ট পুলিশ, সিলেটের পুলিশ পরিদর্শক মো. আব্দুর নূর, হাইওয়ে পুলিশের এসআই মো. কামরুল ইসলামসহ সকল অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার, সহকারী পুলিশ কমিশনার ও সকল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা (ওসি)।
অপরাধ সভায় সকল থানার ওসিগণ তাদের থানা এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি তুলে ধরেন। সিলেট শহরবাসী যাতে সর্বোচ্চ পুলিশি সেবা পায় সেটা নিশ্চিত করা ও জনগণ যেন হয়রানির শিকার না হয় সে বিষয়ে খেয়াল রাখা এবং তদন্তাধীন মামলাসমূহ দ্রæত নিষ্পত্তির জন্য এসএমপি’র সকল থানার ওসিদের নির্দেশ প্রদান করেন পুলিশ কমিশনার। শহরে চুরি-ছিনতাই-ডাকাতি প্রতিরোধের জন্য পুলিশের টহল বৃদ্ধি ও মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অব্যাহত রাখার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন এবং যানজট নিরসনে ট্রাফিক পুলিশ সদস্যদের সর্বদা তৎপর থাকার জন্য নির্দেশনা প্রদান করেন। ৯৯৯ এর সেবা জোরদার এবং ভাড়াটেদের তথ্য সংগ্রহ অব্যাহত রাখার নির্দেশনা প্রদান করেন তিনি। এছাড়া পুলিশের জনমুখী সেবা বৃদ্ধি করা ও কোনো স্থানে কোনো ধরনের ঘটনা ঘটলে সেখানে দ্রæততম সময়ের মধ্যে উপস্থিত হয়ে তা সমাধান করা এবং কোনো ধরনের ঘটনা যাতে না ঘটে সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন।
সভায় গত জানুয়ারি মাসে অধিক সংখ্যক পরোয়ানা তামিল, অধিক পরিমাণ মাদকদ্রব্য উদ্ধার, ছিনতাইকারী গ্রেপ্তার, জোড়া খুনের মামলার আসামি গ্রেপ্তার, স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণের ব্যবস্থা, সর্বোচ্চ প্রসিকিউশন দাখিল ও জরিমানা আদায়, মাদকদ্রব্য উদ্ধার ও মামলা প্রস্তুত করার জন্য এসএমপির এসআই সুমন কুমার শীল ও এএসআই মো. ইখতিয়ার উদ্দিন, জালালাবাদ থানার এসআই অমিত সাহা ও এসআই শেখ মো. ইয়াছিন ভ‚ঁঁইয়া, এয়ারপোর্ট থানার এসআই রিপটন পুরকায়স্থ, শাহপরাণ (রহ.) থানার এসআই রাজিব কুমার রায় ও এএসআই মো. সেলিম মিয়া, মোগলাবাজার থানার টিএসআই মো. আকবর হোসেন, ট্রাফিক বিভাগের এসআই (নি.) মো. মাহাবুব আলম মন্ডল ও এসআই (নি.) সৌমেন দাসকে পুরস্কৃত করা হয়।
এসএমপির মাসিক কল্যাণ
ও অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত
সবুজ সিলেট ডেস্ক
সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) মাসিক কল্যাণ সভা গতকাল সোমবার সকাল ১০টায় সিলেট পুলিশ লাইন্সে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসএমপির পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়া বিপিএম কল্যাণ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সকল পুলিশ সদস্যদের কল্যাণ সংক্রান্ত বিষয়ে মতামত গ্রহণ করে বিভিন্ন দিঙ্নির্দেশনা প্রদান করেন।
কল্যাণ সভায় পুলিশ কমিশনার প্রতিটি পুলিশ সদস্যকে আরো সতর্কতা অবলম্বন করে দায়িত্বপালনের আহ্বান জানান। কোনো পুলিশ সদস্য যাতে কোনো ধরনের অপকর্মের সাথে যুক্ত না হন, সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখার জন্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশ প্রদান করেন তিনি। কোনো পুলিশ সদস্য যাতে মাদক সংক্রান্ত বিষয়ে জড়িত না হন, সে ব্যাপারেও তিনি কঠোর নির্দেশনা প্রদান করেন।
এ সময় তিনি ক্রীড়া ক্ষেত্রে নৈপুণ্য প্রদর্শন ও সাফল্যের জন্য বিভিন্ন ইভেন্টের বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। পুলিশ লাইন্সে অনুষ্ঠিত উক্ত কল্যাণ সভায় সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের সকল অফিসার ও ফোর্স উপস্থিত ছিলেন।
অপরদিকে দুপুর ১২টায় উপশহরস্থ এসএমপির সদরদপ্তরের সভাকক্ষে মাসিক অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত হয়। পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন এসএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (সদর ও প্রশাসন) পরিতোষ ঘোষ, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম ও অপারেশন) মো. শফিকুল ইসলাম, উপপুলিশ কমিশনার (পিওএম) কামরুল আমীন, উপপুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) ফয়সল মাহমুদ, উপপুলিশ কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ পিপিএম, উপপুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) মো. সোহেল রেজা পিপিএম, উপপুলিশ কমিশনার (ডিবি অ্যান্ড প্রসিকিউশন) সঞ্জয় সরকার, অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার (মিডিয়া ও কমিউনিটি সার্ভিস) মো. জেদান আল মুসা, র‌্যাব-৯ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সামিওল আলম, পিবিআই, সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সারোয়ার জাহান, সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এর ইমিগ্রেশনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শরিফুল ইসলাম, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, সিলেটের পরিদর্শক ফনীভূষণ রায়, ট্যুরিস্ট পুলিশ, সিলেটের পুলিশ পরিদর্শক মো. আব্দুর নূর, হাইওয়ে পুলিশের এসআই মো. কামরুল ইসলামসহ সকল অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার, সহকারী পুলিশ কমিশনার ও সকল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা (ওসি)।
অপরাধ সভায় সকল থানার ওসিগণ তাদের থানা এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি তুলে ধরেন। সিলেট শহরবাসী যাতে সর্বোচ্চ পুলিশি সেবা পায় সেটা নিশ্চিত করা ও জনগণ যেন হয়রানির শিকার না হয় সে বিষয়ে খেয়াল রাখা এবং তদন্তাধীন মামলাসমূহ দ্রæত নিষ্পত্তির জন্য এসএমপি’র সকল থানার ওসিদের নির্দেশ প্রদান করেন পুলিশ কমিশনার। শহরে চুরি-ছিনতাই-ডাকাতি প্রতিরোধের জন্য পুলিশের টহল বৃদ্ধি ও মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অব্যাহত রাখার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন এবং যানজট নিরসনে ট্রাফিক পুলিশ সদস্যদের সর্বদা তৎপর থাকার জন্য নির্দেশনা প্রদান করেন। ৯৯৯ এর সেবা জোরদার এবং ভাড়াটেদের তথ্য সংগ্রহ অব্যাহত রাখার নির্দেশনা প্রদান করেন তিনি। এছাড়া পুলিশের জনমুখী সেবা বৃদ্ধি করা ও কোনো স্থানে কোনো ধরনের ঘটনা ঘটলে সেখানে দ্রæততম সময়ের মধ্যে উপস্থিত হয়ে তা সমাধান করা এবং কোনো ধরনের ঘটনা যাতে না ঘটে সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন।
সভায় গত জানুয়ারি মাসে অধিক সংখ্যক পরোয়ানা তামিল, অধিক পরিমাণ মাদকদ্রব্য উদ্ধার, ছিনতাইকারী গ্রেপ্তার, জোড়া খুনের মামলার আসামি গ্রেপ্তার, স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণের ব্যবস্থা, সর্বোচ্চ প্রসিকিউশন দাখিল ও জরিমানা আদায়, মাদকদ্রব্য উদ্ধার ও মামলা প্রস্তুত করার জন্য এসএমপির এসআই সুমন কুমার শীল ও এএসআই মো. ইখতিয়ার উদ্দিন, জালালাবাদ থানার এসআই অমিত সাহা ও এসআই শেখ মো. ইয়াছিন ভ‚ঁঁইয়া, এয়ারপোর্ট থানার এসআই রিপটন পুরকায়স্থ, শাহপরাণ (রহ.) থানার এসআই রাজিব কুমার রায় ও এএসআই মো. সেলিম মিয়া, মোগলাবাজার থানার টিএসআই মো. আকবর হোসেন, ট্রাফিক বিভাগের এসআই (নি.) মো. মাহাবুব আলম মন্ডল ও এসআই (নি.) সৌমেন দাসকে পুরস্কৃত করা হয়।