বিয়ানীবাজারে দুই অজ্ঞাত লাশ নিয়ে বেকায়দায় পুলিশ

13

বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি
মাত্র দুই সপ্তাহের ব্যবধানে পৃথক দুই অজ্ঞাত লাশ উদ্ধারের ঘটনায় বেশ বেকায়দায় পড়েছে বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ। এখনো পর্যন্ত উদ্ধার হওয়া লাশের পরিচয় মিলেনি। তবে পুলিশ দু’টি লাশের ময়নাতদন্ত শেষে ডিএনএ পরিক্ষার জন্য ফরেনসিক বিভাগে প্রেরণ করেছে। তারা লাশ উদ্ধারের ঘটনায় অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)’র সহায়তা চেয়ে পত্র প্রেরণ করেছে।
বিয়ানীবাজার থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জাহিদুল হক জানান, লাশ দু’টির পরিচয় এবং কারণ এখনো শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। তবে আমরা বিভিন্নভাবে রহস্য উদঘাটনে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।
জানা যায়, বিয়ানীবাজারের কুশিয়ারা নদী থেকে গত ৭ ফেব্রæয়ারি একটি অর্ধগলিত ভাসমান অজ্ঞাত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। স্থানীয়রা প্রথমে অজ্ঞাত লাশটি দেখতে পেয়ে দুবাগ ইউপি চেয়ারম্যান ও পুলিশকে অবগত করেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে লাশটি উদ্ধার করে। উদ্ধারের পূর্বে অজ্ঞাত লাশটি অর্ধগলিত অবস্থায় নদীতে ভাসছিল। এদিকে উপজেলার লাউতা ইউনিয়নের কালাইউরা এলাকার সোনাই নদীর তীরবর্তী একটি ঝোপে পৃথক আরেকজনের মস্তকবিহিন কঙ্কাল পাওয়া যায়। অজ্ঞাত ওই কঙ্কালের পাশ থেকে লুঙ্গি, গেঞ্জি ও জ্যাকেট উদ্ধার করা হয়। গত ২১ জানুয়ারি দুপুরে স্থানীয়দের সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কঙ্কালটি উদ্ধার করে। পুলিশ জানায়, লাশের মাংস পচে যাওয়ায় শুধুমাত্র কঙ্কাল রয়েছে। শুধু পায়ের গোড়ালিতে কিছু মাংস রয়েছে। কঙ্কাল উদ্ধারের ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।