করোনাভাইরাসে ইরানে দু’জনের মৃত্যু

5

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক:
মধ্যপ্রাচ্যের প্রথম দেশ হিসেবে ইরানে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে দু’জন মারা গেছেন। বুধবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। ইরানি স্বাস্থ্যমন্ত্রীর উপদেষ্টা আলিরেজা ভাহাবজাদে জানান, তেহরানের দক্ষিণাঞ্চলীয় কোম শহরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দুই বৃদ্ধ মারা গেছেন। ভাইরাসের কারণে তারা ফুসফুসের জটিল সংক্রমণে ভুগছিলেন। তবে মৃতদের নাম-পরিচয় জানাননি তিনি।

এনসিওভি-১৯ নামে পরিচিত নভেল করোনাভাইরাস প্রথম ধরা পড়ে গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে। এ পর্যন্ত এই ভাইরাসে দুই হাজারের বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন, আক্রান্ত ৭৬ হাজারেরও বেশি।

গত মাসে মধ্যপ্রাচ্যের প্রথম দেশ হিসেবে সংযুক্ত আরব আমিরাতে করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। দেশটিতে এ পর্যন্ত নয়জনের শরীরে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস ধরা পড়েছে, তবে কেউ মারা যাননি। ইরানে ভাইরাস আক্রান্ত দুই রোগীই মারা গেছেন।

দেশটির উপ-স্বাস্থ্যমন্ত্রী কাসেম জান-বাবেই জানিয়েছেন, কোম শহরে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে বিশেষ ইউনিট গঠন করেছে ইরানি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এছাড়া, রীতি অনুসারে কারও সঙ্গে করমর্দন করা বা চুমু দেয়া থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি, জনবহুল জায়গাগুলো আপাতত এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। দেশটিতে আর কোনও শহরে এখন পর্যন্ত ভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া না গেলেও সবাইকে বাড়তি সতর্কতা মেনে চলতে বলা হয়েছে।

বুধবার চীনে আরও ১০৮ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। এ নিয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ১১২ জন। এছাড়া, চীনের মূল ভূখণ্ডের বাইরে মারা গেছেন অন্তত আটজন। এর মধ্যে ইরানের মতো হংকংয়ে দু’জন এবং তাইওয়ান, জাপান, ফ্রান্স ও ফিলিপাইনে একজন করে মারা গেছেন।

এদিন নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৪৯ জন। এর মধ্যে ভাইরাসের উৎসস্থল চীনের হুবেই প্রদেশেই আক্রান্ত হয়েছেন ৬২ হাজার ৩১ জন। সারাবিশ্বে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭৬ হাজার ২৬২ জন।