‘সুহৃদ বন্ধনে’ মাতলো তিন হাজার শিক্ষার্থী

2

সিলেটের শিক্ষা ক্ষেত্রে অন্যতম ভূমিকা পালনকারী মুহিবুর রহমান ফাউন্ডেশন এবারও আয়োজন করল বার্ষিক শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের। শহরতলির বিমানবন্দর এলাকায় ‘সুহৃদ বন্ধন’ নামের ওই উৎসবে ছিল গান, নাটক, সংগীত, ভাষন, নৃত্য, কৌতুক, ড্যান্স, শারিরীক কসরত, ধামাইলসহ ইত্যাদি পরিবেশনা ও উপস্থাপনা।
‘সুহৃদ বন্ধন ২০২০’ এ গত রোববার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত শির্ক্ষার্থীদের অর্ধশত ইভেন্ট মাতিয়ে তুলে বিনোদন কেন্দ্র সিলেট বিমানবন্দর এলাকার এডভেঞ্চার ওয়ার্ল্ড। নাচে গানে আর হাসি আনন্দে কাটে শিক্ষার্থীদের সময়। তিন হাজারের মত শিক্ষার্থীদের নিয়ে সিলেটের মুহিবুর রহমান ফাউন্ডেশন গত রোববার আয়োজন করে বার্ষিক ওই শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সুহৃদ বন্ধন।
ফাউন্ডেশনের অধীনস্থ চারটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সিলেট কমার্স কলেজ, সিলেট বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি কলেজ, মুহিবুর রহমান একাডেমি ও ইডেন গার্ডেন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের নিয়েই বসে ওই সুহৃদ বন্ধন। প্রতিবছরের ন্যায় এবারও তাদের আয়োজনে দিনব্যাপি আয়োজনে মুখরিত হয়ে প্রকৃতিঘেষা বিনোদন কেন্দ্রটি।
সকালে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন মুহিবুর রহমান ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান শিক্ষাবিদ মুহিবুর রহমান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, চারটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রধান, অধ্যক্ষ শামছ উদ্দিন, অধ্যক্ষ ফরিদ উদ্দিন আহমদ, অধ্যক্ষ হারুন মিয়া, অধ্যক্ষ মুহিবুল ইসলাম, রেক্টর সালমা খানম চৌধুরী, পরিচালক মুজিবুর রহমান, ভাইস প্রিন্সিপাল মোহাম্মদ ইমাদ।
শিক্ষক সাম্মিনা জান্নাত চৌধুরী, লাকি পাল, মারুফা আক্তার লাকি, সাইয়িদ শাহীনের পরিচালনায় উদ্বোধনের জাতীয় ও কলেজ সংগীতের পর শুরু হয় কাব্যনাটক কুলি নাটক। এর পর একে একে নৃত্য, নাটক রুপবান ক্রীম, টকশো, উইশ্যাল ওভারকাম, নাটিকা ভূতের বাড়ি, নাটক বিদেশি খামাই, গান, সংগীত, পালা গান, মনিপুরী নৃত্যসহ বিভিন্ন ইভেন্টে অংশ নেয় শিক্ষার্থী ও তাদের দল। বিকালে আমন্ত্রিত শিল্পীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় গানের অনুষ্ঠান।
বিভিন্ন ইভেন্টে অংশ নেয়, নোভা, মাহি, সায়মা আক্তার লিজা, কিস্তাসুল মুসলিমিন, সুমাইয়া জাহান আনিকা, শিপলু, মিফতা, সুলতানা, রাশিদা, রুহান সরকার, নুর রাহিম, এবাদুর, রাবিয়া, জিসান, সাবা, নাহিদা, শাহেদি, রেজা চৌধুরী, শাহ মো. সাকিব, দিপান্তিতা সিনহা, অনন্যা সিনহা, পুস্পা, লামিয়া, সাকিব, আশরাফুল, দিব্য, সুমাইয়া, মিশন, নিশাদ সালসাবিল, নাদিয়া, ইমাদ, রিনিয়া, সিনতিয়া।
মুহিবুর রহমান একাডেমির অধ্যক্ষ শামছ উদ্দিন জানান, এ নিয়ে ৫ম বারের মত তারা অনুষ্ঠান করেছেন। শিক্ষার্থীদের নিয়ে দিনব্যাপি আয়োজন শিক্ষক ও অভিভাবকের মধ্যে মেলবন্ধন হিসেবে কাজ করবে। লেখাপড়ার ফাকে শিক্ষার্থীরা একদিন ভিন্ন পরিবেশে তাদের মনের ভাব ও উচ্ছ¡াস প্রকাশ করতে পেরে খুবই আনন্দিত। বিজ্ঞপ্তি